Alexa সেতুর অপেক্ষায় ৩৩ বছর

ঢাকা, শনিবার   ২০ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৬ ১৪২৬,   ১৭ জ্বিলকদ ১৪৪০

সেতুর অপেক্ষায় ৩৩ বছর

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১১:৫৮ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ২১:৩৩ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার নাগর নদে ১৯৮৫ সালে সেতু নির্মাণের কথা ছিল। এরপর কেটে গেছে ৩৩ বছর। কিন্তু বাস্তবায়ন হয়নি কাঙ্ক্ষিত সেই সেতুর।

কুন্দগ্রামের হরিনমারা স্কুলের সামনে ও চাঁপাপুরের পারশন পারঘাটার বাসিন্দারা বাঁশের সাঁকো দিয়ে কোনো রকমে পারাপারের ব্যবস্থা করে আসছেন। 

প্রতি বছর স্থানীয়ভাবে মেরামত করে ঝুঁকি নিয়ে বাঁশের সাঁকোতে পারাপারের ব্যবস্থা করে থাকেন তারা। এ দুই সাঁকোর ওপর দিয়ে প্রায় ৩১ গ্রামের স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীসহ এলাকাবাসী পার হয়ে থাকেন। পারাপারের সময় দুলতে থাকে সাঁকোটি।

হরিনমারা গ্রামের আবু মুছা বলেন, এ দুটি স্থানে বাঁশের তৈরি সাঁকোর পরিবর্তে সেতু নির্মাণের দাবি জানালেও তা পূরণ হয়নি। 

কুন্দগ্রাম ইউপি সদস্য আব্দুর রাজ্জাক বলেন, হরিরমারা স্কুলের সামনে সেতু নির্মাণের জন্য ১৯৮৫ সালে প্রস্ততি নিলেও এখন পর্যন্ত তা হয়নি। জরুরি ভিত্তিতে সেতু নির্মাণ করা উচিত।

চাঁপাপুর ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সামছুল হক বলেন, পারঘাটায় সেতু নির্মাণ না হওয়ায় জনদুর্ভোগ চরমে উঠেছে। অচিরেই সেতু নির্মাণের জন্য প্রকৌশলী বিভাগকে জানানো হয়েছে। 

এ ব্যাপারে আদমদীঘি উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল মতিন বলেন, হরিনমারা ও পারঘাটায় দুটি সেতু নির্মাণের জন্য এরইমধ্যে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস