শিরোনাম:
জলবায়ু সংক্রান্ত ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে যোগ দিতে ০৩ দিনের সফরে প্যারিসের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কুমিল্লা-রংপুরের কোয়ালিফায়ার ম্যাচের বাকি অংশ আজ আজও অনেক স্থানে বৃষ্টি হতে পারে পরমাণু যুদ্ধ নিয়ে সতর্কতা নোবেল জয়ী আইসিএএনের ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে যোগ দিতে ফ্রান্সের পথে প্রধানমন্ত্রী
শিরোনাম:
জলবায়ু সংক্রান্ত ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে যোগ দিতে ০৩ দিনের সফরে প্যারিসের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কুমিল্লা-রংপুরের কোয়ালিফায়ার ম্যাচের বাকি অংশ আজ আজও অনেক স্থানে বৃষ্টি হতে পারে পরমাণু যুদ্ধ নিয়ে সতর্কতা নোবেল জয়ী আইসিএএনের ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে যোগ দিতে ফ্রান্সের পথে প্রধানমন্ত্রী...

রিয়াল-বার্সার যৌথ খরচ লিগের বাকি ১৮ দলের খরচের সমান!‌‌

 স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:১০, ১২ অক্টোবর ২০১৭

৯৪ বার পঠিত

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

রিয়াল মাদ্রিদ আর বার্সেলোনা ফুটবল দুনিয়ার সেরা দুই প্রতিদ্বন্দ্বী দল। দলগঠনের ব্যয়ের যে হিসাব পাওয়া গেছে, তাতে রিয়াল-বার্সার কাছে অন্য দলগুলোর তো পাত্তাই পাওয়ার কথাও নয়।

দলগঠনে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার যৌথ খরচ স্প্যানিশ লিগের বাকি ১৮ দলের খরচের সমান।

আক্ষরিক অর্থেই তাই। যে দল নিয়ে স্প্যানিশ লিগের নতুন মৌশুমে এবার ঝাঁপিয়ে পড়েছে রিয়েল ও বার্সিলোনা, সেই স্কোয়াড গড়তে এই দুই ক্লাবের মোট ব্যয় হয়েছে ৯০৬.‌৪ মিলিয়ন ইউরো!‌ সেখানে বাকি ১৮ দলের মোট ব্যয় ৯৮২.‌৬৯ মিলিয়ন ইউরো।

চুক্তির অঙ্ক হিসেব করে দেখা যাচ্ছে, রিয়ালের বর্তমান দলের পেছনে মোট ব্যয় ৪৭১.‌৫ মিলিয়ন ইউরো!‌

মজার ব্যাপার হল, মোট খরচের প্রায় অর্ধেকটাই রিয়ালকে ঢালতে হয়েছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও গ্যারেথ বেলের পেছনে। এই দুজনকে কিনতেই রিয়েলের খরচ হয় ১৯৪ মিলিয়ন ইউরো। ২০১৩ সালে টটেনহাম থেকে ওয়েলস তারকা বেলকে রিয়েল দলে আনে ১০০ মিলিয়ন ইউরোতে। ২০০৯ সালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে রোনালদোকে আনে ৯৪ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে।

যাই হোক, দলগঠনের খরচের দিক থেকে রিয়ালের চেয়ে খুব পিছিয়ে নেই বার্সেলোনাও। বরং এক অর্থে তাদের খরচই বেশি।

বার্সেলোনার বর্তমান দলের মোট খরচ ৪৩৪.‌৯ মিলিয়ন ইউরো। কিন্তু নিজেদের যুব একাডেমি থেকে উঠে এসেছেন বলে দলের সেরা তারকা লিওনেল মেসি, মিডফিল্ডার আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাদের পেছনে চুক্তির বাড়তি টাকা ঢালতে হয়নি। এদের মূল্যটা যোগ করলে খরচে রিয়ালকে ছাপিয়েই যাবে বার্সা।

রিয়াল–‌বার্সার বিশাল অঙ্কের এই ব্যয়ের উল্টো পিঠে বাকি দলগুলোর হিসেবটা একটু আলাদাই। খরচের হিসাবে তৃতীয় অবস্থানে থাকা অ্যাটলেটিকোর মোট খরচ ২৭৪.‌৭১ মিলিয়ন ইউরো। চতুর্থ স্থানে থাকা ভ্যালেন্সিয়ার মোট খরচ ১৪৯.‌৫৫ মিলিয়ন ইউরো। পঞ্চম স্থানে থাকা সেভিয়ার মোট খরচ ১৩৫.‌০৫ মিলিয়ন। ১০০ মিলিয়নের ওপরে খরচ আর মাত্র এক দলেরই। ভিয়ারিয়েলের মোট খরচ ১১২.‌৯৫ মিলিয়ন ইউরো।

ক্লাব ইতিহাসে প্রথমবারের মতো লা লিগায় জায়গা করে নেওয়া গিরোনা এফসি প্রথম বারের মতো স্প্যানিশ লিগে খেলতে যাচ্ছে মাত্র ৪.‌৬ মিলিয়ন ইউরোর মূল্যের দল গড়ে। শুধু গিরোনাই নয়। পুরো স্কোয়াডের পেছনে লেভান্তের মোট খরচ ৭.‌৩ মিলিয়ন ইউরো। লাস পালমাসের মোট খরচ ৭.‌৪ মিলিয়ন, লেগানের মোট খরচ ৮.‌৩ মিলিয়ন, গেতাফের ১১.‌৫৫ মিলিয়ন, আলাভেসের ১৫.‌৯৮ মিলিয়ন, মালাগার ১৬.‌৪ মিলিয়ন, এই বারের ১৬.‌৯৫ মিলিয়ন, দেপোর্তিভো লা করুনার ২০.‌৫ মিলিয়ন, এসপানিওলের মোট ব্যয় ২২.‌৬৫ মিলিয়ন ইউরো। ‌

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ

আমাদের পাঠক প্রিয় সংবাদগুলো
ওপরে যেতে