Alexa রোস্ট রান্নার সহজ উপায়

ঢাকা, শনিবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৬ ১৪২৬,   ২১ মুহররম ১৪৪১

Akash

রোস্ট রান্নার সহজ উপায়

 প্রকাশিত: ০৯:০৭ ১ জুলাই ২০১৮   আপডেট: ০৯:০৮ ১ জুলাই ২০১৮

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

রোস্ট আমরা সবাই কম বেশি খেয়েছি। তা বিয়ে বাড়িতে হোক বা অন্য কোথাও। কিন্তু অনেকেই মনে করে রোস্ট রান্না অনেক ঝামেলা। তাই আপনারা সহজে বাড়িতে রোস্ট রান্না করেন না। আবার অনেকে রোস্ট কিভাবে রান্না করবেন তার সঠিক রেসিপি জানেন না। রোস্টর জন্য কিন্তু যে কোন মুরগি নেয়া যায়। দেশি মুরগি, পাকিস্তানি মুরগি বা বয়লার মুরগি। পাকিস্তানি মুরগি দিয়ে রোস্ট করলে বেশি ভাজতে হয় না কিন্তু বয়লার মুরগি দিয়ে রোস্ট করলে অনেক ভাজতে হয়। কারণ বয়লার মুরগিতে মাংসের পরিমাণ বেশি থাকে। আপনি চাইলে মুরগির মাংসটা চিরে দিতে পারেন আবার না চিরেও করতে পারেন।

আপনি দেড় কেজির একটি মুরগি নিয়ে ৪ টুকরা করে নিতে পারেন বা এর থেকে বেশিও করতে পারেন। মুরগি কেটে ভাল করে ধুয়ে নিবেন। এরপর এটাতে লবন মাখিয়ে রেখে দিবেন। যাতে লবনটা ভিতর পর্যন্ত যায়। রোস্টের ভেজাল একটাই যে এতে বিভিন্ন প্রকার মসলা লাগে। কিন্তু ২–১ বার করলে এটি আর ভেজাল মনে হবে না। সব উপকরন যদি হাতের কাছে থাকে তবে খুব সহজে এটি তৈরী করে ফেলতে পারবেন।

উপকরণ:

১. ১৫–২০ টি সাদা গোল মরিচ

২. ৮–১০ টি এলাচ

৩. ১ চা চামচ সাহি জিরা

৪. ১ টেবিল চামচ পোস্ত দানা

৫. ১/৪ ভাগ জয়ফল

৬. ১ চা চামচ জয়ত্রী

৭. দারুচিনি

৮. বাদাম

৯. কিচমিচ ১৫–২০ টি

১০. কাচা মরিচ ৫–৬ টি

১২. আলু বোখরা ৪–৫ ট

১৩. টক দই

রান্না:
রোস্টের রান্না করার জন্য প্রথমে আপনাকে  রোস্ট গুলো ভাজতে হবে। তাই প্রথমে আপনি কড়াইতে পরিমাণ মত বাটার দিয়ে দিবেন। ইচ্ছে হলে আপনি ঘী টাও ব্যবহার দিতে পারেন। এরপর মাংসগুলো দিয়ে আপনি ঢাকনা দিয়ে দিবেন। চুলার আচঁটা মিডিয়ামের কম থাকবে। মাংসগুলো আপনি ১০ মিনিটের মত এ পিট ও পিট করে ভেজে নিবেন। মাংসটা একটু কালার করে ভেজে নিবেন যাতে মাংসটা একটু শক্ত হয়। এবার মাংসগুলো একটি প্লেটে তুলে নিবেন।

আগে যে বাটার ছিল তার সাথে আরও হাফ কাপ পরিমান বাটার দিয়ে দিবেন। হাপ কাপ পরিমান পেয়াজ দিবেন বেরেস্তার জন্য। পেয়াজ গুলো লাল লাল করে ভেজে নিবেন। তারপর বেরেস্তা নামিয়ে নিবেন। বাটারের মধ্যে ২ টুকরা দারুচিনি, ৪-৫টি এলাচ, এক কাপ পেয়াজ কুচি দিয়ে দিবেন। পেয়াজ টা একটু ভেজে নিবেন।

২–৩টি তেজপাতা এবং ৩–৪ টি লবঙ্গ দিয়ে দিবেন। পেয়াজটা যখন লাল হয়ে আসবে তখন মসলা গুলো দিতে থাকবেন। আদা রসুন বাটা ৩ টেবিল চামচ। ১ চা চামচ কাচা জিরা, ১ চা চামচ গরম মসলা দিয়ে দিবেন। গরম মসলার মধ্যে অনেক ধরনের মসলা থাকে। এর মধ্যে ১ কাপ পানি দিয়ে কষিয়ে নিবেন। তারপর রোস্টের সব উপকরন গুলো এক সাথে পানি দিয়ে পেস্ট করে নিবেন। সব উপকরন দিয়ে দিবেন।

তারপর এগুলো ভালোভাবে পানি দিয়ে কষিয়ে নিবেন। মিডিয়াম আচে ১০ মিনিট ধরে কষাবেন অনবরত নাড়ার উপর, যতক্ষন না তেল উপরে উঠে আসবে। এখন দিবেন হাফ কাপ পরিমান টক দই। এটা নেড়ে মিলিয়ে দিবেন। তারপর নিবেন ২চা চামচ পরিমান টমেটো কেচাপ। কেচাপের পরিবর্তে টমেটো সসও নিতে পারেন। এটা ভালো করে মিক্স করে ২-৩ মিনিট কষিয়ে নিবেন সব মসলা। তারপর আপনি মাংসগুলো দিয়ে দিবেন। ৫ মিনিটের জন্য ঢাকনা দিয়ে দিবেন। চুলার আচঁ মিডিয়ামের থেকে কমে রেখে মাংসগুলো কষাতে হবে তেল উপরে ভেসে না উঠা পর্যন্ত। তরপর ১ কাপ পরিমান লিকুইড দুধ দিবেন।

যতটুকু আপনি ঝোল রাখতে চান ততটুকু পরিমান দুধ দিবেন। এতে মাংস সিদ্ধ হয়ে মাখা মাখা থাকবে। দুধ এবং দইয়ের জন্য রোস্টের কালারটা আসবে ভালো করে। দুধটা সব মসলার সাথে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। এক চিমটি পরিমান লেবুর রস দিবেন, ফ্লেভারটা ভাল করার জন্য। এ ছাড়া দই যদি বেশি টক হয় তবে লেবু না দিলেও হবে। ৪-৫ টি কাচা মরিচ এবং ৪-৫ টা আলু বোখরা দিয়ে দিবেন।

এগুলো ভালোভাবে মিক্স করে ১৫-২০ মিনিটের জন্য ঢেকে দিবেন মিডিয়াম আচেঁ। পুরো পুরি সিদ্ধ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন যাতে মাখা মাখা হয়ে যায়। এরপর পেয়াজ বেরেস্তা দিয়ে দিবেন উপর থেকে। টক কমানোর জন্য ১ চা চামচ চিনি দিয়ে দিতে পারেন। ভাল গন্ধ আনার জন্য গোলাপ জল বা কেওড়া জল দিতে পারেন। যে কোন একটি দিলেও হবে, ২টা না থাকলে। এটা কিন্তু সব সময় নাড়ার উপর রাখতে হবে যাতে নিচে লেগে না যায়। সব শেষে ১০-১৫ মিনিট ঢাকনা দিয়ে রাখবেন। এরপর পরিবেশন করবেন মজাদার বিয়ে বাড়ির রোস্ট।

এ ছাড়াও আপনি মুরগি বড় বড় টুকরা করে কেটে নিতে পারেন। তেল গরম হলে পিয়াজ, আদা, কাঁচা মরিচ দিয়ে মুরগি ভেজে নিবেন। তারপর লবন, কাঁচা মরিচ, ধনিয়া গুড়া, এলাচ দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে আধা কাপের মত জল দিয়ে ঢিমে জ্বালে রান্না ক্রবেন। যতক্ষণ না রান্নাটা মাখা মাখা হয়। এভাবেও আপনি রোস্ট রান্না করতে পারেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ