Alexa সবাই যখন উৎসবে তখন তারা চিকিৎসা সেবায়

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৫ ১৪২৬,   ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

সবাই যখন উৎসবে তখন তারা চিকিৎসা সেবায়

সাজেদা সুলতানা ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৩৩ ৯ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ১৯:৪২ ১০ আগস্ট ২০১৯

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

ঈদের ছুটিতে সবাই যখন বাড়ির পথে বা পরিবারের সঙ্গে উৎসবমুখর সময় পার করছেন তখন সরকারের প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের অফিসাররা (সহযোগী হিসেবে কর্মচারীরা) সবাই মাঠ পর্যায়ে প্রাণি চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত। সুস্থ সবল কোরবানির প্রাণির নিশ্চয়তা দিচ্ছেন ভেটেরিনারি পেশাজীবিরা।

গত কয়েক বছর যাবত আমাদের দেশীয় প্রাণির মাধ্যমে কোরবানির চাহিদা পূরণ হচ্ছে। ভারত বা অন্য কোন দেশ হতে প্রাণি আমদানি করতে হচ্ছে না। এটা প্রাণিসম্পদ উন্নয়নের দিক নির্দেশ করে। নিরাপদ প্রাণিজ আমিষ ডিম, দুধ ও মাংস উৎপাদনে ভেটেরিনারিয়ানরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। নিকট ভবিষ্যতে দেশ ডিম, দুধে স্বয়ংসম্পূর্ন হবে ইনশাআল্লাহ।

তবে দুঃখের বিষয় হলো এই সেক্টরে সমস্যা অনেক। প্রধান সমস্যা হলো সরকারি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রচুর ভেট গ্রাজুয়েট বের হলেও সরকারি কর্মসংস্থান বাড়েনি। প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের কাঙ্ক্ষিত  অর্গানোগ্রাম এখনো পর্যন্ত পাশ হয়নি। যার ফলে ভেটেরিনারিয়ানরা তাদের টেকনিক্যাল শিক্ষা যথাযথ কাজে লাগাতে পারছেন না, অনেকেই অন্য প্রফেশনে চলে যাচ্ছেন।

জেলা, উপজেলা পর্যায়ে ভেটেরিনারি পদসংখ্যা বৃদ্ধি ও এই পেশাকে ইমার্জেন্সি সার্ভিস হিসেবে ঘোষণা, ঝুঁকি ভাতা এখন সময়ের দাবি। তাহলেই জাতি নিরাপদ প্রাণিজ পুষ্টির যোগান পাবে ও মেধাবী প্রজন্ম তৈরি হবে। পুরুষ ভেটের পাশাপাশি নারীরা এ পেশায় এগিয়ে এসেছে ও কর্মক্ষেত্রে সফলতার স্বাক্ষর রাখছে।

লেখক: সহকারী অধ্যাপক এবং প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান
প্যাথলজি বিভাগ
শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা-১২০৭।
কার্যকরি সদস্য, বাংলাদেশ ভেটেরিনারী এসোসিয়েশন (বিভিএ)

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ

Best Electronics
Best Electronics