রিজভীর কর্মকাণ্ডে বিরক্ত বিএনপির সিনিয়র নেতারা

ঢাকা, সোমবার   ০৬ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ২২ ১৪২৭,   ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

রিজভীর কর্মকাণ্ডে বিরক্ত বিএনপির সিনিয়র নেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:৫৯ ২ জুন ২০২০   আপডেট: ১৫:৪৫ ২ জুন ২০২০

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর বেশকিছু কর্মকাণ্ডে বিরক্ত দলটির সিনিয়র নেতারা। যেকোনো ইস্যুতে হুট করে সংবাদ সম্মেলন আর ১০ থেকে ১২ জন নেতাকর্মী নিয়ে  ‘ঝটিকা মিছিল’ নিয়ে বিব্রত দলটির শীর্ষস্থানীয় নেতারা। 

দলটির সিনিয়র নেতাদের দাবি, বিএনপি এমন কোনো নিষিদ্ধ সংগঠন নয় যে কোনো কর্মসূচি রাতের আঁধারে পালন করতে হবে। এসব কর্মসূচির মাধ্যমে নেতাকর্মীরা রাজনীতির প্রতি দিন দিন নিরুৎসাহিত হচ্ছে। সিনিয়র নেতারা ঘরমুখো হয়ে পরছে। এতো বড় একটা দল যদি মিছিল করে ১০ থেকে ১২ জন নিয়ে তাহলে এর চেয়ে লজ্জার কি আছে? তার (রিজভীর) এই কর্মসূচি দেখে আসলেই মনে হয় বিএনপি আজ নালিশ পার্টিতে পরিণত হয়েছে। কার পরামর্শে বা নির্দেশে তিনি এগুলো করছেন তা বোধগম্য নয়। 
 
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির একাধিক সিনিয়র নেতা ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, রুহুল কবির রিজভীর মর্নিং ওয়ার্কের নামে যেসব কর্মসূচি পালন করছেন তা একদমই ঠিক নয়। এগুলো রীতিমতো তামাশা ছাড়া আর কিছু নয়।  

তারা বলেন, বিএনপি কোনো নিষিদ্ধ দল নয়। তাহলে কেন বিএনপিকে পালিয়ে-পালিয়ে কর্মসূচি পালন করতে হবে? এসব কর্মসূচিতে দলের যতটুকু লাভ হয় তারচেয়ে বেশি ক্ষতি হচ্ছে। এর মাধ্যমে দলের জুনিয়র নেতারা রাজনীতির প্রতি নিরুৎসাহিত হচ্ছেন। সিনিয়র নেতারা বিভিন্ন জায়গায় বিব্রত অবস্থায় পড়ছেন। 

রিজভীকে উদ্দেশ্য করে তারা বলেন, তিনি যে এলাকায় মিছিল করেন সেখানে সংশ্লিষ্ট ইউনিটের দায়িত্বশীল নেতারা তার কর্মসূচি সম্পর্কে কিছুই জানেন না। বিষয়টি কেমন হলো? তাহলে কি বলবো তিনি ওই এলাকার নেতাদের বিশ্বাস করেন না? আর তার সঙ্গে মিছিলে যে কয়েকজন লোক থাকে তারাইবা কারা?

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নগর বিএনপির এক নেতা ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, রুহুল কবির রিজভীর কার্যক্রম তামাশা ছাড়া আর কিছুই নয়। কর্মসূচিই যদি পালন করতে হয় তাহলে সেইসব এলাকার অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনসমূহের নেতাদের জানিয়ে করতে পারতেন। তাহলে সংশ্লিষ্ট থানা বা ইউনিটের দায়িত্বশীল নেতাদের অস্বস্তিতে পড়তে হতো না। বিএনপি বা উনার মত এত বড় নেতার মিছিলে আরো অনেক বেশি নেতাকর্মীর উপস্থিতি থাকা উচিত।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পল্টন থানা বিএনপির দায়িত্বশীল এক নেতা ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, রিজভী ভাই অনেক সময় পল্টন এলাকায় হঠাৎ করেই কর্মসূচি পালন করে থাকেন। সেসব সম্পর্কে আমরা অনেক সময় অবগত থাকি না। অবগত হলে আমরা অবশ্যই কর্মসূচিতে অংশ নিতাম।

শাহবাগ থানা কৃষক দলের এক নেতা বলেন, রিজভী ভাই এই এলাকায় মাঝে মাঝেই ঝটিকা মিছিল করেছেন কিন্তু আমদের বিষয়টি জানানো হয়না। উনি দলের সিনিয়র নেতা, ওনার মিছিলের খবর জানলে অবশ্যই নেতাকর্মীরা তাতে অংশ নিতো।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/এস/এসআর