Alexa সিলেটের ৬২ এলাকায় চালু হচ্ছে ফ্রি ওয়াই-ফাই জোন

ঢাকা, শনিবার   ২০ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৫ ১৪২৬,   ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪০

সিলেটের ৬২ এলাকায় চালু হচ্ছে ফ্রি ওয়াই-ফাই জোন

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৯:০৪ ২ জুলাই ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

সিলেটের গুরুত্বপূর্ণ ৬২টি এলাকায় ফ্রি ওয়াই-ফাই জোন চালু করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এতে নগরের ১৬২টি ওয়াই-ফাই অ্যাকসেস পয়েন্টে (এপি) বিনা মূল্যে ওয়াই-ফাই ব্যবহারের সুবিধা থাকবে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) কর্তৃক গৃহীত ‘ডিজিটাল সিলেট সিটি প্রকল্প’-এর আওতায় চলতি মাসেই এর কাজ শুরু হবে। নগরে অবস্থান করা সবাই আগামী নভেম্বর থেকে এই সুবিধা পাবেন বিনামূল্যে।

সিলেট নগরীর যেসব এলাকায় অ্যাকসেস পয়েন্ট থাকবে তা হলো- চৌকিদেখি, আম্বরখানা, দরগা গেট, চৌহাট্টা, জিন্দাবাজার, বন্দরবাজার ফুটওভার ব্রিজ এলাকা, হাসান মার্কেট এলাকা, সুরমা ভ্যালি রেস্ট হাউজ এলাকা, সার্কিট হাউজ জালালাবাদ পার্ক এলাকা, কিন ব্রিজের দুই প্রান্ত, রেলওয়ে স্টেশন, বাস টার্মিনাল, কদমতলী পয়েন্ট ও সংলগ্ন এলাকা, হুমায়ুন রশীদ চত্বর, আলমপুর পাসপোর্ট অফিস এলাকা, বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয় এলাকা, সিলেট শিক্ষা বোর্ড, উপশহর রোজভিউ পয়েন্ট, শাহজালাল উপশহর ই-ব্লক ও বি-ব্লক, টিলাগড় পয়েন্ট, এমসি কলেজ এলাকা, দক্ষিণ বালুচর, টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন, শাহী ঈদগাহ এলাকা, কুমারপাড়া জামে মসজিদ এলাকা ও কুমারপাড়া সড়ক।

এছাড়া নগরের নাইওরপুল পয়েন্ট, মিরাবাজার সড়ক, রায়নগর এলাকা, সোবহানীঘাট পুলিশ স্টেশন এলাকা, ধোপাদীঘিরপাড় বঙ্গবীর ওসমানী শিশু উদ্যান, বন্দরবাজার জামে মসজিদ এলাকা, নয়াসড়ক পয়েন্ট ও সংলগ্ন এলাকা, কাজীটুলা এলাকা, চৌহাট্টা সড়ক, হাউজিং এস্টেট সড়ক, সুবিদবাজার, মিরের ময়দান, পুলিশ লাইনস সড়ক, রিকাবীবাজার জেলা স্টেডিয়াম, মদন মোহন কলেজ এলাকা, মির্জাজাঙ্গাল সড়ক এলাকা, পাঁচ ভাই রেস্টুরেন্ট এলাকা, খুলিয়াপাড়া এলাকা, নর্থইস্ট ইউনিভার্সিটি এলাকা, তালতলা হোটেল গুলশান এলাকা, কাজীরবাজার সেতু এলাকা, কাজীরবাজার সড়ক, খোজারখলা সিলেট টেকনিক্যাল কলেজ এলাকা, ওসমানী মেডিকেল কলেজ এলাকা, বাগবাড়ী ওয়াপদা মহল্লা, পাঠানটুলা, মদিনা মার্কেট পয়েন্ট এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় গেটে অ্যাকসেস পয়েন্ট থাকবে।

ডিজিটাল সিলেট সিটি প্রকল্পের উপপরিচালক মধুসূদন সাহা বলেন, প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার পর এক বছর এসব ওয়াই-ফাই জোন দেখভাল করবে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল। পরে সিটি করপোরেশন তদারক করবে।

প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, এসব অ্যাকসেস পয়েন্টের একেকটিতে একসঙ্গে ৫০০ জন যুক্ত থাকতে পারবেন। প্রতিটি এক্সেস পয়েন্টে ব্যান্ডউইডথ থাকবে ১০ মেগাবিট/সেকেন্ড। চারদিকে ১০০ মিটার এলাকা এর আওতায় থাকবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে