সিলেটের নতুন কারাগারে ২৩০০ বন্দি

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৪ ১৪২৬,   ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

সিলেটের নতুন কারাগারে ২৩০০ বন্দি

সিলেট প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৬:৪২ ১১ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ২২:১৯ ১১ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সিলেটের নতুন কারাগারে প্রথম দিনে ২ হাজার ৩ শ বন্দি স্থানান্তর হয়েছে। এর মধ্যে ১ হাজার ৫২২ হাজতি ও ৭৭৮ কয়েদি বন্দি। বন্দিদের মধ্যে ২ হাজার ২৪৪ পুরুষ ও ৫৬ নারী রয়েছেন।

শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে ৯ টি প্রিজন ভ্যান ব্যবহার করে বন্দিদের স্থানান্তর শুরু হয়। এ প্রক্রিয়া চলবে শনিবার পর্যন্ত।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার আবদুল জলিল বলেন, সরকারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে নতুন কারাগারে একদিনে ২ হাজার ৩ শ বন্দিকে স্থানান্তর করা হয়েছে। এ সময় কারা প্রশাসন, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ, র‌্যাব, ফায়ার সার্ভিস, ইমার্জেন্সি মেডিকেল টিম ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। শনিবার থেকে নতুন এই কারাগারে দাফতরিক কার্যক্রম শুরু হবে।

১৭৮৯ সালে আসামের কালেক্টর জন উইলিশ সিলেট নগরীর ধোপাদিঘীর পাড়ে ২৪ দশমিক ৭৬ একর জমির উপর কারাগার নির্মাণ করেন। ১৯৯৭ সালের ৩ মার্চ এটি সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে রূপান্তরিত হয়। তখন কারাগারের ধারণ ক্ষমতা দাঁড়ায় ১ হাজার ২১০ জনে। বন্দিদের মানবেতর জীবনযাপনের বিষয়টি বিবেচনায় এনে মহানগরীর বাদাঘাটে ৩০ একর জমির উপর নতুন কারাগার নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়। ২০১১ সালে ২২৭ কোটি টাকা ব্যয়ে এ কারাগার নির্মাণের পদক্ষেপ নেয়া হয়। ওই বছর আগস্টে ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করা হলেও ২০১২ সালে শুরু হয়ে নির্মাণ কাজ শেষ হয় ২০১৬ সালে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ