শিশু আমিনার পাশে দাঁড়াল জাগো বাংলা ইয়ুথ সোসাইটি

ঢাকা, বুধবার   ২৬ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ১৪ ১৪২৬,   ২১ শাওয়াল ১৪৪০

শিশু আমিনার পাশে দাঁড়াল জাগো বাংলা ইয়ুথ সোসাইটি

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ২০:০৯ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ২০:০৯ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

নতুন ক্লাসে উঠলেও নতুন পোশাক ছিলো না শিশু আমিনা আক্তারের। চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী আমিনা প্রতিদিন স্কুলে যেত পুরাতন আর ছেড়া পোশাক পড়ে।

অথচ আর দশজন শিশুর মতোই নতুন ক্লাসে নতুন পোশাক পড়ে যাওয়ার স্বপ্ন ছিলো তার মধ্যেও। দরিদ্র আমিনার সেই স্বপ্ন পুরণে পাশে দাঁড়ালো সামাজিক সংগঠন জাগো বাংলা ইয়ুথ সোসাইটি। নতুন স্কুলড্রেস, জুতা, সারা বছরের খাতা-কলম আর শীতবস্ত্র দিলো সংগঠনটি।

রোববার দুপুরে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার ‍কুস্তা গ্রামে সংগঠনের নেতারা আমিনার হাতে এ পোশাক, খাতা-কলম ও কম্বল তুলে দেন। এসময় ইউপি চেয়ারম্যান অহিদুল ইসলাম টুটুল আমেনার দাদি হাজেরা বেগমকে একটি বয়স্কভাতার কার্ড করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

এসময় ঘিওর সদর ইউপির চেয়ারম্যান মো.অহিদুল ইসলাম (টুটুল),জাগো বাংলা ইয়ুথ সোসাইটির সভাপতি সাংবাদিক বি.এম খোরশেদ,সহসভাপতি তাসলিমা আক্তার, সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন মনো, কোষাদক্ষ রফিকুল ইসলাম,মো.আজিজুল,আবুল হাসান উপস্থিত ছিলেন।

ঘিওর উপজেলার কুস্তা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আমিনা আক্তার। জন্মের পর বাবার মুখও দেখতে পায়নি সে।বাবা নিখোঁজ ১১ বছর ধরে। মাকে অন্যত্র বিয়ে দিয়েছেন স্বজনরা। এর পর থেকেই বাবা-মায়ের আদর বঞ্চিত আমিনা দাদি হাজেরা বেগমের কাছেই থাকেন। হাজেরা বেগমের বাড়ি-ঘর নদী গর্ভে বিলীন যাওয়ার পর নাতনিকে নিয়ে থাকেন অন্যের জমিতে। অন্যের বাড়িতে কাজ করে সংসার চালান তিনি। খেয়ে না খেয়ে দিন কাটে দাদি-নাতনির।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ