লকডাউনের পরও হিলিতে পণ্য রফতানি, আতঙ্কে স্থানীয়রা 

ঢাকা, রোববার   ১৮ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৫ ১৪২৮,   ০৫ রমজান ১৪৪২

লকডাউনের পরও হিলিতে পণ্য রফতানি, আতঙ্কে স্থানীয়রা 

হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:০১ ২৬ মার্চ ২০২০   আপডেট: ১৩:২২ ২৬ মার্চ ২০২০

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ভারত সরকার লকডাউন ঘোষণা করলেও ভারতীয় ব্যবসায়ীরা তাদের সরকারকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে পণ্য রফতানি করেছেন। আকস্মিকভাবে পণ্য রফতানি করায় হিলি বন্দরে করোনা আতঙ্ক বিরাজ করছে।

হিলি কাস্টমস সিএনএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সহ সভাপতি আব্দুল আজিজ জানান, ভারত হিলি এক্সপোর্টার অ্যান্ড ক্লিয়ারিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জিত মজুমদার মঙ্গলবার বিকেলে আকস্মিকভাবে পণ্যবাহী ট্রাক প্রবেশ করানো হবে মর্মে পত্র প্রেরণ করেন তার পত্রের প্রেক্ষিতে সন্ধ্যা পর্যন্ত ৫৯টি বিভিন্ন পণ্যবাহী ট্রাক হিলি বন্দর দিয়ে দেশে প্রবেশ করানো হয়েছে।

হাকিমপুরের ইউএনও বলেন, ভারত লকডাউন ঘোষণা করায় বন্দরের আমদানি রফতানি বন্ধ ছিল। বন্দরের দোকানপাট বন্ধের পরও ভারতীয় ট্রাক প্রবেশের ব্যাপারে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এদিকে পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে হিলি বন্দরে দোকানপাট বন্ধ থাকলেও ভারতীয় পণ্যবাহী ট্রাক প্রবেশ করায় ঝুঁকির মধ্যে পড়ছে হিলি বন্দর। তিনি হিলি বন্দরকে লকডাউন করার দাবি করেন।

হিলি বন্দরের কয়েকজন ব্যবসায়ী দাবি করেন, ভারতীয়রা তাদের সরকারের লকডাউন আইন অমান্য করে পণ্য প্রবেশের মাধ্যমে বন্দরে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে দিতে পারে। তাই তারা হিলি বন্দরের আমদানি রফতানিসহ পাসপোর্ট যাত্রী পারাপার বন্ধ ঘোষণার দাবি করেন।

এদিকে ভারতীয় পণ্যবাহী ট্রাক চালক ও হেলপাররা হিলি পানামা পোর্ট অভ্যন্তরে এখন পর্যন্ত অবস্থান করছে। এতে ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে হিলিবাসী। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ