শ্রীলংকায় সব ক্যাথলিক গির্জা বন্ধের নির্দেশ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৮ ১৪২৬,   ১৭ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

শ্রীলংকায় সব ক্যাথলিক গির্জা বন্ধের নির্দেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৪১ ২৫ এপ্রিল ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ইস্টার সানডের অনুষ্ঠানে ভয়াবহ সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় নিরাপত্তা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত শ্রীলংকায় সব ক্যাথলিক গির্জা বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার নৃশংসতম এ হামলার পরিপ্রেক্ষিতে এমন ঘোষণা দেন দেশটির একজন জ্যেষ্ঠ ধর্মযাজক।

দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে পরামর্শ করেই এমন ঘোষণা দেয়া হয়েছে জানিয়ে ওই ধর্মযাজক বলেন, পরিস্থিতি শান্তিপূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত এ ঘোষণা বলবৎ থাকবে। এই সময়ের মধ্যে শ্রীলংকায় ক্যাথলিক গির্জাগুলোতে কোনো ধরনের জমায়েত করা যাবে না।

এদিকে শ্রীলংকার সব গির্জায় এরইমধ্যে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। 

এ হামলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্ব নিয়ে বিতর্ক ও প্রশ্নের মুখে দেশটির পুলিশ প্রধান (আইজিপি) পুজিথ জয়াসুন্দর ও প্রতিরক্ষা সচিব হেমাসিরি ফার্নান্দোকে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা। 

এরআগে গত মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে শ্রীলংকার পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর নেতৃত্বে পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়ে প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা বলেছিলেন, হামলার বিষয়ে সতর্কবার্তা পাওয়ার পর নিরাপত্তা কর্মকর্তারা সেটি আমাকে অবগত করেনি। আমরা আর নমনীয় থাকবো না, এবার কঠোর পদক্ষেপ নেব।

গত মঙ্গলবার ভয়াবহ ওই সিরিজ বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। হামলাকারীদের নাম ও ছবি প্রকাশ করেছে আইএসের মুখপত্র ‘আমাক’।

ওইদিনই শ্রীলংকার পার্লামেন্টে এক অধিবেশনে দেয়া ভাষণে দেশটির প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী রুয়ান বিজেবর্ধনে দাবি করেন, নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলার প্রতিশোধ নিতেই শ্রীলংকায় ইস্টার সানডের অনুষ্ঠানে সিরিজ বোমা হামলা চালানো হয়েছে।

এর একদিন পরই বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিজেবর্ধনে জানান, ওই হামলায় ৯ জন আত্মঘাতী অংশ নিয়েছিল। যেখানে এক নারীও ছিল। হামলাকারীদের মধ্যে ৮ মুখোশধারীকে শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

গত রোববার সকাল পৌনে ৯টার দিকে শ্রীলংকার তিনটি গির্জা, তিনটি বিলাসবহুল হোটেল ও দুটি স্থাপনায় সংঘবদ্ধ সিরিজ বোমা হামলায় অন্তত ৩৫৯ জনের প্রাণহানি হয়। আহত হন আরো অন্তত ৫ শতাধিক লোক। নিহতদের মধ্যে দুই বাংলাদেশিসহ অন্তত ৩৮ জন বিদেশি নাগরিক রয়েছেন।

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত সন্দেহভাজন ৬০ জনকে আটক করেছে শ্রীলংকার পুলিশ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই

Best Electronics