শুধু নির্বাচনের সময় দেখা যায় বিএনপি নেতাদের

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৬ জুলাই ২০২০,   শ্রাবণ ১ ১৪২৭,   ২৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

শুধু নির্বাচনের সময় দেখা যায় বিএনপি নেতাদের

দিনাজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৩৮ ৩ জুন ২০২০   আপডেট: ১৫:৪৮ ৩ জুন ২০২০

গ্রাফিক্স: ডেইলি বাংলাদেশ

গ্রাফিক্স: ডেইলি বাংলাদেশ

দিনাজপুরে দীর্ঘ দিন ধরে মূল কমিটি না থাকায় অর্ধ ডজন গ্রুপে বিভক্ত দিনাজপুর বিএনপি। সাংগঠনিক কোনো কার্যক্রম না থাকায় দলটির জেলা কার্যালয়ে ঘাস গজিয়েছে। এদিকে করোনা পরিস্থিতিতেও দলটির নেতাকর্মীদের কোনো সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না।

স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নির্বাচন আসলে ভোটের জন্য জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা বেশ সরব ভূমিকা পালন করে কিন্তু এরপর শীর্ষ নেতৃবৃন্দ উধাও হয়ে যায়। এমনকি দলীয় কর্মীদেরও কোনো খোঁজ রাখেন না তারা। এখন জেলার বিএনপির সুবিধাভোগী নেতার সংখ্যা দিনদিন বাড়ছে। জনগণের পাশে দাঁড়ানোর নেতার সংখ্যা কমছে। ফলে করোনা পরিস্থিতিতে অস্বচ্ছল কর্মীদেরও পাশে থাকছেন না দলীয় নেতারা।

চার বছর আগে দিনাজপুর- ৫ (পার্বতীপুর ফুলবাড়ী )  আসনের বিএনপি প্রার্থী এজেডএম রেজওয়ানুল হককে আহবায়ক করে জেলা কমিটি গঠন করা হয়। এই আহবায়ক কমিটি তিনমাস মেয়াদের হলেও বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে চার বছর পার করছে। তারপরও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না নেতাদের।

জেলা বিএনপির আহবায়ক এজেএম রেজওয়ানুল হক দুই বছর আহবায়কের দায়িত্ব পালন করে নিজের অসুস্থার কারণে দেখিয়ে সাবেক এমপি রেজিনা ইসলামকে ভারপ্রাপ্ত আহবায়কের দায়িত্ব প্রদান করেন। এখন রেজিনা ইসলাম জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দিনাজপুর সদর আসনে মনোনয়ন নিয়ে দুই প্রার্থীর মধ্যে স্নায়ু যুদ্ধ এখনো বিরাজমান।

দিনাজপুর জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক রেজিনা ইসলাম বলেন, জেলা বিএনপির অধীনে প্রায় ২২টি ইউনিট। এই ২২টি ইউনিটের সঠিক সময়ের মধ্যে কাউন্সিল বিভিন্ন কারণে হয়নি। তাই জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা যায়নি।

তিনি আরো বলেন, দলে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থাকবেই। স্বল্প সময়ের মধ্যে জেলা বিএপির কমিটি গঠন করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এস