শোলাকিয়ায় হামলা মামলার চার্জশিট

.ঢাকা, শুক্রবার   ২৬ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ১৩ ১৪২৬,   ২০ শা'বান ১৪৪০

শোলাকিয়ায় হামলা মামলার চার্জশিট

 প্রকাশিত: ২১:২৯ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ২১:৩৪ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

শোলাকিয়া

শোলাকিয়া

কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় আলোচিত জঙ্গি হামলা মামলায় পাঁচজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দিয়েছে পুলিশ। 

বুধবার বিকেলে জেলার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. হাবিবুল্লার আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো. আরিফুর রহমান এ চার্জশিট দাখিল করেন। 

আসামিরা হলেন- কিশোরগঞ্জ শহরের তারাপাশা এলাকার জাহিদুল হক তানিম, গাইবান্ধার রাঘবপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, চাঁপাইনবাবগঞ্জের হাজারদিঘা গ্রামের মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান, গাইবান্ধার পান্থাপাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেন ও কুষ্টিয়ার সাদিপুর কাবলিপাড়া গ্রামের আব্দুস সবুর খান হাসান ওরফে সোহেল মাহফুজ।

চার্জশিটে জঙ্গি হামলার পরিকল্পনাকারীদের, অর্থ যোগানদাতাদের, অস্ত্র সরবরাহকারীদের ও সহযোগীদের কথা বিস্তারিত উঠে এসেছে। 

জানা গেছে, এ মামলার মোট আসামি ২৪ জন। এর মধ্যে ১৯ জন হামলা চলাকালে ও পরবর্তীতে বিভিন্ন সময় পুলিশ-র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মারা যায়। তাই এদের অব্যাহতি দিয়ে জীবিত পাঁচজনকে মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি করা হয়। বর্তমানে তারা কারাগারে রয়েছেন।   

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৭ জুলাই ঈদুল ফিতরের দিন সকাল পৌনে ৯টার দিকে শোলাকিয়া ঈদগাহের কাছে পুলিশের একটি নিরাপত্তা চৌকিতে অতর্কিত হামলা চালায় অস্ত্রধারী জঙ্গিরা। প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে জঙ্গিদের সঙ্গে পুলিশের বন্দুকযুদ্ধ হয়।  ঘটনাস্থলে নিহত হয় আবির রহমান নামের এক জঙ্গি। আটক করা হয় শফিউল ইসলাম ডন নামের এক জঙ্গিকে। পরে সেও মারা যায় র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে। ঘটনার সময় নিজের ঘরে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন গৃহবধূ ঝর্ণা ভৌমিক। এ সময় জঙ্গিরা পুলিশের দুই কনস্টেবল জহিরুল ইসলাম ও আনসারুল হককে জবাই করে হত্যা করে। 

পরে ১০ জুলাই নিরাপত্তা চৌকির দায়িত্ব পালনকারী পাকুন্দিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. সামসুদ্দীন বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ মডেল থানায় সন্ত্রাস দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। আটক জাহিদুল হক তানিম ও শীর্ষ জঙ্গি শফিউল ইসলাম ডনসহ অজ্ঞাতনামা জঙ্গিদের এ মামলার আসামি করা হয়। 

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/আরআই