Exim Bank
ঢাকা, মঙ্গলবার ১৯ জুন, ২০১৮
Advertisement

রাশিয়ায় ভাঙতে পারে যেসব রেকর্ড

 পারভেজ আলম ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৫৪, ১৩ জুন ২০১৮

আপডেট: ২১:০৩, ১৩ জুন ২০১৮

২২৬৬ বার পঠিত

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বিশ্বকাপ মানে রেকর্ড ভাঙা গড়ার ছড়াছড়ি। ১৯৩০ সাল থেকে শুরু করে ২০১৪। প্রতিটি বিশ্বকাপেই ফুটবলবিশ্ব স্বাক্ষী হয়েছে অন্যন্য সব রেকর্ডের। এমন ধারাবাহিকতা চলবে এবারের ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপেও। পুরোনোকে ভেঙে নতুন মহাকাব্য রচনার জন্য মঞ্চ যে প্রস্তুত।

সবচেয়ে বেশি বিশ্বকাপ জয়ী দেশ ব্রাজিল, আর্জেন্টিনার ফুটবল দি গ্রেট ডিয়েগো ম্যারাডোনা কিংবা কলম্বিয়ান গোলরক্ষক ফারিদ মনদ্রাগোনের গড়া রেকর্ড এবারের ভাঙার অপেক্ষায় এই রাশিয়া বিশ্বকাপে। কোচেরাও বা পিছিয়ে থাকবেন কেন। নতুন রেকর্ড গড়ার জন্য মাঠে নামবেন ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশম ও অস্কার তাবারেস। সাথে থাকবে আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসি, পাল্টা দেবে কোস্টারিকাও। এমনই রেকর্ড ভাঙা-গড়ার হাতছানি দিচ্ছে এবারের রাশিয়া বিশ্বকাপ।
 
ফিফা এসব তুলে ধরেছে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে-
 
বিশ্বকাপে টানা সবচেয়ে বেশি ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড ব্রাজিলের। ১৯৫৪ সালের কোয়ার্টার ফাইনালে হাঙ্গেরির কাছে ৪-২ গোলে হারের পর ১৯৬৬ সালের বিশ্বকাপে এই দলের কাছে গ্রুপে ৩-১ গোলে হেরেছিল তারা। মাঝে অজেয় ছিল টানা ১৩ ম্যাচ। এই রেকর্ড ভেঙে দিতে পারে এবার জার্মানি। ২০১০ সালের সেমিফাইনালে স্পেনের কাছে ১-০ গোলে সবশেষ হেরেছিল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। টানা ৮ ম্যাচ অজেয় থেকে রাশিয়া বিশ্বকাপে পা রাখছে জার্মানরা।
 
অন্যদিকে বিশ্বকাপে টানা ৬ ম্যাচ অজেয় থেকে কনকাকাফ (উত্তর আমেরিকা) অঞ্চলের রেকর্ডধারী মেক্সিকো। ১৯৯৪ সাল ও ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপে এই রেকর্ড গড়েছিল মেক্সিকানরা। এবার তাদের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছে কোস্টারিকা। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে তাদের পাঁচ ম্যাচের সবকটিতে অপরাজিত দলটি। সার্বিয়ার বিপক্ষে হার এড়ালেই মেক্সিকোকে স্পর্শ করবে কোস্টারিকা, আর ব্রাজিলকে রুখে দিলে এককভাবে রেকর্ড হয়ে যাবে তাদের।
 
জয়ের রেকর্ডে ব্রাজিল আর মেক্সিকোর নাম থাকলেও মিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি টানা ড্র করা দলের নাম বেলজিয়াম। বিশ্বকাপে টানা ৫ ম্যাচে ড্র করার রেকর্ড বেলজিয়ামের, ১৯৯৮ থেকে ২০০২ সালের আসর পর্যন্ত। তবে কোস্টেরিকার সামনে রয়েছে সেই রেকর্ড স্পর্শ করার হাতছানি। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে কোস্টারিকা তাদের শেষ তিনটি ম্যাচই ড্র করেছিল। নতুন রেকর্ড গড়তে ব্রাজিল, সুইজারল্যান্ড ও সার্বিয়ার বিপক্ষে কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে তাদের।
 
রেকর্ডের সামনে দাড়িয়ে ম্যাক্সিকান গোলরক্ষক রাফা মারকেজ।
 
রাশিয়া বিশ্বকাপে মুল দলে জায়গা পেলেই তৃতীয় খেলোয়াড় হয়ে ৫টি বিশ্বকাপ খেলার দুর্লভ কীর্তি গড়বেন রাফা মারকেজ। মেক্সিকোর এই অভিজ্ঞ খেলোয়াড় স্পর্শ করবেন আন্তোনিও কারবাজাল ও জার্মান লিজেন্ড লোথার ম্যাথাউসকে। অন্যদিকে জিয়ানলুইজি বুফন পাঁচটি বিশ্বকাপে দলের সঙ্গে গেলেও ১৯৯৮ সালের আসরে একটি ম্যাচও খেলতে পারেননি।
 
অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ৬ গোলের রেকর্ড ডিয়েগো ম্যারাডোনার। বিশ্বকাপ জয়ী এই কিংবদন্তির রেকর্ড এবার তারই স্বদেশি খেলোয়ারের কাছে ভাঙ্গার অপেক্ষায়। রেকর্ডটি ভাঙ্গার জন্য আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসির দরকার আর মাত্র ৩ গোল।
 
উরুগুয়ের বিপক্ষে মিশর খেলবে ১৫ জুন। ওইদিন মিশরীয় গোলরক্ষক এসাম এল-হাদারির বয়স হবে ৪৫ বছর ৫ মাস। ওই ম্যাচ তো বটেই, রাশিয়ায় অন্য যে কোনও ম্যাচে খেললেও ফারিদ মনদ্রাগোনকে (৪৩ বছর ৩ দিন) পেছনে ফেলে বিশ্বকাপ ইতিহাসের সবচেয়ে বয়স্ক খেলোয়াড়ের রেকর্ড গড়বেন তিনি।
 
এবার নজর দেয়া যাক কোচেদের দিকে। শেষ ষোলোতে উরুগুয়ে ও পর্তুগালের সাক্ষাৎ হলে এক ম্যাচে দুই কোচের মিলিত বয়সের নতুন রেকর্ড হবে। অস্কার তাবারেস ও ফের্নান্দো সান্তোসের মিলিত বয়স হবে ১৩৫ বছর ৩ মাস। ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপে গ্রিসের ওটো রেহাগেল ও নাইজেরিয়ার লার্স লেগ্যারব্যাকের গড়া বর্তমান রেকর্ড পেছনে পড়ে যাবে তাহলে। ৮ বছর আগে অর্থাৎ ২০০৬ সালের বিশ্বকাপের গ্রুপে দুই দলের লড়াইয়ের দিনে তাদের মিলিত বয়স ছিল ১৩৩ বছর ৯ মাস।
 
কোচ ছাড়াও দিদিয়ের দেশম এর জন্য রয়েছে আরেকটি রেকর্ডের হাতছানি। ফ্রান্সকে এবারের বিশ্বকাপ জেতাতে পারলে অনন্য এক অর্জন করবেন তিনি। আর তা হলো, কোচ ও খেলোয়াড় হিসেবে শিরোপা জেতা তৃতীয় ব্যক্তি হবেন তিনি। ১৯৯৮ সালে বিশ্বকাপ জেতা এই সাবেক ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার স্পর্শ করবেন মারিও জাগালো ও ফ্রাঞ্জ বেকেনবাওয়ারকে।
 
এছাড়াও রেকর্ডের নামের পাশে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো থাকবেন না তা কি করে হয়? তবে রোনালদোর পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়ার টিম কাহিল, মেক্সিকোর রাফা মারকেজ ও পর্তুগালের ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো রাশিয়ায় গোল করলেই অনন্য এক মর্যাদা পাবেন। ৪টি বিশ্বকাপে গোল হবে তাদের। তিনটির বেশি আসরে গোল করার কীর্তি কেবল আছে উবে সিলার, পেলে ও মিরোস্লাভ ক্লোসার।
 
ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ
সর্বাধিক পঠিত