শিমে হিমশিম

ঢাকা, বুধবার   ২৬ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ১৪ ১৪২৬,   ২১ শাওয়াল ১৪৪০

শিমে হিমশিম

সিলেট প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ০২:৫৮ ৯ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ০৩:০৫ ৯ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

শিমের রাজ্য হিসেবে পরিচিত সিলেটের গোলাপগঞ্জ। উপজেলার লক্ষণাবন্দ, লক্ষ্মীপাশা ইউপিতে এ বছর শিমের বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে দাম প্রায় অর্ধেক হওয়ায় হাসি নেই কৃষকের মুখে। ১৮-২০ টাকা কেজির শিম নেমে এসেছে ৮-১০টাকায়। মূলধন তুলতেই হিমশিম খাচ্ছেন পাইকাররা।

এ বছর ৯১০ হেক্টর জমিতে শিম উৎপাদন হয়েছে। আবাদি জমির পাশাপাশি পতিত জমি, বাড়ির ছাদ, আঙিনা, সড়কের পাশেও মাচা বানিয়ে শিম চাষ করেছেন লক্ষণাবন্দ, লক্ষ্মীপাশার কৃষকরা।

গোলাপগঞ্জের অধিকাংশ পরিবার বাণিজ্যিকভাবে শিমের চাষ করে। নিজেদের চাহিদা মিটিয়ে সিলেটের পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন প্রান্তে রফতানি করেন চাষিরা। তবে গতবারের তুলনায় এবার দাম কম হওয়ায় অনেকটা বিপাকে পড়েছেন তারা। মুলধন হারানোর শঙ্কা রয়েছে অনেকের।

লক্ষ্মীপাশা ইউপির শিম চাষি শরিফ মিয়া  বলেন, গত বছরের তুলনায় এবার খরচ বেড়েছে। সে তুলনায় দাম একেবারে কম। গত বছর এই সময়ে প্রতি কেজি শিম ২০-৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। কিন্তু এ বছর ৮-১০ টাকার বেশি উঠছে না।

লক্ষণাবন্দ ইউপির পুরকায়স্থ বাজারের পাইকারি শিম বিক্রেতা হাছিব মিয়া বলেন, এখান থেকে পাইকারি বিক্রি করে তেমন লাভ নেই। তারচেয়ে বাইরে নিয়ে খুচরা বিক্রিতে লাভ আছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা খায়রুল আমিন বলেন, শিম উৎপাদন এ বছর লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। এবার শিমের বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষকদের সুবিধার্থে কৃষি বিপনন অধিদফতরের আর্থিক সহায়তায় পুকায়স্থ বাজারে প্রা আধুনিক মার্কেট তৈরি হচ্ছে। মার্কেটটি চালু হলে কৃষকরা শিম সংরক্ষণসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা পাবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর