ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ৯ ১৪২৫,   ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪০

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে চিটাগংয়ের জয়

স্পোর্টস ডেস্ক :: sports-desk

 প্রকাশিত: ২২:৩৪ ২১ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ২২:৩৪ ২১ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে জয় পেল চিটাগং ভাইকিংস। দলের জয়ের নায়ক রবি ফ্রাঙ্কলিংক। শেষ ওভারে তিনটি ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে জয় উপহার দেন চিটাগংয়ের এই দক্ষিণ আফ্রিকান অলরাউন্ডার।

১৪০ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে জয়ের জন্য শেষ ১২ বলে চিটাগংয়ের প্রয়োজন ছিল ২১ রান। ১৯তম ওভারে রুবেল হোসেন মাত্র ৫ রান খরচ করে দুর্দান্ত খেলতে থাকা মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে রান আউটের ফাঁদে ফেলেন। ৩৩ রান করে সৈকতের বিদায়ের পর সানজামুল ইসলামকে সঙ্গে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান রবি ফ্রাঙ্কলিংক।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য চিটাগংয়ের প্রয়োজন ছিল ১৬ রান। স্থানীয় ক্রিকেটার মোহর শেখের করা প্রথম বলে সিঙ্গেল নিয়ে ফ্রাঙ্কলিংকে স্টাকে পাঠান সানজামুল। দ্বিতীয় বলে ছক্কা হাঁকিয়ে জয়ের স্বপ্ন দেখান ফ্রাঙ্কলিংক। পরের বলে নেন ডাবল।

শেষ তিন বলে প্রয়োজন ৭ রান। চতুর্থ ও পঞ্চম বলে পরপর দুটি ছক্কা হাঁকিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন ফ্রাঙ্কলিংক।

এর আগে খুলনা টাইটানসের বিপক্ষে নাটকীয় ম্যাচে এই ফ্রাঙ্কলিংকের পারফরম্যান্সে ভর করে সুপার ওভারে জয় পায় চিটাগং।

এই জয়ের ফলে ৬ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় অবস্থানে চিটাগং। সাত ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে ঢাকা।

সোমবার মিরপুরে প্রথমে ব্যাটিং করে ৯ উইকেটে ১৩৯ রান করে ঢাকা ডায়নামাইটস। টার্গেট তাড়া করতে নেমে এক বল হাতে রেখে ৩ উইকেটে জয় নিশ্চিত করে চিটাগং ভাইকিংস।

ঢাকার বিপক্ষে ১৪০ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমেই ইনিংসের দ্বিতীয় বলে উইকেট হারায় চিটাগং ভাইকিংস। আন্দ্রে রাসেলের বলে শুভাগত হোমের দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত হন চিটাগংয়ের আফগান তারকা ওপেনার মোহাম্মদ শেহজাদ।

এরপর শুরু হয় সাকিব আল হাসানের ঘূর্ণি বলের তাণ্ডব। ইনিংসের চতুর্থ ওভারে বোলিংয়ে এসেই ক্যামেরন ডেলপোর্টের উইকেট তুলে নেন সাকিব। মাত্র ১২ বলে ৩০ রান করে ফেরেন ডেলপোর্ট।

নিজের দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে ইয়াসির আলীকে ফেরান সাকিব। সাজঘরে ফেরার আগে ১৫ রান করেন ইয়াসির। এর আগের ম্যাচে ৫৪ রান করেন চিটাগংয়ের এই লোকাল ক্রিকেটার।

নিজের তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে সাকিব ফেরান দাসুন শানাকাকে। ৬৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে যায় চিটাগং ভাইকিংস।

৬৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়া দলকে খেলায় ফেরাতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। পঞ্চম উইকেটে ৩২ রানের জুটি গড়তেই বিপদে পড়ে যান মুশফিক। আগের তিন ম্যাচে ৩৪, ৭৫ ও ৫২ রান করা চিটাগংয়ের এই অধিনায়ক সোমবার ফেরেন ২৩ বলে ২২ রান করে।

মুশফিকের বিদায়ের পর বাড়তি দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেন মোসাদ্দেক। ষষ্ঠ উইকেটে সৈকতের সঙ্গে ১৯ রানের জুটি গড়ে ফেরেন নাঈম হাসান।

বিপিএলের ২৪তম ম্যাচে চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ১৩৯ রানেই গুটিয়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটস। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৪ রান করেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ইনিংসের শেষ দিকে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৫ বলে ২৮ রান করেন শুভাগত হোম চৌধুরী।

সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে আবু জায়েদ রাহী, ক্যামেরন ডেলপোর্ট ও রবি ফ্রাঙ্কলিংকের বোলিংয়ের সামনে ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৩৯ রানের বেশি করতে পারেনি তারকা নির্ভর দল ঢাকা ডায়নামাইটস।

ইনিংসের প্রথম ওভারে বোলিংয়ে এসেই রনি তালুকদারকে বোল্ড করেন ফ্রাঙ্কলিংক। শূন্য রানে ফেরেন রনি। নিজের দ্বিতীয় ওভারে অন্য ওপেনার সুনীল নারিনকে ১৮ রানে ফেরান ফাঙ্কলিংক।

রবি ফ্রাঙ্কলিংকের পর আবু জায়েদ রাহীর আঘাত। চিটাগং ভাইকিংসের এই দুই পেসারের গতির মুখে পড়ে ৫৬ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা ঢাকা ডায়নামাইটস।

ইনিংসের নবম ওভারে বোলিংয়ে এসেই ডায়নামাইটসের দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার হিনো খান ও আফগানিস্তানের দারিশ রাসুলিকে ফেরান রাহী।

ঢাকার হয়ে প্রথম ম্যাচে খেলতে নেমে ১৮ রানে ফেরেন হিনো খান। অন্যদিকে শূন্য রানে ফেরেন রাসুলি। এর আগে সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে ১৯ রান করেন এই আফগান।

৫৬ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়া ঢাকা ডায়নামাইটসকে খেলায় ফেরাতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেন সাকিব আল হাসান ও নুরুল হাসান সোহান। পঞ্চম উইকেটে তাড়া ৩৯ রান যোগ করেন।

এরপর মাত্র ৫ রানের ব্যবধানে নেই সাকিব আল হাসান, নুরুল হাসান সোহান ও আন্দ্রে রাসেলের উইকেট।

ইনিংসের ১৫তম ওভারে ক্যামেরন ডেলপোর্টের বলে ইয়াসির আলীর হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন সাকিব আল হাসান। তার আগে ৩৪ বলে ৩৪ রান করেন সাকিব। ডেলপোর্টের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হওয়ার আগে ১৮ বলে ২৭ রান করেন সোহান।

এরপর সাত নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে খালিদ আহমেদের শিকার হওয়ার আগে মাত্র ১ রান করার সুযোগ পান ঢাকা ডায়নামাইটসের ক্যারিবীয় হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান আন্দ্রে রাসেল।

ইনিংসের শেষ দিকে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন শুভাগত হোম। মাত্র ১৫ বলে তিন চার ও এক ছক্কায় ২৮ রান করে শেষ বলে রান আউট হন এই অলরাউন্ডার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ঢাকা ডায়নামাইটস: ২০ ওভারে ১৩৯/৯ (সাকিব ৩৪, শুভাগত ২৭, সোহান ২৭; ডেলপোর্ট ৩/২৫, রাহী ২/২৬, ফ্রাঙ্কলিংক ২/১৯)।

চিটাগং ভাইকিংস: ১৯.৫ ওভারে ১৪৫/৭ (মোসাদ্দেক, ডেলপোর্ট ৩০, মুশফিক ২২, ফ্রাঙ্কলিংক ২২*; সাকিব ৪/১৬)।

ফল: চিটাগং ভাইকিংস ৩ উইকেটে জয়ী।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএ