সিলেটে ২২ ঘণ্টা পর জানা গেলো বোমা সদৃশ বস্তুটি কি

ঢাকা, রোববার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০,   আশ্বিন ১২ ১৪২৭,   ০৯ সফর ১৪৪২

সিলেটে ২২ ঘণ্টা পর জানা গেলো বোমা সদৃশ বস্তুটি কি

সিলেট প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:১৪ ৬ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৭:২৩ ৬ আগস্ট ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

অবশেষে প্রায় ২২ ঘণ্টা পর সিলেট নগরীর চৌহাট্টা এলাকায় মোটরসাইকেলে থাকা বোমাসদৃশ বস্তুটি উদ্ধার করেছে সেনাবাহিনীর বম্ব ডিসপোজাল টিম। জানা গেছে, বোমা নয়। বস্তুটি একটি গ্রাইন্ডিং মেশিন।

বৃহস্পতিবার বিকেল পৌনে চারটার দিকে গ্রাইন্ডিং মেশিনটি মোটরসাইকেল থেকে খুলে ফেলা হয়। এর আগে দুপুর ২টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছেই উদ্ধার অভিযানে নামে সেনাবাহিনীর বম্ব ডিসপোজাল টিম।

অভিযান শেষে বিকেল ৪টায় প্রেস ব্রিফিংয়ে লে. কর্নেল রাহাত বলেন, বস্তুটি চৌহাট্টায় পাওয়ার পর পুলিশ আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে। তাদের অনুরোধে আমরা ঘটনাস্থলে বস্তুটি দেখতে যাই। এরপর সতর্কতার সঙ্গে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখি সেটি একটি গ্রাইন্ডিং মেশিন।

এ সময় সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের ডিসি (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ বলেন, আমরা ঘটনাস্থল ও আশপাশের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে পর্যালোচনা করছি। এটি কেউ আতঙ্ক ছড়ানোর জন্য কেউ রাখতে পারে। তবে আমরা আরো তদন্ত করছি।

এর আগে বুধবার বিকেলে সিলেট নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে ট্রাফিক পুলিশের মোটরসাইকেলের মধ্যে ‘বোমা’ থাকার গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। এর ফলে নগরজুড়ে দেখা দেয় আতঙ্ক। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলের আশপাশ এলাকার ঘিরে রাখে। এরপর ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশের ক্রাইসিস রেসপন্স টিম (সিআরটি)।

জানা গেছে, যে মোটরসাইকেলে বোমাসদৃশ বস্তু রয়েছে সেটি এসএমপির ট্রাফিক সার্জেন্ট চয়ন নাইডুর। তিনি সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা দিকে চৌহাট্টা পয়েন্টের পাশে মোটরসাইকেলটি রেখে পাশের চশমার দোকানে যান। সেখানে কাজ সেরে এসে দেখেন মোটরসাইকেলের উপর ‘বোমা’ সদৃশ বস্তু। পরে তিনি বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানান।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম/এআর