সুচি র নিষ্ঠুরতা বনাম তুর্কি ফার্স্ট লেডির মহানুভবতা

ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪২৬,   ১৮ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

সুচি'র নিষ্ঠুরতা বনাম তুর্কি ফার্স্ট লেডির মহানুভবতা

 প্রকাশিত: ১৫:৫০ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭   আপডেট: ১৫:৫১ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বিশ্বের রক্তচোষা দানব নেতাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে মানবতার দৃষ্টান্ত দেখিয়ে দিয়ে গেলেন এমিনি এরদোগান`। প্রায় সাড়ে ৫ হাজার কিলোমিটার দূর থেকে ছুটে এসেছেন বিবেকের তাড়নায়, ৯ ঘণ্টা বিমান জার্নি শেষে রাত তিন টায় ল্যান্ড করেছিলেন ঢাকা বিমানবন্দরে, রেস্ট নিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে সকালের নাস্তা সেরেই ছুটে যান প্রাইভেট বিমানে করে কক্সবাজার মায়ার টানে। কক্সবাজার নেমেই ছুটে যান প্রিয় মানুষগুলার খোঁজ খবর নিতে ও তাদের মুখে দুটি খাবার তুলে দিতে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে।

নিদ্রাহীন চোখে একটুও বিরক্তির ছাপ দেখিনি তাঁর, মুখে নেই কোন ক্লান্তির ছায়া, শরীরকে দেন নি একটু ও বিশ্রাম তারপরও থেমে থাকেন নি সেই সকাল থেকে এখন অব্দি। সাড়ে ৫ হাজার কিলোমিটার দূরে অবস্থিত অচেনা মানুষগুলাকে আপন করে নিয়েছেন মুহুর্তের মধ্যেই, বুকে জড়িয়ে নিয়ে ভালোবাসার পরম চাঁদরে ঢেকেছেন নির্যাতিত মানুষগুলাকে। শুনেছে তাদের উপর ঘটে যাওয়া ইতিহাসের সবচেয়ে নির্মমতা, কেদেছেন নিজে এমন কি কাঁদিয়েছেন উপস্থিত সকলকে।

নিজ হাতে খাদ্য তুলে দিয়েছেন অভুক্তদেরকে, হাঁসপাতালে ছুটে গিয়ে খোঁজ খবর নিয়েছেন নির্যাতিত অসুস্থ মানুষগুলার, প্রায় ৩৪০০ মাইল দূর থেকে ছুটে আসার সময় নিয়ে এসেছেন ১০০০ টন ত্রান সামগ্রী, যা কিনা বিলিয়ে দেওয়া হবে রোহিঙ্গা শরনার্থিদের জন্যে।

জি হ্যা, আমি আর কারো কথা বলছিনা, বলছি তুরস্কের সফল নায়ক ও প্রেসিডেন্ট, মুসলিম বিশ্বের সাহসী নেতা রজব তৈয়ব এরদোগানের সহধর্মিনি এমিনি এরদোগানের কথা।

সৎ ব্যক্তির জীবনে সৎ সহধর্মিনি মিলে, সাহসী ব্যক্তির জীবনে সাহসী স্ত্রী মিলে আজ আবারো প্রমানিত। এমিনি এরদোগান আজ সেটাই করে দেখিয়েছেন যা বিশ্বের লক্ষ লক্ষ মুসলিম নেতাদের পক্ষে করা সম্ভব হয়নি। যা কিনা বিশ্বের ২০০ কোটি মুসলমান করে দেখাতে পারেনি আজ তাই করে দেখিয়েছেন এই সাহসী ফার্স্ট লেডি।

ধন্যবাদ ও ভালোবাসা রইল এই সাহসী লেডির জন্যে, তিনি সারা বিশ্বের ক্ষমতাধর রক্তচোষা নেতাদের জানিয়ে দিলেন- "যার কেহ নেউ তাঁর জন্যে আল্লাহ আছেন, আর মহান আল্লাহ কোন না কোন উপায়ে মুসলমানদের সাহায্য করেই থাকেন"।

সূত্র: ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ

Best Electronics