Alexa রাঙ্গায় ঘুরপাক নির্বাচনী রাজনীতি

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৬ ১৪২৬,   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

রাঙ্গায় ঘুরপাক নির্বাচনী রাজনীতি

 প্রকাশিত: ১৯:৫৪ ৭ জুন ২০১৮   আপডেট: ২০:২৪ ৭ জুন ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রংপুর-১ (গঙ্গাচড়া) আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা মিছিল, সভা-সমাবেশ করছে। মানুষের কাছে তুলে ধরছেন তাদের ইমেজ।

গঙ্গাচড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জানান, এবার এ আসনে তাদের প্রার্থী বিপুল ভোটে জয়লাভ করবে। তবে এখানে জয়ের স্বপ্ন দেখছে জাতীয় পার্টি। আগামী নির্বাচনে জয়লাভ এবং দলের ভাবমূর্তি অক্ষুণ্ণ রাখতে দলের নেতাকর্মীরা জোর তৎপরতা শুরু করেছেন। তবে বিএনপির কোনো কর্মকাণ্ড দেখা যাচ্ছে না।

এ আসনে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীর তালিকায় রয়েছেন তরুণ নেতা বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বাবলু ও  উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমীন।

গত সংসদ নির্বাচনে এই আসন থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন মসিউর রহমান রাঙ্গা। আগামী নির্বাচনে এই আসনটি হাতছাড়া করতে নারাজ জাতীয় পার্টি। এবার জাতীয় পার্টির শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বি হিসেবে লড়তে চায় আওয়ামী লীগ। বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ঘনিষ্ট আসাদুজ্জামান বাবলু জানান, আমাকে প্রার্থী করলে নেত্রীকে এই আসন উপহার দিব। আমি এই আসন থেকে নির্বাচন করার জন্য রাত-দিন পরিশ্রম করে যাচ্ছি। জনগণ আমাকে চায়। আমি এবার সেটা প্রমান দিতে চাই।

আওয়ামী লীগের অপর মনোনয়নপ্রত্যাশি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমীন জানান, আমি দলের জন্য কাজ করছি। দল এবার আমাকে মনোনয়ন দেবে। 

গঙ্গচড়া উপজেলা বিএনপির নেতা-কর্মীরা জানান পুলিশ তাদের মাঠে নামতে দিচ্ছে না। কিভাবে তারা নির্বচনী প্রচার চালাবেন। তাদের সে সুয়োগ নেই। তবে নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেনছন রংপুর জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ওয়াহিদুজ্জামান মাবু ও যুগ্ম সম্পাদক মোকাররম হোসেন সুজন।

রংপুর জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ওয়াহিদুজ্জামান মাবু ও যুগ্ম সম্পাদক মোকাররম হোসেন সুজন জানান, দল যাকে মনোনয়ন দিবে আমরা তার জন্য কাজ করবো।

তবে জাতীয় পার্টির কোনো নেতা এব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেননি। স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি ও সাবেক এমপি এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ জাতীয় পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী।  

গঙ্গাচড়া উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সামছুল ইসলাম জানান, এই আসনে জাতীয় পার্টি থেকে প্রার্থী হবেন প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি। আমরা চাই এই আসন ধরে রাখতে। রাঙ্গা প্রার্থী হলে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ নিশ্চিত আমরা।

এদিকে জেলা নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক খায়রুল আলম বাবুও নির্বাচনের লক্ষে জনসংযোগ ও প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আজ

Best Electronics
Best Electronics