Alexa রাজশাহীকে হারিয়ে শীর্ষে রংপুর

ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৮ ১৪২৬,   ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

রাজশাহীকে হারিয়ে শীর্ষে রংপুর

ক্রীড়া প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ০৪:৫৬ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ০৫:০০ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯

ফিফটির পর  রাইলি রুশো।ছবি- সংগৃহীত

ফিফটির পর রাইলি রুশো।ছবি- সংগৃহীত

চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ৩৬তম ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করে মেহেদী হাসান মিরাজের নেতৃত্বাধীন রাজশাহী কিংস। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রান তুলে দলটি। 

জবাবে ভিলিয়ার্স-রুশোর ব্যাটে কিংসদের সহজেই উড়িয়ে দিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে এল মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার দল। মোহাম্মদ মিঠুন আর নাহিদুল ইসলামের ব্যাটে ৬ উইকেট আর ৮ বল হাতে রেখেই টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নেয় রংপুর রাইডার্স।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন রাজশাহী অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজ। শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ১৮ রানেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন জনসন চার্লস। ক্যারিবীয়ান এই তারকা ১১ বলে দুটি চারের সাহায্যে ১২ রান করেন। সৌম্য সরকার ১৬ বলে করেন ১৪ রান। তিন নম্বরে নামা মুমিনুল হক ফেরেন ৪ রানে।

এক প্রান্ত আগলে ৩১ বলে পাঁচটি বাউন্ডারিতে লরি ইভান্স করেন ৩৫ রান। মিরাজের ব্যাট থেকে আসে ৬ রান। ১১ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ১৬ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন ক্রিস্টিয়ান জোঙ্কার। ফজলে মাহমুদ ২৪ বলে করেন ১৮ রান। কায়েস আহমেদ ২০ বলে একটি চার আর দুটি ছক্কায় করেন ২২ রান। আরাফাত সানি ১ ও মোস্তাফিজুর রহমান ৪ রানে অপরাজিত থাকেন।

ম্যাচে রংপুরের হয়ে তিন উইকেট নেন ফরহাদ রেজা। দুটি করে উইকেট নেন নাজমুল ইসলাম ও শহিদুল ইসলাম। একটি নেন নাহিদুল।

১৪২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে আগের মতই ব্যর্থ ক্যারিবিয়ান ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল। মাত্র ১০ রান করে মেহেদী মিরাজের বলে ক্যাচ দেন সৌম্য সরকারের হাতে। অপর ওপেনার অ্যালেক্স হেলসও বেশিদূর যেতে পারেননি। ১৫ বলে ১৬ রান করে আউট হন।

এরপর এবি ডি ভিলিয়ার্স গেল ম্যাচের মতো আবারো ব্যাটে ঝড় তোলেন। তার সঙ্গী ছিল রাইলি রুশো। তরতর করে এগিয়ে যায় রংপুরের ইনিংস। ৩৭ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করেন চলতি আসরে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ রানের মালিক রুশো।

রংপুর যখন জয় থেকে মাত্র ১৭ রান দূরে, তখন কামরুল ইসলাম রাব্বির দারুণ একটা বলে বোল্ড হয়ে যান ৪৩ বলে ৫ চার ২ ছক্কায় ৫৫ রানের ইনিংস খেলা রাইলি রুশো। ভাঙে ৭১ রানের জুটি। পরের ওভারেই ২৭ বলে ৫ চার ২ ছক্কায় ৩৭ রান করা এবি ডি ভিলিয়ার্স আরাফাত সানির বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরলে ম্যাচে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

তবে মুস্তাফিজের করা ১৯তম ওভারেই দলকে ৬ উইকেটে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন মোহাম্মদ মিঠুন (৪*) আর নাহিদুল ইসলাম (১১*)। ৭ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে আবারো শীর্ষে উঠে গেল মাশরাফির দল।

এদিকে এই জয়ে ১১ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে উঠে এল মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার  নেতৃত্বাধীন রংপুর রাইডার্স। আর এক ম্যাচ কম খেলে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় পজিশনে আছে মুশফিকুর রহিমের নেতৃত্বাধীন চিটাগং ভাইকিংস।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর

Best Electronics
Best Electronics