.ঢাকা, শনিবার   ২৩ মার্চ ২০১৯,   চৈত্র ৯ ১৪২৫,   ১৬ রজব ১৪৪০

সিরিয়া থেকে প্রতিটি ইরানি সেনাকে তাড়ানো হবে: পম্পেও

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

 প্রকাশিত: ১১:৩৩ ১১ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১১:৩৩ ১১ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মধ্যপ্রাচ্য সফরে রয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পম্পেও। বুধবার আকস্মিক ইরাক সফরের মধ্য দিয়ে তিনি তার এ সফর শুরু করেন।

ইরাক সফরে তিনি দেশটির প্রধানমন্ত্রী আদেল আবদুল মাহদি, প্রেসিডেন্ট বারহাম সালিহ ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুহাম্মদ আল-হাকিমের সঙ্গে বৈঠক করেন। এছাড়াও দেশটির কুর্দি নেতাদের সঙ্গেও এক বৈঠক করেন তিনি।

এসব বৈঠকে তিনি বলেন, তুরস্কের সামরিক হুমকি থেকে কুর্দি সেনাদের সুরক্ষা দেয়া হবে।

এরপর বৃহষ্পতিবার তিনি মিসরে গিয়ে পৌছান। সেখানে দেশটির প্রেসিডেন্ট আব্দুল ফাত্তাহ আল সিসির সঙ্গেও বৈঠক করেন মার্কিন এ শীর্ষ কূটনীতিক।

মিসরের কায়রোতে দেয়া এক ভাষণে তিনি বলেন, সিরিয়া থেকে প্রতিটি ইরানি সেনাকে তাড়াতে মিত্রদের সঙ্গে সম্মিলিত হয়ে কূটনৈতিকভাবে কাজ করবে যুক্তরাষ্ট্র।

এসময় ইরানের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ অবস্থান তৈরি করতে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, এ অঞ্চলের সর্বাত্মক ভালোর জন্য পুরনো শত্রুতার অবসান ঘটানোর সময় এখনই।

তিনি আরো বলেন, সিরিয়া থেকে সর্বশেষ ইরানি সেনাকে তাড়াতে আমরা কূটনীতি ব্যবহার করব ও অংশিদারদের সঙ্গে কাজ করব। যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায় স্থিতিশীলতা ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় জোর চেষ্টা চালানোরও আভাস দেন তিনি।

সিরিয়া থেকে দুই হাজার মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ঘোষণার পর মিত্র দেশগুলোকে আশ্বস্ত করতে মধ্যপ্রাচ্য সফরে বেরিয়েছেন মাইক পম্পেও।

কায়রোর আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয়ে দেয়া ভাষণে পম্পেও বলেন, ইরান বিরোধী মধ্যপ্রাচ্য কৌশলগত জোট গঠন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ইরানকে মোকাবেলায় মিসর ও জর্ডানসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোকে ঐক্যবদ্ধ করতেই এই জোট।

‘ইরানের আগ্রাসী হঠকারিতার বিরুদ্ধে ইসরাইলের সামরিক সক্ষমতার’ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মার্কিন শীর্ষ কূটনীতিক।

তিনি জোর দিয়ে বলেন, সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার অব্যাহত থাকবে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র এখানে যুক্ত থাকবে। যদিও সিদ্ধান্ত থেকে এর আগে ট্রাম্পের সরে আসার কথা শোনা গেছে।

মিসরীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী সামেহ শুকরির সঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে পম্পেও বলেন, আমাদের সেনাদের সরিয়ে নেব, আমাদের পোশাক পরিহিত সেনাবাহিনীকে। কিন্তু আমেরিকার বিধ্বংসী অভিযান অব্যাহত থাকবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী/এসআইএস

শিরোনাম

শিরোনামএশিয়ান জোনাল দাবা চ্যাম্পিয়নশিপে শিরোপা জিতলেন ফাহাদ; বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন শিরোনামপুরান ঢাকার কেমিক্যাল গোডাউন সরাতে অভিযান চলবে; অনৈতিকভাবে কাউকে হয়রানি করা যাবে না: র‌্যাব মহাপরিচালক শিরোনামজামায়াতের মতো বিএনপিও একসময় নিঃশেষ হয়ে যাবে: হানিফ শিরোনামবিমানবন্দরে নিরাপত্তা বাড়ানো হবে; অস্ত্র নিয়ে প্রবেশকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শিরোনামধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ডাকসু প্রতিনিধিদের শ্রদ্ধা শিরোনামবিরোধী দলীয় উপনেতার পদ থেকে জিএম কাদেরকে সরিয়ে রওশন এরশাদকে দায়িত্ব দিয়েছেন এইচ এম এরশাদ শিরোনামডাকসুর প্রথম কার্যকরী সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আজীবন সদস্য করার প্রস্তাব গৃহীত