ঢাকা, শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
Advertisement
শিরোনাম:
গোপালগঞ্জের গোপীনাথপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত তিন, আহত দশ। টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে তুলার গোডাউনে আগুন দগ্ধ হয়ে এক শিশুর মৃত্যু। নিয়ন্ত্রনে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ২ টি ইউনিট। নওগাঁর মহাদেবপুরে গোপন বৈঠকের সময় জেলা জামায়াতের সাধারন সম্পাদক মহিউদ্দিনসহ ১২ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। পশ্নফাঁসসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে শিক্ষা অধিদপ্তর ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের ২৯ কর্মকর্তাকে বদলির আদেশ মন্ত্রণালয়ের। সংগীত পরিচালক আলী আকবর রুপু চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন খালেদার জামিন আবেদনের শুনানি রোববার দুর্নীতিতে বাংলাদেশ বিশ্বের ১৭তম: টিআই
শিরোনাম:
গোপালগঞ্জের গোপীনাথপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত তিন, আহত দশ। টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে তুলার গোডাউনে আগুন দগ্ধ হয়ে এক শিশুর মৃত্যু। নিয়ন্ত্রনে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ২ টি ইউনিট। নওগাঁর মহাদেবপুরে গোপন বৈঠকের সময় জেলা জামায়াতের সাধারন সম্পাদক মহিউদ্দিনসহ ১২ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। পশ্নফাঁসসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে শিক্ষা অধিদপ্তর ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের ২৯ কর্মকর্তাকে বদলির আদেশ মন্ত্রণালয়ের। সংগীত পরিচালক আলী আকবর রুপু চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন খালেদার জামিন আবেদনের শুনানি রোববার দুর্নীতিতে বাংলাদেশ বিশ্বের ১৭তম: টিআই...

সুন্দরবনে তৃতীয় দফায় বাঘ মনিটরিং শুরু

 খুলনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:০২, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

১০৯ বার পঠিত

খবরটি শুনতে এখানে ক্লিক করুন
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সুন্দরবনে ক্যামেরা ট্রাপিং পদ্ধতিতে তৃতীয় দফায় বাঘ মনিটরিং বা পরিবীক্ষণ আজ মাঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে।

সুন্দরবনের খুলনা ও শরণখোলা রেঞ্জের দুটি বন্যপ্রাণি অভয়ারণ্যের ৪৭৮ বর্গকিলোমিটার এলাকায় করা হবে এই মনিটরিং।

বন বিভাগ জানিয়েছে, ২৩৯টি পয়েন্টের গাছ বা খুঁটির সঙ্গে ৬৭০টি ক্যামেরা বসিয়ে এ বাঘ মনিটরিং করা হবে।

এর আগে প্রথম দফায় ২০১৩ সালে সুন্দরবনের ২৬ শতাংশ এলাকায় ক্যামেরা ট্রাপিং পদ্ধতিতে বাঘ শুমারি হয়েছিল। ওই সময় বাঘের উপস্থিতি বেশি এমন এলাকা বেছে নেয়া হয়েছিল। এরপর দ্বিতীয় দফায় ২০১৬ সালের ১ ডিসেম্বর থেকে ২০১৭ সালের ১৫ মার্চ সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে ক্যামেরা ট্রাপিং’র মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহের কাজ হয়।

এবারে খুলনা ও শরণখোলা রেঞ্জে মনিটরিং শেষ হওয়ার পর তিনটি রেঞ্জের ফলাফল এক সঙ্গে আগামী বছরের (২০১৯ সাল) প্রথম দিকে প্রকাশ করা হবে। তখনই জানা যাবে সুন্দরবনে বাঘের প্রকৃত অবস্থান।

খুলনা সার্কেল বন সংরক্ষক, মো. আমীর হোসাইন চৌধুরী বলেন, সর্বশেষ ২০১৩ ও ২০১৪ সালে ক্যামেরা ট্রাপিং পদ্ধতিতে বাঘ গণনা করা হয়েছিল। ২০১৫ সালের মার্চে প্রকাশিত ফলাফল অনুযায়ী সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ১০৬টি। তাই বর্তমানে সুন্দবনের বাঘের সংখ্যা, অবস্থান ও গতিপ্রকৃতি জানতেই এবারের মনিটরিং কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

খুলনা বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. মদিনুল আহসান জানান, এবারে বাঘের সংখ্যা গণনার পাশাপাশি পর্যবেক্ষণ করা হবে বাঘ যেসব প্রাণি খায় সেগুলোর অবস্থাও। বাংলাদেশসহ ভারত, নেপাল ও ভুটানে একই সঙ্গে শুরু হচ্ছে বাঘ পরিবীক্ষণ। বাঘ রক্ষায় ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নির্ধারণের জন্য করা হচ্ছে এই মনিটরিং।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরেস্টি অ্যান্ড উড টেকনোলজি বিভাগের প্রফেসর ড. নাজমুস সাদাত বাঘ মনিটরিং কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেছেন, এ কাজে দেশি গবেষকদের সম্পৃক্ততা থাকা উচিত ছিল। তাহলে বাঘ রক্ষায় ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন সহজ হতো।

বন বিভাগের তথ্যানুযায়ী সুন্দরবনে ১৯৮২ সালে বাঘের সংখ্যা ছিল ৪৫৩টি, ২০০৪ সালে ৪৪০টি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই

সর্বাধিক পঠিত