সাপের বিষের অপর নাম ‘তরল ডায়মন্ড’

ঢাকা, বুধবার   ২৬ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ১২ ১৪২৬,   ২১ শাওয়াল ১৪৪০

সাপের বিষের অপর নাম ‘তরল ডায়মন্ড’

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৩৩ ২ জুন ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সাপ অনেক ভয়ঙ্কর প্রাণীদের মধ্যে একটি। এর কামড়ে মৃত্যুও হয়। কিন্তু আজকাল সাপ চাষ করা হয়ে থাকে। শুধু মাত্র সাপের বিষের জন্য। ভয়ানক এই কাজটি বাংলাদেশেই করা হয়।  

জানেন কি, উচ্চ মূল্যের কারণে সাপের বিষকে তরল ডায়মন্ড বলা হয়। কারণ এক গ্রাম সোনার বর্তমান বাজারদর চার থেকে সাড়ে চার হাজার টাকা সেখানে আন্তর্জাতিক বাজারে আমাদের দেশীয় সাপ থেকে প্রক্রিয়াজাত করা এক গ্রাম ভাইপার রাসেলের বিষের মূল্য প্রায় আড়াই লাখ টাকা। এছাড়া কালাচ বা কালচিতি সাপের বিষের মূল্য তিন থেকে চার লাখ টাকা, খয়া গোখরার ৫০ হাজার টাকা, বিভিন্ন সামুদ্রিক সাপের বিষের মূল্য প্রায় চার থেকে সাড়ে চার লাখ টাকা। বাংলাদেশে ১৬টির অধিক প্রজাতির বিষধর সাপ আছে, যাদের বিষ অত্যন্ত মূল্যবান। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সাপের বিষ এত দামি হওয়ার প্রধান দুটি কারণ হচ্ছে-

১.মানুষের জীবনরক্ষাকারী ওষুধ তৈরি করতে সাপের বিষ ব্যবহার হয়।

২.সাপেকাটা রোগীদের জন্য সাপের বিষ দিয়েই যেমন এন্টিভেনম তৈরি হয় তেমনি ক্যান্সার, হার্টের রোগসহ বিভিন্ন জটিল রোগের জন্য সাপের বিষ ব্যবহার করে তৈরি হয় অনেক দামি ওষুধ।  

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ