Alexa সামান্য বৃষ্টিতে তলিয়ে যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের বিভিন্ন সড়ক

ঢাকা, সোমবার   ২২ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৭ ১৪২৬,   ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪০

সামান্য বৃষ্টিতে তলিয়ে যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের বিভিন্ন সড়ক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:১০ ১২ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ২০:২৬ ১২ জুলাই ২০১৯

ডেইলি বাংলাদেশ

ডেইলি বাংলাদেশ

সামান্য বৃষ্টিতেই তলিয়ে গেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের বিভিন্ন সড়ক। শুক্রবার দুপুর ২টা থেকে ঘন্টাব্যাপী ঝড়ো বাতাসসহ ভারী বৃষ্টি হয়। এতে শহরের কুমারশীল মোড়, কালীবাড়ী মোড়, লোকনাথ টেংকেরপাড়, পূর্বপাইকপাড়া, হালদার পাড়া, বাগান বাড়ি, পশ্চিম পাইকপাড়া, মুন্সেফপাড়াসহ আশপাশের পুরো এলাকার সড়ক তলিয়ে যায়।

দেড়শো বছরের পুরোনো প্রথম শ্রেণির পৌরসভার পাড়া মহল্লার সড়ক তলিয়ে গিয়ে এমন বেহাল অবস্থা সৃষ্টি হওয়ায় নাগরিকরা চরম দুর্ভোগে পড়েছে। জরুরি কাজে শহরে বের হওয়া পৌরবাসী জলাবদ্ধতার কবল পড়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

শিক্ষক লিটন দাস বলেন, প্রথম শ্রেণির পৌরসভার এমন অবস্থা অপ্রত্যাশিত। দেখার কি কেউ নেই।

আমুই রেস্টুরেন্টের মালিক সেলিম বলেন, পৌরসভার ড্রেনগুলো দীর্ঘ দিন ধরে জ্যাম হয়ে আছে। লেবাররা ঠিক ভাবে কাজ করে না বিধায় ড্রেনগুলো বন্ধ হয়ে এমন জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে।

ব্যবসায়ী দিদার মিয়া বলেন, আমরা কোথায় আছি দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আর ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা পিছিয়ে যাচ্ছে।

স্কুল শিক্ষিকা ইতি রানী সূত্রধর জানান, নাগরিকদের তো কোন দোষ নেই। আমরা নিয়মিত পৌরকর পরিশোধ করি শহরের রাস্তাঘাট ভালো হবে। জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পাবো। কিন্ত চিত্র ভিন্ন। আধা কিলোমিটার পানিতে করে পায়ে হেটে  সে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

এদিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর কিংকর ঘোষ জানান, পরিকল্পিত নগরায়নের অভাব আর পৌর কর্তৃপক্ষের উধাসহীনতার কারণে এই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে পৌরসভাকে আরো দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান তিনি।

এদিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র নায়ার কবীর জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্যে কাজ চলমান আছে। ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনার কাজ শেষ হলে এ ধরনের জলাবদ্ধতা আর সৃষ্টি হবে না।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম