Alexa সু চিকে নিন্দা জানালো ইআরসি

ঢাকা, শনিবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২০,   মাঘ ১১ ১৪২৬,   ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

সু চিকে নিন্দা জানালো ইআরসি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৫৪ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৬:০৮ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে (আইসিজে) রাখাইনে রোহিঙ্গাদের প্রতি অপরাধের পক্ষে অবস্থান নেয়ায় অং সান সু চি’র প্রতি তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ইউরোপীয় রোহিঙ্গা কাউন্সিল (ইআরসি)।

শুক্রবার এক লিখিত বিবৃতিতে সু চির প্রতি নিন্দা প্রকাশ করেছে সংস্থাটি। খবর- আনাদলূ এজেন্সি 

২০১৭ সালে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যায় বিশ্বজুড়ে প্রতিবাদ শুরু হয়। জাতিসংঘ কর্তৃক বিশ্বের সবচেয়ে নিপীড়িত গোষ্ঠী হিসেবে বর্ণিত হয় রোহিঙ্গারা। ১৯৯১ সালে শান্তিতে নোবেল জয়ী ও মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর সু চি রোহিঙ্গাদের ন্যায়বিচারের জন্য বিশ্বের আহ্বানকে বারবার উপেক্ষা করেছেন। আইসিজেতেও নিজ দেশের সাফাই গেয়েছেন এই নোবেল জয়ী ও এক সময়ের গণতন্ত্রের আইকন। 

এক লিখিত বিবৃতিতে দি ইআরসি বলেছে, নিজ নজরদারির অধীনে সেনাবাহিনীর করা গুরুতর অপরাধগুলো স্বীকার করতে আবারো ব্যর্থ হয়েছেন সু চি। এছাড়া মানবাধিকার, ন্যায়বিচার, জবাবদিহিতা ও দায়িত্বের ওপরে রাজনৈতিক অবস্থানকে প্রাধান্য দিয়েছেন তিনি।

আন্তর্জাতিক আদালতে নিজ দেশকে উপস্থাপন করার সময় রোহিঙ্গা শব্দটিও উল্লেখ করেননি সু চি ও তার আইনি দল। সেখানে তারা ন্যায়বিচার ও জবাবদিহিতার চিহ্ন মাত্র দেখাতে পারেনি। উলটো নিজ সেনাবাহিনীর পক্ষে সাফাই গেয়েছেন। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর কমান্ডার-ইন-চিফ মিন অং হ্লাইংসহ বাকি সেনাদের দ্বারা করা রোহিঙ্গা গণহত্যার বিষয়টিও অস্বীকার করেছেন তিনি।

এদিকে গাম্বিয়া, কানাডা, নেদারল্যান্ড এবং মিয়ানমারের নৃগোষ্ঠী সম্প্রদায়ের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও মানবাধিকার সংস্থাগুলোকে রোহিঙ্গাদের প্রতি ‘ন্যায়বিচার ও জবাবদিহিতার’ জন্য সমর্থনের জন্য অনুরোধ জানিয়েছে দি ইআরসি। 

চলতি বছরের নভেম্বরে মুসলিম রাষ্ট্রগুলোর সংস্থা ওআইসি’র প্রতিনিধি হিসেবে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা করেছিল গাম্বিয়া। মামলা পরিচালনা করেছেন দেশটির বিচারমন্ত্রী ও অ্যাটর্নি জেনারেল আবুবকর মারি তামবাদু। অন্যদিকে মিয়ানমারের পক্ষ থেকে মামলায় লড়েছেন দেশটির স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি।

গাম্বিয়াকে সমর্থন করার জন্য ইউরোপীয় দেশগুলোকে আহ্বান জানিয়েছে দি ইআরসি। গণহত্যাকে একটি জটিল ও অবিচ্ছিন্ন পর্যায়ে পৌঁছানোর জন্যেও আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ