সাকরাইনে উৎসবমুখর পুরান ঢাকা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৪ ১৪২৬,   ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

সাকরাইনে উৎসবমুখর পুরান ঢাকা

ফিচার প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১০:২১ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১০:২৮ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ঢাকার আকাশটাকে কখনো ঘুড়ি, আলো আর আতশবাজিতে ছেয়ে যেতে দেখেছেন? না দেখে থাকলে আজই দেখে নিতে পারেন! কারণ, আজ সাকরাই উৎসব।

আজ ভোর থেকেই পুরান ঢাকার দয়াগঞ্জ, মুরগীটোলা, কাগজিটোলা, গেণ্ডারিয়া, বাংলাবাজার, ধূপখোলা মাঠ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা, শাঁখারী বাজার, সদরঘাট, কোটকাচারী এলাকার অধিবাসীরা দিনব্যাপী মেতে উঠেছেন রং-বেরংয়ের ঘুড়ি উড়ানোর প্রতিযোগিতায়। ভোরবেলা থেকেই ছাদে ছাদে শুরু হয়েছে উন্মাদনা। ছোট-বড় সবার অংশগ্রহণে মুখরিত হয় প্রতিটি ছাদ। 

বেলা যতো বাড়তে থাকবে ততোই বাড়বে জৌলুস। বিকেল পর্যন্ত ঘুড়ি কাটাকাটির খেলা চলার পর সন্ধ্যায় সবাই ব্যস্ত থাকবে ফানুস ওড়ানোর কাজে। সন্ধ্যার ঠিক পরে শুরু হবে আগুন মুখে নিয়ে খেলা৷ আগুন মুখে নিয়ে এ খেলা বিপদ হলেও বেশ ঘটা করেই পালন করা হয়। এছাড়া রঙ-বেরঙের আতশ বাজি তো রয়েছেই!

পুরান ঢাকায় বসেছে অস্থায়ী ঘুড়ির দোকানও

ভোর থেকেই উৎসবের আমেজে দেখা গেল পুরান ঢাকার সবাইকে। পুরনো ঢাকার ঘিঞ্জি গলিগুলোতে এ বছরের পৌষ সংক্রান্তি যা সাকরাইন বা ঘুড়ি উৎসব নামে জনপ্রিয়, ফিরিয়ে নিয়ে এসেছিলো প্রাণ আর উৎসবের আমেজ। এই উৎসব এখন আর শুধু ঘুড়ি উড়ানোতেই সীমাবদ্ধ নেই, এলাকার বিভিন্ন বাসার ছাদগুলোতে দেখা যায় তরুণদের আগুন নিয়ে নানারকম কারসাজি এবং ফানুসের সমাহার। এছাড়া পুরান ঢাকার প্রতিটি বাড়িতেই আয়োজন করা হচ্ছে ঐতিহ্যবাহী খাবারের। 

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সাকরাইন উৎসবেও এসেছে পরিবর্তনের ছোঁয়া। এক সময় পটকার আধিপত্য ছিল। এখন এসেছে আতশবাজির জয়জয়কার। মাইকের জায়গা দখল করে নিয়েছে ডিজে ও সাউন্ড সিস্টেম।

ডেইলিবাংলাদেশ/এনকে