Alexa সেই ১৫ সদস্যের সৌদি ‘ডেথ স্কোয়াড’-এ ছিল এরা

ঢাকা, শনিবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৬ ১৪২৬,   ২১ মুহররম ১৪৪১

Akash

সেই ১৫ সদস্যের সৌদি ‘ডেথ স্কোয়াড’-এ ছিল এরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: international-desk

 প্রকাশিত: ১৪:৪৩ ২০ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৪:৪৮ ২০ ডিসেম্বর ২০১৮

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

সৌদি ভিন্নমতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগির হত্যাকাণ্ডে জড়িত ১৫ সদস্যের সৌদি ‘ডেথ স্কোয়াড’ দলের ছবি প্রকাশ করেছে তুরস্কের গণমাধ্যম।

বুধবার প্রকাশিত খবরে খাশোগিকে হত্যা করতে ইস্তানবুলে অবস্থিত সৌদি কনস্যুলেটে আসা এই আততায়ী দলের প্রত্যেকের ছবি দেখা গেছে। - খবর আল-জাজিরা’র

ভিডিও ফুটেজ অনুসারে-এ হত্যাকাণ্ডের কয়েক ঘণ্টা আগে সৌদি আততায়ী দলকে তুরস্কে আসতে দেখা গেছে। তারা সৌদি কনস্যুলেট ও কনস্যুলারের আবাসিক ভবনে প্রবেশ করেন। এরপর হত্যাকাণ্ড শেষে তারা তুরস্ক থেকে সৌদি আরবের উদ্দেশে উড়াল দেন।

ইস্তানবুল পুলিশ ও তুরস্কের গোয়েন্দা সংস্থা শহরজুড়ে ৮০টি এলাকার ১৪৭টি ক্যামেরার সাড়ে তিন হাজার ঘণ্টার ভিডিও ফুটেজ অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেছে।

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নিজস্ব নিরাপত্তা দলের সদস্য ৩১ বছর বয়সী আবদুল আজিজ মোহাম্মদ আল হাওসাইকে ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে।

তুরস্কের বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি’র খবরে বলা হয়েছে-এ সময় আরেক সন্দেহভাজন সৌদ আল কাহতানিও ছিলেন। সন্দেহ করা হচ্ছে-সৌদি রাজধানী রিয়াদ থেকে উড়ে আসা ১৫ সদস্যের আততায়ী দলের তত্ত্বাবধান করেছেন তিনি।

তিনি সৌদি আরবের অন্যতম শীর্ষ ব্যক্তি, যিনি এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিলেন বলে মনে করা হচ্ছে। ৪০ বছর বয়সী কাহতানিকে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের ডানহাত বলা হয়।

মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে গেলো ২ অক্টোবর ইস্তানবুলে সৌদি কনস্যুলেটে সর্বশেষ প্রবেশ করতে দেখা গেছে ।

তাকে হত্যার কথা সৌদি আরব প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে তারা জানায় যে, কনস্যুলেট কর্মকর্তাদের সঙ্গে হাতাহাতিতে তার মৃত্যু হয়েছে।

তবে তার মৃতদেহ কি করা হয়েছে বা কোথায় তা রাখা হয়েছে এ ব্যাপারে তারা কোনো মন্তব্য করেনি। খাশোগি হত্যাকাণ্ডের তদন্তে থাকা বিভিন্ন আন্তর্জাতিক তদন্তকারী দল সমূহ জানিয়েছে, তাকে কনস্যুলেটের ভেতর নির্মম ভাবে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর তার দেহ করাত দিয়ে টুঁকরো টুঁকরো করে কাটা হয় এবং পরবর্তীতে তা এসিড দিয়ে গলিয়ে ফেলে নিশ্চিহ্ন করে দেয়া হয়।

দেখুন ভিডিও:

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী/টিআরএইচ