লক্ষ্মীপুরে বাসে বাড়তি ভাড়া আদায়

ঢাকা, বুধবার   ১৯ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৫ ১৪২৬,   ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

লক্ষ্মীপুরে বাসে বাড়তি ভাড়া আদায়

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:০৭ ১১ জুন ২০১৯   আপডেট: ১৫:১০ ১১ জুন ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

লক্ষ্মীপুরে ঈদ উল ফিতরকে ঘিরে বাড়ানো বাসের ভাড়া এখনো কমেনি। এতে বিড়ম্বনায় পড়েছেন কর্মস্থলে ফেরত যাত্রী ও বিভিন্ন জেলায় যাতায়াতকারী ব্যবসায়ীরা।

জেলা থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম চলাচলকারী সব বাসে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে। এর মধ্যে ইকোনো বাস সার্ভিস, ঢাকা এক্সপ্রেস বাস সার্ভিস, জোনাকী বাস সার্ভিস নির্ধারিত ভাড়া থেকে ১৫০ টাকা বাড়তি ভাড়া নিচ্ছে। এছাড়া মিয়ামি এসি বাস সার্ভিসের নির্ধারিত ভাড়া ৫০০ টাকা হলেও নেয়া হচ্ছে ৮৫০ টাকা, রয়েল এসি বাস সার্ভিসের নির্ধারিত ভাড়া ৫০০ টাকা হলেও ৮৫০ টাকা নিতে দেখা গেছে।
 
এদিকে, চট্টগ্রামগামী শাহী সার্ভিসের নির্ধারিত ভাড়া ৩০০ টাকা হলেও নেয়া হচ্ছে ৪৫০ টাকা, জোনাকী সার্ভিসের নির্ধারিত ভাড়া ৩০০ টাকা হলেও নেয়া হচ্ছে ৪৫০ টাকা। পাশাপাশি লক্ষ্মীপুর থেকে কুমিল্লা ও ফেনীসহ জেলার প্রায় সব রোডে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে পরিবহন শ্রমিকরা।
 
ইকোনো বাসের যাত্রী ব্যবসায়ী পারভেজ বলেন, ইকোনো বাসে করে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করি। অন্য সময় বাস ভাড়া ছিল ৪০০ টাকা। কিন্তু ঈদে ৫৫০ টাকা করে ভাড়া আদায় করছে । এই অস্বাভাবিক ভাড়া বাড়ানো রোধে আইনের প্রয়োগ প্রয়োজন।

রয়েল কোচের যাত্রী শিক্ষার্থী এনামুল হক বলেন, ঈদে আসা-যাওয়া সময় অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে। নির্ধারিত বাস ভাড়ার অতিরিক্ত টাকা দেয়াটা কষ্টকর। এ পরিস্থিতি রোধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

লক্ষ্মীপুর জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি নূরনবী চৌধুরী জানান, ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়টি তার জানা নেই। সরকার ভাড়া বৃদ্ধি করতে নিষেধ করেছে। তাদের পক্ষ থেকেও ভাড়া বাড়াতে নিষেধ করা হয়েছে।

লক্ষ্মীপুরের ডিসি অঞ্জন চন্দ্র পাল ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, ঈদে ভাড়া না বাড়াতে মালিক ও শ্রমিক সমিতিকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এর পরেও ভাড়া বাড়িয়ে যাত্রী হয়রানি করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ