শাশুড়ি হত্যাকারী সেই কনস্টেবল আটক

ঢাকা, সোমবার   ১৭ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৫ ১৪২৬,   ১২ শাওয়াল ১৪৪০

শাশুড়ি হত্যাকারী সেই কনস্টেবল আটক

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৪:২৯ ১৩ জুন ২০১৯   আপডেট: ০৪:৩৬ ১৩ জুন ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় শাশুড়িকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা সিআইডি কনস্টেবল অসীম ভট্টাচার্যকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার বিকেল চুয়াডাঙ্গা-আলমডাঙ্গা সড়কের ছাগলফার্ম এলাকায় দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশরা তাকে আটক করেন। গ্রেফতার অসীম ভট্টাচার্য খুলনার দৌলতপুরের দুলাল ভট্টাচার্যের ছেলে। তিনি চুয়াডাঙ্গা সিআইডি বিভাগে কর্মরত রয়েছেন।

ট্রাফিক সার্জেন্ট মৃত্যুঞ্জয় বিশ্বাস জানান, গাড়ি থামিয়ে কাগজ দেখতে চাইলে নিজেকে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয় দিয়ে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন এক ব্যক্তি। পরে তার মুখের গামছা সরালে শাশুড়ি হত্যাকারী পলাতক সিআইডি কনস্টেবল অসীম বলে নিশ্চিত হই। এ সময় তাকে আটকের চেষ্টা করলে সে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। প্রায় দেড় কিলোমিটার ধাওয়া করার পর আমরা তাকে আটক করি। এ সময় অসীম ধারালো চাকু দিয়ে এক কনস্টেবলকে আঘাত করার চেষ্টা করেন।

তিনি আরো বলেন, আটকের পর অসীম ভট্টাচার্য অসুস্থ হলে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা হাসপাতালে যান।

এদিকে, অসীমকে আটক করায় দায়িত্বরত ট্রাফিক সদস্যদের নগদ অর্থ পুরস্কার দেয়া হয়েছে।

শনিবার ভোরে পারিবারিক বিরোধের জেরে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার মাদরাসা পাড়ার ভাড়াটিয়া বাসাতে শাশুড়ি শেফালী অধিকারীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে অসীম । একই সঙ্গে স্ত্রী ফালগুনী অধিকারী ও শ্যালক আনন্দ অধিকারীকেও হত্যার উদ্দেশ্যে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে আহত করে। পরে তাদের দুই জনকে উদ্ধার করে প্রথমে কুষ্টিয়া আড়াইশ বেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাদের রাজশাহী মেডিকেলে পাঠানো হয়। ঘটনার পর থেকেই লাপাত্তা ছিলেন অভিযুক্ত অসীম ভট্টাচার্য। অবশেষে ঘটনার ৫ দিন পর আটক হলে অসীম।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ