Alexa রাজধানীতে পুলিশের মারধরের শিকার দুই সাংবাদিক

ঢাকা, সোমবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬,   ২৯ জমাদিউস সানি ১৪৪১

Akash

রাজধানীতে পুলিশের মারধরের শিকার দুই সাংবাদিক

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২৩:৫০ ২০ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ০০:১১ ২১ জানুয়ারি ২০২০

সাংবাদিক শেখ জাহাঙ্গীর আলম ও সাজ্জাদ মাহমুদ খান

সাংবাদিক শেখ জাহাঙ্গীর আলম ও সাজ্জাদ মাহমুদ খান

রাজধানীর পরীবাগে পুলিশ সদস্যের মারধরের শিকার হয়েছেন দুই সাংবাদিক। তারা হলেন, বাংলা ট্রিবিউনের ক্রাইম রিপোর্টার শেখ জাহাঙ্গীর আলম ও দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ পত্রিকার ক্রাইম রিপোর্টার সাজ্জাদ মাহমুদ খান। 

তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছে ক্রাইম রিপোর্টারদের সংগঠন বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন। সংগঠনটি অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছে।

ভুক্তভোগী দুই সাংবাদিক জানান, সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেন্টার থেকে মোটরসাইকেল যোগে কর্মস্থল বাংলা ট্রিবিউন অফিসে যাচ্ছিলেন শেখ জাহাঙ্গীর। তার সঙ্গে ছিলেন আলোকিত বাংলাদেশের সাজ্জাদ মাহমুদ। এ সময় পরিবাগের রাস্তার বিপরীত দিক থেকে আসা পুলিশের একটি বাইক ধাক্কা দেয়। একবার ধাক্কায় দেয়ার পর আবারো ইচ্ছাকৃত জাহাঙ্গীরের পা বরাবর চাপা দেয়। এ সময় তারা প্রতিবাদ করলে জাহাঙ্গীরকে লাথি মারেন, অকথ্য ভাষায় তাদের দু’জনকে গালিগালাজ করেন। পরে মোটরসাইকেল চাপা দিয়ে তাদের হুমকি দিয়ে চলে যান পুলিশের পোশাক পরা ওই ব্যক্তি। তার মোটরসাইকেলের রেজিস্ট্রেশন নম্বর হলো- ঢাকা মেট্রো হ-১২-৭৫০৫।

যোগাযোগ করা হলে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান বলেন, বিষয়টি মৌখিকভাবে জানতে পেরেছি। আমরা রেজিস্ট্রেশন নম্বরের মাধ্যমে অজ্ঞাত ওই পুলিশ সদস্যের পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা করছি। দুই সাংবাদিককে লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। এই ঘটনায় উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে, এ ঘটনায় ক্র্যাব সভাপতি আবুল খায়ের ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিকু এক বিবৃতিতে ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেন, পুলিশ প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী, জনগণের সেবক। সাধারণ মানুষের সঙ্গে পুলিশের প্রত্যেক সদস্যের মানবিক ও পেশাদার আচরণ করা উচিত। দু’জন পেশাদার সাংবাদিককে রাস্তায় এভাবে হেনস্তা ও অসৌজন্যমূলক আচরণ এবং মেরে ফেলার হুমকির ঘটনা অত্যন্ত নিন্দনীয়। বিষয়টি উদ্বেগের। যা একবারে কাম্য নয়। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষী পুলিশ সদস্যকে চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান নেতৃবৃন্দ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসসি/আরএ