Alexa সারাদিনই থাকবে ঝড়-বৃষ্টি

ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৮ ১৪২৬,   ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

সারাদিনই থাকবে ঝড়-বৃষ্টি

 প্রকাশিত: ১৩:১০ ২৯ এপ্রিল ২০১৮   আপডেট: ১৫:৪৩ ২৯ এপ্রিল ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছুটির দিন হওয়ায় রোববার কর্মস্থলের তাড়া ছিল না তেমনটা। কিন্তু ঘুম ভেঙেই চমকে ওঠেন অনেকে। কারণ, সাত সকালেই নেমে আসে যেন রাতের অন্ধকার। লোক চলাচল তেমনটা না থাকায় অনেকে বুঝে ওঠার আগেই রাজধানীতে শুরু হয় কালবৈশাখী। সঙ্গে প্রবল বর্ষণ। প্রায় টানা দেড় ঘণ্টার ঝড়-বৃষ্টিতে নগরীর বিভিন্ন সড়কে পানি জমে হয় একাকার। পথ চলতি মানুষ পড়েন ভোগান্তিতে।

অনেক এলাকায়ে উপড়ে গেছে গাছপালা। ধসে গেছে বস্তির ঘরবাড়ি। তবে হতাহতের কোনো খবর নেই।

আবহাওয়া অধিদফতরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রোববার দিনভর রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় কালবৈশাখী ও প্রবল বর্ষণ থাকবে।

এদিকে, সকাল ছয়টা থেকে রাজধানীতে তিন ঘণ্টায় মৌসুমের সর্বোচ্চ ৫০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, তাদের দুটো পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র থেকে কালবৈশাখীর গতিবেগ নির্ণয় করা হয়। যার মধ্যে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এলাকায় সকাল সাড়ে আটটায় আঘাত হানা কালবৈশাখীর বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৭৬ কিলোমিটার। অন্যদিকে নগরীর আগারগাঁওয়ের পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, সকালে ওই সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ৬৩ কিলোমিটার।

কিছুটা বিরতি দিয়ে রাজধানীতে দুপুর পৌনে ১২টা থেকে আবারও বৃষ্টি শুরু হয়। সঙ্গে বজ্রপাত হয়।

বুদ্ধপূর্ণিমায় সরকারি ছুটি থাকলেও নগরময় নিম্ন আয়ের মানুষের আনাগোনা ছিল বেশ। সড়কে জমে থাকা নোংরা পানি মাড়িয়েই চলাচল হয় তাদের।

আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ জানান, পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। সঙ্গে মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপটি দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান নিয়েছে।

এর ফলে সকাল ১০টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ঢাকা, রাজশাহী, রংপুর, দিনাজপুর, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, সিলেট, যশোর, কুষ্টিয়া, ফরিদপুর, মাদারীপুর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, কুমিল্লা ও নোয়াখালী অঞ্চলে অস্থায়ীভাবে পশ্চিম/উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০-৮০ কিলোমিটার বা আরো অধিক গতিবেগে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। একই সঙ্গে বিজলীসহ বিছিন্নভাবে কোথাও কোথাও ভারীবর্ষণ ও শিলাবৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

তিনি আরো জানান, এসব এলাকার নদীবন্দরকে ২ নম্বর নৌ-হুঁশিয়ারি এবং বাকি অঞ্চলের নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এলকে

Best Electronics
Best Electronics