Alexa ‘রাষ্ট্রদ্রোহী অপশক্তি যেন বিচারাঙ্গণ কলুষিত করতে না পারে’

ঢাকা, সোমবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ২৪ ১৪২৬,   ১১ রবিউস সানি ১৪৪১

‘রাষ্ট্রদ্রোহী অপশক্তি যেন বিচারাঙ্গণ কলুষিত করতে না পারে’

গাজীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:২৫ ১ ডিসেম্বর ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রাষ্ট্রদ্রোহী অপশক্তির তৎপরতা কোনোভাবেই যেন বিচারাঙ্গণকে কলুষিত করতে না পারে সে জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

রোববার সন্ধ্যায় গাজীপুর জেলা আইনজীবী সমিতির উদ্যোগে জেএমবির বোমা হামলায় শহীদ আইনজীবীদের স্মরণে আলোচনা সভায় তিনি এ আহ্বান জানান। এ উপলক্ষে শোক র‌্যালি, শোক সভা, মিলাদ মাহফিলের আয়োজনও করা হয়।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর রাজনৈতিক অপশক্তির দেশে ধর্মান্ধ ও প্রতিক্রিয়াশীল বিভিন্ন চক্রের উদ্ভব ঘটে। নানা পৃষ্ঠপোষকতায় স্বাধীনতা বিরোধী ও জঙ্গিবাদে বিশ্বাসী এ চক্র তাদের নেটওয়ার্ক বিস্তৃত করতে থাকে। এদের প্রধান টার্গেট বিচারাঙ্গণ। দেশের বিচারক ও আইনজীবীরা বারবার এ ঘৃণিত চক্রের নির্মম ও মর্মান্তিক হামলার শিকার হয়েছেন। তারা বিচারক ও আইনজীবী হত্যা করেছে। এরা জানে না ব্যক্তিকে হত্যা করা যায়, কিন্তু আদর্শকে হত্যা করা যায় না।

তিনি বলেন, দেশের শান্তি শৃঙ্খলা বিঘ্নিত করতে ও দেশকে অস্থিতিশীল করে নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য তাদের এ অপপ্রয়াস। সমাজের শান্তি শৃঙ্খলা ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বিচারক ও আইনজীবীদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এ অপশক্তিকে বিতাড়িত করতে সক্ষম হবে বলে আমার বিশ্বাস।

আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে প্রধান বিচারপতি বলেন, আইনজীবীরা বিচার ব্যবস্থার একটি অপরিহার্য অঙ্গ। আইনজীবীদের সহায়তা ছাড়া বিচারকাজ অগ্রসর হতে পারে না। আশা করছি, জ্ঞান চর্চায় বর্তমান আইনজীবী সমাজ আগের চেয়ে আরো এগিয়ে যাবেন। তাদের মেধা, প্রজ্ঞা, সততা ও আন্তরিকতা দিয়ে বিচার প্রার্থীদের দ্রুত ন্যায় বিচার পাওয়ায় সহায়তা করবেন।

‘আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় আপনাদের নির্ভীক হতে হবে। শিক্ষা ও জনকল্যাণমূলক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত থেকে সামাজিক ও অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জনে সচেষ্ট হতে হবে। আইনজীবীদের হতে হবে উন্নত চরিত্রের অধিকারি, দৃঢ় প্রত্যয়ী ও প্রজ্ঞাবান। আপনাদের নীতি ও আদর্শ যেন অনুজদের নিকট অনুসরণীয় হয়।’

প্রধান বিচারপতি বলেন, ঐতিহ্যবাহী এ বারের পূর্বসূরি বিজ্ঞ আইনজীবীরা সমাজের অচলায়তন ভেঙে সুস্থ, সুন্দর ও আদর্শের আলোকবর্তিকা নিয়ে অগ্রগামী হয়েছিলেন। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় তাদের নিরলস চেষ্টা ও আত্মত্যাগ আমাদের অনুপ্রেরণার উৎস। আইনজীবীরা হলেন সোশ্যাল ইঞ্জিনিয়ার আর বিচারকরা হচ্ছেন বিচারের মূর্ত প্রতীক। আইনের শাসন ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বিচারক ও আইনজীবীদের সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।

গাজীপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. মো. খালেদ হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মনজুর মোর্শেদ প্রিন্সের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক, গাজীপুরের সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ ড. একেএম আবুল কাশেম, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম, সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন খান, অ্যাড. আজমত উল্লা খান, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম, এসএম শফিকুল ইসলাম বাবুল, ওয়াজ উদ্দিন মিয়া, পিপি হারিছ উদ্দিন আহমদ, সুলতান উদ্দিন, জিপি আমজাদ হোসেন বাবুল, ব্যারিস্টার নাজমুল হোসাইন রানা, অ্যাড. নূরুল আমিন, দেওয়ান আবুল কাশেম, জেবুন্নেছা মিনা প্রমুখ।

এর আগে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিরা নিহত আইনজীবীদের স্মরণে বার প্রাঙ্গণে নির্মিত শহীদ বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ