Alexa রুপচর্চায় মিষ্টিকুমড়া

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ২ ১৪২৬,   ১৭ মুহররম ১৪৪১

Akash

রুপচর্চায় মিষ্টিকুমড়া

 প্রকাশিত: ১৫:১২ ৩১ আগস্ট ২০১৮   আপডেট: ১৫:১২ ৩১ আগস্ট ২০১৮

নিশ্চয়ই শিরোনাম দেখে অবাক হয়ে গেছেন। আবাক হওয়ার মতো বিষয় হলে তো অবাক হওয়াই স্বাভাবিক। মিষ্টিকুমড়াকে সবজির আওতায় ধরা হয়ে থাকে। এটি খুবই পুষ্টিগুন সম্পন্ন একটি সবজি। তাহলে এটি খাদ্য হিসেবে গ্রহনযোগ্য সেটা সবাই জানলেও, এটা জানে না যে রুপচর্চায় এট ব্যবহার করা হয়। এটি খাদ্য হলেও আপনি এটি ব্যবহার করতে পারেন আপনার রুপচর্চার উপকরণ হিসেবে। মিষ্টি কুমড়োর ফেস প্যাক ত্বক পরিষ্কার করতে খুব ভালো কাজ করে ও শুষ্ক ত্বককে মশ্চারাইজারের কাজ করে থাকে। এটি ত্বক নরম ও কোমল করে তোলে। চলুন দেখে নেওয়া যাক, কিছু মিষ্টি কুমড়ার ফেসপ্যাক রেসিপি।

মিষ্টি কুমড়ার রেসিপি অনেক। তবে ভাজি, আচার, নিরামিষ, মাংস রান্নায় এটি বেশি ব্যবহার করা হয়। দেহের নানা রকম পুষ্টি যোগাতেও সাহায্য কুমড়া। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় এটি থাকলে অনেক রকম রোগের হাত থেকে রক্ষা পেতে পারেন। কারণ এতে রয়েছে ভিটামিন–এ, ভিটামিন–বি, ভিটামিন–সি, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, জিংক, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, লিউথিন, জেনথিন এবং আরও অনেক উপাদান। এছাড়া এতে ক্যালরির পরিমাণও অনেক কম থাকে। ওজন কমাতেও মিষ্টি কুমড়ার জুড়ি নেই। কারণ এতে প্রচুর ফাইভার ও পটাশিয়াম আছে। এটি দেহের ক্ষুধা নিবারণ করে শরীর থেকে অতিরিক্ত লবণ ও পানি বের করতে সাহায্য করে থাকে। তাই প্রতিদিন কুমড়ার জুস খেলে ওজন অনেক কমে যাবে। এটি হজম শক্তি বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে। কারণ ফাইভারে ভরপুর কুমড়া খেলে হজম শক্তি অনেক বেড়ে যায়। অনেক ধরণের পুষ্টিগুণের জন্য রান্নার পাশাপাশি এটি রুপচর্চায়ও ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

১. মিষ্টি কুমড়া ও ফ্রুটস প্যাক: এটি ত্বক নরম করে তোলে ও ময়েশ্চারাইজার যোগায়। ছোট ছোট দুই টুকরা মিষ্টি কুমড়া, সবুজ আপেল ছোট ছোট দুই টুকরা, আনারস ছোট ছোট দুই টুকরা নিতে হবে। এবার সবুজ আপেল, আনারস ও মিষ্টি কুমড়া ভালো করে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। এই পেস্টটি মুখে গলায় ও হাতে লাগিয়ে নিতে হবে। এরপর ৪০-৪৫ মিনিটের মতো অপেক্ষা করতে হবে। শুকিয়ে গেলে এটি ধুঁয়ে ফেলতে হবে।

২. মিষ্টি কুমড়ো ও ডিমের প্যাক: এই প্যাকটি ত্বক তেলতেলে করে ত্বকের কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করে। ত্বক ফর্সা ও উজ্জ্বল করতেও এটি সাহায্য করে থাকে। মিষ্টি কুমড়া ছোট ছোট চার টুকরো, ডিম একটি, চন্দনের তেল এক চামচ নিতে হবে। প্রথমে মিষ্টি কুমড়া ব্লেন্ডারে ভালো করে পেস্ট করে নিতে হবে। একটি বাটিতে ডিম ফাটিয়ে নিন। এর মধ্যে ১ চা চামচ চন্দন তেল দিয়ে আবার ভালো করে ফেটে নিতে হবে। এবার পেস্ট করা মিষ্টি কুমড়া ডিমের মধ্যে দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর মুখে, গলায় ও ঘাড়ে ভালো করে ম্যাসাজ করতে হবে। শুকানোর জন্য ৩০-৪০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এবার কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুঁয়ে ফেলতে হবে।  

৩. মিষ্টি কুমড়ো ও অলিভ অয়েল: এই প্যাকটি ত্বকের শুষ্ক ভাব দূর করতে সাহায্য করে থাকে। এটি শীতে ত্বক ফাটা থেকে রক্ষা করবে। ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করবে। ত্বক ফাটা রোধ করবে। ত্বকে ময়েশ্চারাইজারের কাজ করবে। ত্বক নরম ও কোমল করতে সাহায্য করতে সাহায্য করে। মিষ্টি কুমড়া ছোট ছোট ১০ টুকরা নিতে হবে। এর সঙ্গে আরও নিতে হবে ২ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল। আর সঙ্গে নিতে হবে ২টি গোলাপের পাপড়ি। গোলাপের পাপড়ি ও মিষ্টি কুমড়া ব্লেন্ডারে দিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। এর সঙ্গে অলিভ অয়েল দিয়ে মুখে, ঘাড়ে, হাতে ও পায়ে ভালো করে ম্যাসাজ করে নিতে হবে। এটি গোসলের আগে লাগানো ভালো। তাহলে পরিষ্কার করতে সুবিধা হবে। শুকানোর জন্য ২ ঘণ্টার মতো অপেক্ষা করতে হবে। শুকিয়ে গেলে ভালো করে পরিষ্কার করে নিতে হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস/এসজেড