সাকিবকে খেলতে জোর করা হয়নি: পাপন

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ১২ ১৪২৬,   ২১ শাওয়াল ১৪৪০

সাকিবকে খেলতে জোর করা হয়নি: পাপন

 প্রকাশিত: ১৬:৫৬ ৯ অক্টোবর ২০১৮   আপডেট: ১৬:৫৬ ৯ অক্টোবর ২০১৮

ছবি সংগৃহীত

ছবি সংগৃহীত

বছরের শুরুতে আঙ্গুলে চোট পাওয়া সাকিব বেশ ঝুঁকি নিয়েই এশিয়া কাপে অংশ নেন। এর ফলে তিন মাস থেকে আট মাস পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে থাকতে হতে পারে এই অলরাউন্ডারকে। সাকিবের বর্তমান এই অবস্থার জন্য দর্শক-সমর্থকরা বোর্ড সভাপতি নাজমূল হাসান পাপনকেই দায়ী করছেন। তবে পাপন জানালেন, এশিয়া কাপে খেলার জন্য সাকিবকে কোনো প্রকার জোর করা হয়নি।

উইন্ডিজ সফর শেষ করে দেশে ফিরে আঙুলের অস্ত্রোপচারের কথা জানিয়েছিলেন সাকিব। কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি চেয়েছিলেন অস্ত্রোপচার এশিয়া কাপের পর হোক। পরে অবশ্য সিদ্ধান্তের ভার সাকিবের উপরই ছেড়ে দেন।শেষ পর্যন্ত সাকিব অস্ত্রোপচার পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন এবং চোট নিয়েই এশিয়া কাপ খেলতে যান।

তবে কি বিসিবি সভাপতির চাওয়া পূরণ করতেই কি খেলেছেন সাকিব?  মঙ্গলবার বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘এশিয়া কাপে খেলার জন্য সাকিবকে জোর করা হয়নি। সে নিজে থেকেই খেলেছে। ডাক্তার এবং ফিজিও সবার পরামর্শ নিয়েই খেলছে। তা ছাড়া এশিয়া কাপ খেলতে গিয়েই এমন হয়েছে তা কিন্তু নয়।’

সাকিবের আঙুলের চোটটা পুরোনো। চলতি বছরের শুরুর দিকে ত্রিদেশিয় সিরিজে আঙুলে চোট পান সাকিব। পরে শ্রীলংকায় অনুষ্ঠিত নিধাহাস ট্রফির শেষ দিকে ফিরেন। দেরাদুনে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজেও অংশ নেন। কিন্তু উইন্ডিজ সফরে ব্যথানাশক ইনজেকশন নিয়ে খেলতে হয়েছে সাকিবকে।

এরপর এশিয়া কাপেও ব্যথানাশক ইনজেকশন ব্যবহার করে খেলতে চেয়েছিলেন সাকিব। ৪টি ম্যাচও খেলেন। কিন্তু পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের দিন দেশে ফিরে আসতে হয়। আঙুলে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় ভর্তি হতে হয় হাসপাতালেও। বর্তমানে চিকিৎসার জন্য অস্ট্রেলিয়ায় রয়েছেন বাংলাদেশ দলের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ