Exim Bank Ltd.
ঢাকা, বুধবার ২১ নভেম্বর, ২০১৮, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

রবার্ট ব্রুস ও মাশরাফি একই বিন্দুতে মিলতে পারবেন!

মুনিম হাসানডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
রবার্ট ব্রুস ও মাশরাফি একই বিন্দুতে মিলতে পারবেন!
ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আজ ১৮ বছরে পা দিলেন দেশ সেরা এ ক্রিকেটার।১৮ বছর বয়সে ২০০১ সালের ৮ নভেম্বর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেক হয় তার। ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার গতির জন্য অভিষেকের আগেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসেন দেশ সেরা এই পেসার। নানান চরাই উৎরাই পেড়িয়ে দেশের ক্রিকেটারই শুধু নন, সেরা অধিনায়কেও পরিণত হয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে পেয়েছেন দেশের সবস্তরের মানুষের ভালোবাসা ও জনপ্রিয়তা। দেশের সব থেকে জনপ্রিয় খেলোয়াড়ও তাকেই বলা যায়।

১৭ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে মাশরাফির ৭ বার ইনজুরিতে পড়ে ফিরে আসার কাহিনী যেকোনো পেসারের জন্যই উদাহরণ। স্রেফ, আবেগ দিয়ে নয় বরং পারফর্ম দিয়েই দলের সেরা তারকা খেলোয়াড়ে পরিণত হয়েছেন।

২০০১ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে নামার আগে কোনো প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেননি মাশরাফি। আর তাই অভিষেক টেস্টে বড় প্রশ্ন ছিল তার সামর্থ্য নিয়ে। সংবাদমাধ্যমে বলে উঠলেন, 'পাঁচ উইকেট নিয়া নিবানে।' মাশরাফি কথা রেখেছিলেন। টেস্টটি 'ড্র' হলেও চার উইকেট নিয়েছিলেন এই পেসার। শুরুতেই সন্ধিহান ব্যক্তিদের মুখে কুলূপ এঁটে দিয়ে যাত্রা শুরু করেন। এরপর ক্রমশই নিজেকে ছাড়িয়েছেন।

মাশরাফির অভিষেকের পিছনে অ্যান্ডি রবার্টসের ভূমিকাও গুরুত্বপূর্ণ। ২০০১ সালের জুন-জুলাইয়ের দিকে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্যাম্প চলছিল বিকেএসপিতে। সেই ক্যাম্পে অস্থায়ী বোলিং কোচের দায়িত্ব নিয়ে বাংলাদেশে এসেছিলেন অ্যান্ডি রবার্টস। ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই বোলিং কোচকে মুগ্ধ করেন মাশরাফি। রবার্টসের ইতিবাচক মন্তব্যেই ২০০১ সালের ৮ নভেম্বর টেস্টে অভিষেক হয় দেশসেরা পেসারের।

তবে এর আগেই হইচই ফেলে দিয়েছিলেন সেদিনের তরুণ পেসার মাশরাফি। তবে বোলিং দিয়ে নয়। করেছিলেন ব্যাটিং। জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনূর্ধ্ব-১৭ এশিয়া কাপে কুয়েতের বিপক্ষে ২৭ বলে ৭৩ রানের একটি ইনিংস খেলেন। ফলে দেশে বেশ হইচই ফেলে দিয়েছিলেন।

অভিষেকের পর জাতীয় দলে পারফর্মহীনতায় বাদ পড়ার তালিকাতে থাকতে হয়নি মাশরাফির। কিন্তু ভাগ্যের কাছে বারবার পিছনে ফিরতে হয়েছে । ২০০১ সালে অভিষেকের সেই বছরেই পড়লেন ইনজুরিতে। এরপর একে একে ৭ বার যেতে হয়েছিল অস্ত্রোপচারের টেবিলে। তবু বারবার দুর্দান্তভাবে ফিরে এসেছেন, দলের প্রধান বোলারের দায়িত্ব সামলেছেন। ২০০৬ সালে ওয়ানডেতে ৪৯ উইকেট নিয়ে এক বছরে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারিতে পরিণত হন।

দুর্দান্ত গতি ও সুইংয়ে নাকাল করেছেন বিশ্বের বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানদের। ২০০৪ সালে ভারতের বিপক্ষে প্রথম জয়ে অবদান রেখেছিলেন অলরাউন্ড পারফর্মে। এছাড়া অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, শ্রীলংকার বিপক্ষে প্রথম জয়গুলোতে প্রতিপক্ষের উপর শুরু থেকেই চাপ তৈরি করতে ভূমিকা রেখেছেন। ২০০৭ সালের বিশ্বকাপে প্রতাপশালী ভারতকে আকাশ থেকে মাটিতে নেমে আনা ম্যাচে প্রধান ভূমিকা পালন করেন তিনি। বিশ্বকাপ পরবর্তীতে বাংলাদেশে সিরিজ খেলতে আসে ভারত। আর সে সিরিজেও দুর্দান্ত ছিলেন ম্যাশ। ভারত অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড় এক পর্যায়ে আফসোস করে বলেন, ইশ! যদি আমাদের একটা মাশরাফি থাকতো!

২০০৯ সালে প্রথমবারের মত অধিনায়কের দায়িত্ব পান মাশরাফি। কিন্তু অধিনায়কত্ব পাওয়ার প্রথম সিরিজেই ইনজুরিতে পড়েন। ছিটকে যান ৬ মাসের জন্য। এরপর আবারো ফিরে আসেন। আবারো ইনজুরি। ২০১১ বিশ্বকাপ খেলতে পারেননি। দেশের মাটিতে বিশ্বকাপ খেলতে না পারার বেদনায় সংবাদমাধ্যমের সামনেই কান্নায় ভেঙে পড়েন। তার সেই আবেগি কান্নায় আবেগতাড়িত হয়ে ওঠেন দেশের সমর্থকরা। কেননা, ক্রিকেট মাঠে বুক চিতিয়ে লড়াই করতে তিনি যেমন পিছপা হন নি , তেমনই সমর্থকরাও তাকে ভালবাসা দিতে কার্পণ্য করেনি।

২০১১ বিশ্বকাপ পরবর্তীতে দলে ফেরেন দেশের সেরা পেসার। ছন্দে ফিরতে একটি সিরিজই যথেষ্ট হয়ে পড়ে মাশরাফির জন্য। ২০১২ এশিয়া কাপের ফাইনালে ওঠার টুর্নামেন্টে আবারো দুর্দান্ত নড়াইল এক্সপ্রেস। ২০১৪ সালে দল একের পর এক পরাজয়ে পর্যুদস্ত। পুনরায় দলের অধিনায়কত্বের ভার এসে পড়ে তার উপর। বছরের শেষ সিরিজে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫-০ তে সিরিজ জিতে দলকে পুনরায় উজ্জীবিত করে বিশ্বকাপে নিয়ে যান। সেই বিশ্বকাপেই প্রথমবারের মত কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ। ভারতের বিপক্ষে কোয়ার্টারের সেই ম্যাচে 'নো বলের জোচ্চুরি না হলে হয়তো সেমিফাইনাল বা ফাইনালেই দেখা যেত লাল সবুজের দলকে।

তা না হলেও এরপর থেকে যাত্রা শুরু টিম বাংলাদেশের। একে একে পাকিস্তান-ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকাকে সিরিজ হারিয়ে ক্রিকেট বিশ্বে নতুন এক শক্তির আবির্ভাব হয়। বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে না উঠলেও চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সেমিফাইনালে ওঠে অধিনায়ক মাশরাফির দল। আর তাতে পিছনে ফেলে দেয় অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের মত প্রতাপশালী দলকে।

মাশরাফির অধীনেই আরো দুইবার এশিয়া কাপের ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ। আর তাতে নিজের বোলিংয়ের পারফর্মের পাশাপাশি নেতৃত্বও দেন সামনে থেকে। ২০১৮ এশিয়া কাপে হয়ে ওঠেন সেরা অধিনায়ক। শুধু নেতৃত্ব নয়, দলের প্রধান বোলার হিসেবেও ভূমিকা রাখেন। এমনকি পুরো ক্যারিয়ার জুড়ে বোলার হিসেবে খেললেও মিনি অলরাউন্ডার হিসেবেও দারুণ পারফর্ম তার। শেষ দিকে ২০-৩০ রানের ক্যামিওগুলো দলকে জেতাতে রেখেছে মুখ্য ভূমিকা। সাকিব আল হাসানের ভাষায়, 'মাশরাফি ভাইয়ের শেষের দিকের ১৫-২০ রান কতটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল এটা বলে বোঝানো যাবেনা। আমরা তিন-চার হাজার রান করে যতটা ম্যাচ জেতাতে পারিনি। মাশরাফি ভাইয়ের ক্যারিয়ারের এক হাজার রান তার চেয়ে বেশি ম্যাচ জিতিয়েছে। তার ওই রানগুলোই আমাদের অনেক এগিয়ে দিত।'

মাশরাফির অধিনায়কত্ব যে সবসময় একটা ম্যাজিক তা আরো ভালোভাবে বোঝা যায় বিপিএল দেখলে। পাঁচবারের বিপিএলে চারবারই তার দল চ্যাম্পিয়ন। বিশেষত, কুমিল্লা ও রংপুরের মত সাধারণমানের দলকে চ্যাম্পিয়ন বানাতে তার অধিনায়কত্বই যে মূল ভূমিকা রেখেছিল তা প্রকাশ্য দিবালোকের মত সত্য।

২০০১ সালে সেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চট্টগ্রামে ওয়ানডে অভিষেকের পর এখন পর্যন্ত মাশরাফি ১৯৯টি ম্যাচ খেলেছেন। ৪.৮২ ইকোনোমিতে পেয়েছেন ২৫২টি উইকেট। এছাড়া ৫৪টি টি-টোয়েন্টিতে তার উইকেট সংখ্যা ৪২টি। ২০০৯-১০ সালে উইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ইনজুরির পর আর সাদা পোশাকের ক্রিকেটে দেখা যায়নি তাকে। ৩৬ টেস্টে এই ফরম্যাটে তার উইকেট সংখ্যা ৭৮টি।

মাশরাফির পুরো ক্যারিয়ারে একমাত্র অতৃপ্তি এখনো কোনো শিরোপা না জেতা। তিনবার এশিয়া কাপের ফাইনালে ওঠার পর অল্পের জন্য শিরোপা বঞ্চিত হয় বাংলাদেশ। এছাড়া মোট ৬ বার বিভিন্ন টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠেও শিরোপা জেতা হয়নি মাশরাফির। রবার্ট ব্রুস ৬ বার যুদ্ধে পরাজয়ের পর ৭ম বারের চেষ্টায় জয় পেয়েছিলেন। বাংলাদেশও ৬ বার শিরোপা বঞ্চিত। মাশরাফি ৭ম বার সফল অস্ত্রোপচারের পর সবচেয়ে লম্বা সময় ধরে ক্রিকেট খেলে যাচ্ছেন। সামনে বিশ্বকাপই হয়তো মাশরাফির শেষ টুর্নামেন্ট। ৭ সংখ্যাটি যদি লাকি সেভেনেই পরিণত হয় তবে সপ্তমবারের মত কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে কি উঠতে পারে বাংলাদেশ? আর রবার্ট ব্রুসের মত কিংবা মাশরাফির ৭ম বারের সফল অস্ত্রপচারের মত শিরোপার সেই স্বাদ কি সপ্তম চেষ্টাতেই জিততে পারে বাংলাদেশ? ভাগ্য বিধাতা কি মুখ তুলে তাকাবেন?

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ/আরএস

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
পুলিশের গাড়ি ভাঙায় ছাত্রদল নেতা বহিষ্কার
পুলিশের গাড়ি ভাঙায় ছাত্রদল নেতা বহিষ্কার
তাহলে কি এখনো তারা স্বামী-স্ত্রী?
তাহলে কি এখনো তারা স্বামী-স্ত্রী?
আবারো মা হচ্ছেন কারিনা!
আবারো মা হচ্ছেন কারিনা!
ভাবীর শরীরে দেবরের ‘আপত্তিকর’ স্পর্শ
ভাবীর শরীরে দেবরের ‘আপত্তিকর’ স্পর্শ
নির্বাচন একমাস পেছানোর আশ্বাস দিয়েছে ইসি: ড. কামাল
নির্বাচন একমাস পেছানোর আশ্বাস দিয়েছে ইসি: ড. কামাল
কাজলকে ‘জোর করে’ চুমু, ছিল অশ্লীল আচরণ!
কাজলকে ‘জোর করে’ চুমু, ছিল অশ্লীল আচরণ!
বিএনপিতে যোগ দিলেন সৈয়দ আলী
বিএনপিতে যোগ দিলেন সৈয়দ আলী
‘হট’ ভিডিওতে ভাইরাল পুনম
‘হট’ ভিডিওতে ভাইরাল পুনম
বাড়িতে বাবার লাশ, ছেলে পরীক্ষার হলে
বাড়িতে বাবার লাশ, ছেলে পরীক্ষার হলে
মুম্বাইতে ‘তারা’
মুম্বাইতে ‘তারা’
দাদি হলেন মমতাজ
দাদি হলেন মমতাজ
মির্জা ফখরুলকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ছাত্রলীগের
মির্জা ফখরুলকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ছাত্রলীগের
লাল শাড়িতে চীনে ঐশী!
লাল শাড়িতে চীনে ঐশী!
‘নৌকার মনোনয়ন পাবে জরিপে অগ্রগামীরা’
‘নৌকার মনোনয়ন পাবে জরিপে অগ্রগামীরা’
১৬ বছরেই মা হয়েছেন সানিয়া!
১৬ বছরেই মা হয়েছেন সানিয়া!
কে হবেন প্রধানমন্ত্রী? জানালেন ড. কামাল
কে হবেন প্রধানমন্ত্রী? জানালেন ড. কামাল
নৌকার মাঝি হতে চান প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী
নৌকার মাঝি হতে চান প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী
‘নির্বাচনে দায়িত্ব পেলে নিরপেক্ষ ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে কাজ করবে সেনাবাহিনী’
‘নির্বাচনে দায়িত্ব পেলে নিরপেক্ষ ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে কাজ করবে সেনাবাহিনী’
যৌনদাসী বানিয়ে অভিনেত্রীদের...
যৌনদাসী বানিয়ে অভিনেত্রীদের...
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬ আসনে আওয়ামী লীগের ৮১ প্রার্থী
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬ আসনে আওয়ামী লীগের ৮১ প্রার্থী
শিরোনাম:
৩০০ আসনেই নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশনা এরশাদের ৩০০ আসনেই নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশনা এরশাদের মহিলা ফুটবল দলের সঙ্গে ঢাকা ব্যাংকের ছয় বছরের চুক্তি মহিলা ফুটবল দলের সঙ্গে ঢাকা ব্যাংকের ছয় বছরের চুক্তি গুলশানে জাপার মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে; জাতীয় পার্টি যে জোটে থাকবে তারাই ক্ষমতাই আসবে: রুহুল আমিন হাওলাদার গুলশানে জাপার মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে; জাতীয় পার্টি যে জোটে থাকবে তারাই ক্ষমতাই আসবে: রুহুল আমিন হাওলাদার এবার সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে; কোনো পর্যবেক্ষণ সংস্থা দায়িত্ব পালনে অনিয়ম করলে ব্যবস্থা : ইসি সচিব এবার সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে; কোনো পর্যবেক্ষণ সংস্থা দায়িত্ব পালনে অনিয়ম করলে ব্যবস্থা : ইসি সচিব টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ তৃতীয় দিনের মতো বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে তৃতীয় দিনের মতো বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে