Exim Bank
ঢাকা, বুধবার ২৫ এপ্রিল, ২০১৮
Advertisement
বিজ্ঞাপন দিন      

সিন্ধু সভ্যতা হারিয়ে যাওয়ার কারণ!

 ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৩২, ১৬ এপ্রিল ২০১৮

২১৬ বার পঠিত

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ইতিহাস ঘাটলেই আমরা সিন্ধু সভ্যতার কথা জানতে পারি। ৪,৩৫০ বছর আগে বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছে এই সভ্যতা। এবার সিন্ধু নদের তীরে গড়ে ওঠা প্রাচীন সেই সভ্যতা নিয়ে নতুন তথ্য দিল খড়গপুর আইআইটি।

একাধিক তথ্য প্রমাণ জোগাড় করে খড়গপুর আইআইটির গবেষকরা জানতে পেরেছেন অন্তত ৯০০ বছরের খরায় সম্পূর্ণ বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছিল এই সভ্যতা। চলতি মাসেই ‘কোয়াটার্নারি ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল’-এ এই গবেষণার কথা প্রকাশিত হবে।

গত ৫০০০ বছর ধরে ভারতের বর্ষা বা বৃষ্টির ছবিটা কেমন, এই বিষয়ে গবেষণা করতে গিয়েই দেখা গিয়েছে একসময় উত্তর-পশ্চিম হিমালয়ের বুকে ব্যাপক খরা হয়েছে। বৃষ্টি প্রায় হয়নি বললেই চলে। একে একে শুকিয়ে গিয়েছিল নদী। জলের সমস্ত উৎস ক্রমেই বন্ধ হয় যায়। ফলে সেখানকার কিছু মানুষ উত্তর-পূর্বে সরে যান।

লেহ-লাদাখ অঞ্চলের ৫০০০ বছরের বর্ষার একটা মানচিত্র তৈরি করেছে আইআইটির গবেষকেরা। সেখানে দেখা গিয়েছে, কখনো বর্ষা হয়েছে খুব ভাল আবার কখনো বা একটু দুর্বল।

আরো জানা গিয়েছে, ৪,৩৫০ বছর আগে অর্থাৎ ১৪৫০খ্রিষ্টাব্দ থেকে ২৩৫০ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত বর্ষার চেহারা ছিল অত্যন্ত দুর্বল। যেসব জায়গায় মানুষের বসবাস ছিল, সেখানে হয়েছিল ব্যাপক খরা। ফলে মানুষজনকে সরে যেতে হয়েছিল।

এভাবেই দেশের বর্ষার অতীত খুঁজে ভবিষ্যতের ছবিটা নির্মাণ করতে চাইছেন গবেষকরা। আর এতেই জানা গেলো সিন্ধু সভ্যতার বিলীন হওয়ার কাহিনী।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস

সর্বাধিক পঠিত