Alexa রেল সেতুতে বাঁশ!

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৩ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৮ ১৪২৬,   ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪০

রেল সেতুতে বাঁশ!

জাকারিয়া চৌধুরী, হবিগঞ্জ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৮:৪২ ২৭ জুন ২০১৯   আপডেট: ০৮:৫৩ ২৭ জুন ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ঢাকা-সিলেটের হবিগঞ্জে রেল সেতুর স্লিপারের কাছে বাঁশ ও লোহা দিয়ে মেরামত করা হয়েছে। এতে মারাত্মক দুর্ঘটনার আশংকা করছেন স্থানীয়রা।

ট্রেন চলাচলের সময় সেতুটি নড়তে শুরু করে এবং মাঝখানে জোড়া লাগানো স্লিপ ওঠানামা করে। বাঁশ সংযুক্ত থাকলেও কোনো ঝুঁকি নেই বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া হবিগঞ্জ অংশের ৫২ কিলোমিটারের মধ্যে ছোট-বড় প্রায় ৮৪টি সেতু-কালভার্ট রয়েছে। এর অধিকাংশই ঝুঁকিপূর্ণ।

জেলার শায়েস্তাগঞ্জ কদমতলী বড়চর এলাকার ৯৩ নম্বর বড়বিল সেতুটির অবস্থা খুবই নাজুক। সেতুর ৮০টি নাটের মধ্যে রয়েছে মাত্র ৩৪টি নাট। বাকিগুলো খুলে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। স্লিপারের সঙ্গে পুরোনো বাঁশ সংযুক্ত রয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল আলীম জানান, ৯৩ নম্বর বড়বিল সেতুটি অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। সেতুটি মেরামতের সময় বাঁশ ও লোহা দিয়ে জোড়া দেয়া হয়েছে। নেই পর্যাপ্ত পরিমাণ নাট-বল্টুও। তাই সেতুটি দিয়ে ট্রেন চলাচলের সময় গ্রাম থেকে লক্কড়-ঝক্কড় শব্দ শোনা যায়। যে কোনো সময় সেতুটিতে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

কলেজশিক্ষার্থী পারভেজ হাসান জানান, দূর থেকে সেতুটির নড়বড়ে অবস্থা বোঝার উপায় নেই। ৮০-৮৫ টি স্লিপার থাকলেও হাতে গোনা কয়েকটি নাট বল্টু রয়েছে। মাঝে মধ্যে কর্মকর্তারা কাঠের স্লিপার দিয়ে ভেঙে যাওয়া স্লিপার আটকানোর চেষ্টা করেন, তবে সেগুলো বেশিদিন টেকে না। এছাড়া, সুতাং ও খোয়াই নদীর ওপর স্থাপিত সেতুর অবস্থাও একই।

আখাউড়া রেল সেকশনের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী রুহুল আক্তার খান বলেন, স্লিপারের সঙ্গে বাঁশ লাগালে স্লিপার শক্ত থাকে। পুরনো স্লিপারের গ্যাপ পূরণের জন্য বাঁশ দেয়া হয়েছে। তবে এতে কোনো ধরনের ঝুঁকি নেই।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর