Alexa কথাবার্তায় সন্দেহ থেকেই গ্রেফতার মিন্নি

ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৮ ১৪২৬,   ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

কথাবার্তায় সন্দেহ থেকেই গ্রেফতার মিন্নি

বরগুনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৩:৫৩ ১৭ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ১১:১৬ ১৭ জুলাই ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় জিজ্ঞাসাবাদে কথাবার্তায় সংশ্লিষ্টতা থাকার সন্দেহ থেকেই আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে গ্রেফতার দেখিয়েছে পুলিশ। 

আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও নিহত রিফাতের স্ত্রী মিন্নিকে মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে গ্রেফতার দেখানো হয় বলে জানান বরগুনার এসপি মো. মারুফ হোসেন। আজ বুধবার তাকে আদালতে হাজির করে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

তিনি বলেন, রিফাত শরীফ হত্যা মামলার ১ নম্বর সাক্ষী ও প্রত্যক্ষদর্শী মিন্নি। তার বক্তব্য রেকর্ড ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সকালে বরগুনা পুলিশ লাইনে আনা হয়। এ সময় কথাবার্তায় সন্দেহ হওয়ায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়।

মিন্নিকে গ্রেফতার দেখানোর পর রাত সাড়ে ৯টার দিকে সংবাদ সম্মেলন ডাকেন এসপি। 

জিজ্ঞাসাবাদে ও অন্যান্য সোর্স থেকে পাওয়া তথ্য-উপাত্তে এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে মিন্নির সম্পৃক্ততার প্রমাণ পেয়েছে জানান এসপি মারুফ।

এসপি বলেন, রিফাত হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে মাদকের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। শুধুমাত্র ব্যক্তিগত কারণ ও আক্রোশের জন্য এই রোমহর্ষক হত্যাকাণ্ড ঘটেছে।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে বরগুনা পৌরসভার মাইঠা এলাকার নিজ বাসা থেকে মিন্নিকে পুলিশ লাইনে নেয়া হয়। সকালে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মিন্নিকে পুলিশ লাইনে আনার সময় তার সঙ্গে বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরও ছিলেন।

এদিকে মিন্নিকে গ্রেফতারের পর একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি গণমাধ্যমে পাঠিয়েছেন এসপি মো. মারুফ হোসেন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৬ জুন রিফাত শরীফকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার পর এখন পর্যন্ত বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে এজাহারভুক্ত সাত আসামিকে গ্রেফতার করে। এর মধ্যে নয়ন বন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়।

এছাড়া আরো সাতজনকে সন্দেভাজন হিসেবে গ্রেফতার করা হয়। মামলার মূল রহস্য উদঘাটন ও সুষ্ঠু তদন্তের জন্য এ মামলার ১ নং সাক্ষী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে ডেকে এনে মামলার ঘটনা সংক্রান্তে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

তদন্তকারী কর্মকর্তা কর্তৃক প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ও সুদীর্ঘ সময় যাবৎ প্রাপ্ত তথ্যাদি পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণ পূর্বক হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তাদের সংশ্লিষ্টতা প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হওয়ায় মামলার মূল রহস্য উদঘাটন এবং সুষ্ঠু তদন্তের নিমিত্তে আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে রাত ৯টায় গ্রেফতার করা হয়।

বরগুনায় চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলার বাদী নিহত রিফাত শরীফের বাবা দুলাল শরীফ ও মামলার প্রধান সাক্ষী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি পরস্পর দোষারোপ করে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

একই সময়ে বন্দুকযুদ্ধে নিহত নয়ন বন্ডের মা শাহিদা বেগমও মিন্নিকে জড়িয়ে বিবৃতি দেয়ায় রিফাত হত্যার ঘটনা ভিন্ন দিকে মোড় নেয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ/এসআর

Best Electronics
Best Electronics