Alexa রুপচর্চায় ভাতের মাড়!

ঢাকা, রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৭ ১৪২৬,   ২২ মুহররম ১৪৪১

Akash

রুপচর্চায় ভাতের মাড়!

 প্রকাশিত: ১৬:৪৩ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৬:৪৩ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

আদিকাল থেকেই বাঙালী খাবার তালিকার শীর্ষে রয়েছে ভাত। যতই অন্য খাবার খাওয়া হোক না কেন বাঙালির এক বেলা ভাত না হলে চলে না। আর ভাত রান্না করলে ভাতের মাড় তো পাওয়া যাবেই। বেশিরভাগ সময় ভাত রান্নার পর মাড় ফেলে দেয়া হয়। আবার মাঝে মাঝে আপনি নিশ্চয়ই ভাতের মাড় ব্যবহার সাধারণত কাপড় কাচার জন্য ব্যবহার করা হয়। কিন্তু ভাতের মাড়ের রয়েছে আরও অনেক গুণ। একটি জাতীয় হেলথ ওয়েবসাইট থেকে জানা গিয়েছে, রূপচর্চার ক্ষেত্রেও ভাতের মাড়ের জুড়ি মেলা ভার। জেনে নিন ভাতের মাড় ব্যবহার করলে রূপচর্চায় কী কী উপকার পাবেন—

• ফেসওয়াশ ফুরিয়ে গিয়েছে? ভাতের মাড় আছে তো! বরং ফেসওয়াশ থেকে মাড় আপনার ত্বক গভীর থেকে পরিষ্কার করবে।  

• আপনি হয়ত জানেন না! ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ভাতের মাড় অনবদ্য কাজ করে থাকে। ভাতের মাড় ত্বককে হাইড্রেটেড রাখে।

• রোদে পুড়ে কিংবা ধুলোবালিতে প্রত্যেকেরই মুখে কালচে ছাপ পড়ে থাকে। এর থেকে রেহাই পেতে প্রতিদিন ভাতের মাড় মুখসহ হাতে ও পায়ে ব্যবহার করা উত্তম।

• সাধারনত ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বাহারি ফেয়ারনেস ক্রিম ব্যবহার করে থাকি। এসব পণ্য যেমন আপনার ত্বকের ক্ষতি করছে ঠিক তেমনি অর্থও খরচ হচ্ছে। অথচ যে জিনিসটি ফেলে দেয়া হয় সেটি জাদুকরিভাবে আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে পারে। অর্থ্যাৎ ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতেও ভাতের মাড় উপকারী।

• আমরা অনেকেই বলিরেখা ও ডার্ক সার্কেল নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকি। ভাতের মাড় ব্যবহার করুন দু’বেলা। এক সপ্তাহ বাদে ম্যাজিক দেখুন।

• ব্রণের সমস্যায় অনেকেই জর্জরিত। চিন্তা করবেন না বরং নিশ্চিন্ত মনে ভাতের মাড় ব্রণ আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রাখুন ৫-১০ মিনিট। এতে করে যেমন ব্রণ উধাও হবে ঠিক তেমনি ত্বকে এর দাগ পড়বে না।  

• চুলের কন্ডিশনার হিসেবেও ভাতের মাড়  ভাল কাজ করে। বাজারের বিভিন্ন ব্র্যান্ডের কন্ডিশনার ব্যবহার না করে বরং প্রাকৃতিকভাবে চুল কন্ডিশনিং করুন ভাতের মাড়ের সাহায্যে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস/এসজেড