.ঢাকা, রোববার   ২১ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ৭ ১৪২৬,   ১৫ শা'বান ১৪৪০

সত্যিকারের বিরোধী দল হতে চায় জাপা: জি এম কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ২১:১৫ ৯ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ২১:১৫ ৯ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

এরশাদের অবর্তমানে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদে বিরোধী দলীয় উপ-নেতা জি এম কাদের বলেছেন, জাপা সত্যিকারের বিরোধী দল হতে চায়। জাপা সরকারের সঙ্গেও থাকে আবার বিরোধী দলেও থাকে, এটা মানুষ পছন্দ করে না। তাই আমরা সত্যিকারের বিরোধী দলের ভূমিকায় থাকবো। 

বুধবার বিকেলে কাকরাইলে জাপার কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় যুব সংহতি আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

জিএম কদের বলেন, বিরোধী দল মানেই ভাঙচুর, অবরোধ, নৈরাজ্য সৃষ্টি করা নয়। বিরোধী দল সংসদে জনগণের কল্যাণের পক্ষে কথা বলবে। সরকারের ভাল কাজের প্রসংশা করা আর সরকারের দূর্নীতি, দোষ-ত্রুটি তুলে ধরবো। সমাধান না হলে, বিরোধী দলের ভূমিকায় পিছপা হবে না। জনগণের স্বার্থে সোচ্চার থাকবে জাপা। রাজনীতিতে কেউ কারো প্রতিপক্ষ বা শত্রু নয়। 

তিনি বলেন, আমরা বঞ্চিত ও সাধারণ মানুষের পক্ষে কথা বলবো। মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য লড়াই করবো। অচিরেই জনগণের সমর্থন নিয়ে মানুষের কল্যাণে কাজ করবে জাতীয় পার্টি। বাংলাদেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় বিরোধী দলের সত্যিকার ভূমিকা রাখবে জাপা। এ কাজটি সঠিকভাবে করতে পারলে, জাপা অচিরেই সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী হবে। আমরা উন্নয়ন ও সুশাসনের কথা জাতি ও নতুন প্রজন্মকে জানাবো। 

জাতীয় যুব সংহতির সভাপতি আলমগীর সিকদার লোটনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ফকরুল আহসান শাহজাদার উপস্থাপনায় এতে আরো বক্তব্য রাখেন- পার্টির মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চীফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা, প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপিকা মাসুদা এম রশিদ চৌধুরী, যুবনেতা- আহাদ ইউ চৌধুরী শাহিন, যুব সংহতি উত্তরের সভাপতি মঞ্জুরুল হক, দক্ষিণের সভাপতি মো. দ্বীন ইসলাম শেখ, মো. শফিকুল ইসলাম দুলাল, আলমগীর কবির।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান- অধ্যাপক আবুল হোসেন, সরদার শাহজাহান, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য মনিরুল ইসলাম মিলন, মো. ইসহাক ভুইয়া, নির্মল চন্দ্র দাস, সুলতান মাহমুদ, খোরশেদ আলম খুশু, এম এ রাজ্জাক খান, মো. হুমায়ুন খান, সৈয়দা পারভীন তারেক, মাহমুদ আলম, আজহারুল ইসলাম সরকার, মিনি খান, যুবনেতা- আবু সাদেক বাদল, শহিদুল ইসলাম সেন্টু, মোতাহার হোসেন চৌধুরী, হাসিবুল ইসলাম জয়, আব্দুস সালাম, নাছিল উদ্দিন বাদল, এসএম ইকবাল, স্বপনীল জারা, সৈয়দ আনোয়ার হোসেন তোতা, মো. সোলায়মান সামি, মো. আরিফুল ইসলাম রুবেল, কাজী দ্বীন মোহাম্মদ, মোহাম্মদ উল্লাহ, নয়ন পাল, সামশেদ তাবরেজ, আব্দুন নুর বড় ভুইয়া, লায়লা আক্তার প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসরা/এমআরকে/এলকে