শহরে রূপ নিচ্ছে দেশের প্রতিটি গ্রাম: বাণিজ্যমন্ত্রী

.ঢাকা, বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ১০ ১৪২৬,   ১৮ শা'বান ১৪৪০

শহরে রূপ নিচ্ছে দেশের প্রতিটি গ্রাম: বাণিজ্যমন্ত্রী

 প্রকাশিত: ২১:৩১ ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ২১:৪৩ ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বর্তমান সরকারের আমলে দেশের সার্বিক চিত্রই পাল্টে গেছে। প্রতিটি গ্রাম এখন শহরে রূপ নিতে শুরু করেছে। গ্রামীণ অর্থনীতি এখন যে কোন সময়ের চেয়ে চাঙ্গা। তাই একদিন আমরাও বাণিজ্য ঘাটতি পূরণ করতে পারবো।২০৪১ সালের মধ্যে আমাদের রফতানি একশ’ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে।

সোমবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে সরকার দলীয় সদস্য সামশুল আলম চৌধুরীর সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

রফতানির তুলনায় আমদানি তিনগুণ বেশি এমন দাবি নাকচ করে দিয়ে তোফায়েল আহমেদ বলেন, কথাটি সত্য নয়। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে দেশের আমদানির পরিমাণ ছিল ৫৮ দশমিক ৩৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং রফতানির পরিমাণ ছিল ৩৬ দশমিক ৬৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ওই অর্থবছরে আমদানিতে রফতানির অবদান ছিল ৬৯ দশমিক ২৫ ভাগ।

মন্ত্রী জানান, বাণিজ্য ঘাটতি বৃদ্ধি পাওয়ায় বেশ কিছু কারণ রয়েছে। যদিও দীর্ঘ মেয়াদে বাণিজ্য ঘাটতি উল্লেখযোগ্য পরিমাণ হ্রাস করার জন্য সরকার এরইমধ্যে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। গেল বছর বন্যায় বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ায় উৎপাদন ঘাটতি পূরণে বিপুল পরিমাণ খাদ্যশস্য আমদানির ব্যয় উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়া রফতানিমুখী শিল্পের কাঁচামাল ও যন্ত্রপাতি আমদানির কারণে এই খাতে ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে।

সংসদ সদস্য নবী নেওয়াজের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এলাকা দুই দেশের পণ্যে বিক্রির উদ্যোগ হিসেবে বর্ডার হাট বসানো হয়। সরকার আরও কয়েকটি জায়গায় বর্ডার হাট বসানোর পরিকল্পনা গ্রহণ করছে। আর বর্ডার হাট বসানো একটি ভাল সিদ্ধান্ত ছিল।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর