স্ত্রীকে নিয়ে মসজিদ পরিষ্কার করাটা ছিল তার অভ্যাস!
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=117421 LIMIT 1

ঢাকা, শুক্রবার   ১৪ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ৩০ ১৪২৭,   ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

স্ত্রীকে নিয়ে মসজিদ পরিষ্কার করাটা ছিল তার অভ্যাস!

ধর্ম ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:০৪ ৬ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ২২:০৭ ৬ জুলাই ২০১৯

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

আমেরিকায় প্রবাসী সৌদি নাগরিক সাঈদ আল গামিদি নামের মুরসীর সাবেক এক প্রতিবেশী টুইটারে লিখেন, ডক্টর মুরসী আমার প্রতিবেশী ছিলেন। প্রতিদিন ফজরের আজানের আগেই স্ত্রীকে নিয়ে মসজিদে আসাটা ছিল তার নিয়মিত অভ্যাস। 

তারা উভয়ে নিয়মিত মসজিদ-পরিচ্ছন্নতার কাজে অংশগ্রহণ করতেন। আমেরিকায় থাকা অবস্থায় মিশরের সাবেক প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদ মুরসী প্রতিদিন তাহাজ্জুদের সময় সস্ত্রীক মসজিদ পরিচ্ছন্নতার কাজ করতেন বলে জানিয়েছেন ঐ সময়ের তার এক প্রতিবেশী এম মাহিরজান।

আরো পড়ুন>>> মক্কা-মদিনায় অবস্থানকালে বিষয়গুলোর প্রতি খেয়াল রাখুন 

তাহাজ্জুদ পড়তেন। ফজর নামাজ পড়ে মসজিদ ত্যাগ করতেন মিসরের প্রথম নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ড. মোহাম্মদ মুরসী। কোনোদিন যদি ওই মসজিদে আজান না হতো, তাহলে তার কথাই আমরা স্মরণ করতাম। তিনি তখন আজান দিতেন। পড়া-লেখার সুবাদে বেশ কয়েকটি বছর মুরসী আমেরিকায় ছিলেন। ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে তিনি পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৮২ সাল থেকে ১৯৮৫ সালে মিসরে ফেরার আগ পর্যন্ত ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ছিলেন তিনি।

লসএঞ্জেলসের ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করা বিশিষ্ট ইতিহাসবিদ সৌদি নাগরিক ড. মুহাম্মদ ইবনে আব্দুল্লাহ পড়াশোনার সময়ই মুরসীকে চিনতেন। টুইটারে তিনি লিখেন, হে আল্লাহ! মুহাম্মাদ মুরসীর ওপর রহম করো। তাকে ক্ষমা করো।

তার ভুলগুলো মার্জনা করো। তিনি কতই না সুন্দর মানুষ এবং একজন সুপুরুষ ছিলেন। ড. মোহাম্মদ ইবনে আব্দুল্লাহ আরো লিখেন, মুহাম্মাদ মুরসী রাজনীতিতে আসার আগেই তার সঙ্গে আমার পরিচয়।

সেসময়ই তিনি কোরআনে কারিমের হাফেজ ছিলেন। মসজিদ দেখাশোনা করতেন। মসজিদ সংশ্লিষ্টদের খোঁজখবর রাখতেন। এমনকি তাকে নিয়মিত মসজিদ পরিষ্কার করতেও দেখেছি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে