Exim Bank Ltd.
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫

রত্নচোরদের অভিনব চুরি

আহনাফ তাহমিদডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
রত্নচোরদের অভিনব চুরি
মহামূল্যবান হীরা

অপরাধ মহলে রত্নচোরদের একটু বিশেষভাবেই ‘সম্মান’ দেয়া হয়। কারণ হলো পেশীশক্তি নয় বরং বুদ্ধিশক্তির প্রশ্রয়েই রত্ন হাতের মুঠোয় নেন তিনি। মূল্যবান রত্ন চুরি করতে হলে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভেদ করে সেই অসাধ্য সাধন করতে হয়। শুধু চুরি নয়, চুরির পর কী করে বের হতে হবে, সে পরিকল্পনাও অনেক আগে থেকে সাজানো গোছানো থাকতে হয়। একটু ভুলভাল হলেই সাড়ে সর্বনাশ! সাহিত্যের পাতায় রত্নচোরদের রয়েছে আলাদা কদর, দেয়া হয়েছে রোমান্টিক ফ্লেভার। আর্থার জে ফলস থেকে শুরু করে একেবারে নবিশ চোরদেরকেও কাগজে কলমে কিংবা রূপালি পর্দায় আলাদা সম্মান দেয়া হয়েছে। আর্নেস্ট উইলিয়াম হরনাং-এর বই কিংবা আলফ্রেড হিচককেরও অসাধারণ সব থ্রিলার ছবিতেও রত্নচোরদের আঁকা হয়েছে যত্নের সঙ্গে। পাঠক কিংবা দর্শকের মনে আঁকতে বাধ্য করা হয়েছে স্বপ্নালু কিছু ছবি। আজ এমনই কিছু রত্নচোরদের নিয়ে কথা বলা হবে। যারা চুরির পর পার পেয়ে গিয়েছেন চমৎকারভাবে।

চকোলেট নিয়ে আসা চোর:

পনের শতক থেকেই বেলজিয়ামের অ্যান্টওয়ার্প শহরটি হীরকের শহর হিসেবে সুখ্যাতি লাভ করে। আনকাট কিংবা কাট, যে কোনো হীরের কথাই বলুন, বাণিজ্যের জন্য এই শহরেই আসতে হবে। শহরটি সার্বক্ষণিক ঘিরে থাকে সশস্ত্র পুলিশ এবং চালু থাকে সিসিটিভি ক্যামেরা। শহরের ব্যাংকের ভল্টগুলোতে ব্যবহার করা হয় এমন সব সিকিউরিটি ডিভাইস, যা বিশ্বের আর কোথাও নেই। তবে কোনো ধরনের সুরক্ষা ব্যবস্থা চোরকে ঠেকাতে পারেনি। সঙ্গে করে তিনি নিয়ে এসেছিলেন চকোলেট আর নিয়ে গিয়েছিলেন বহুমূল্য সব হীরা। কার্লোস হেক্টর ফ্লোমেনবাম (ছদ্মনাম) নামের এই চোর অ্যান্টওয়ার্প শহরের আমরো ব্যাংকে একটি একাউন্ট খোলেন। মার্কিন উচ্চারণে ইংরেজিতে কথা বলতেন তিনি। প্রায় একবছর তিনি একজন সভ্য নাগরিক এবং পুরোদস্তুর ব্যবসায়ীর মতোই ব্যবহার করেন। ভল্টে কিছু রাখতে এলেই ব্যাংকের কর্মকর্তা কর্মচারীদের জন্য নিয়ে আসতেন সুস্বাদু চকোলেট। আর এই চকোলেট দিয়েই সবার মন জয় করে নেন কার্লোস। যেহেতু তিনি নিয়মিত আসতেন তাকে একটি চাবি দিয়ে দেয়া হলো, যাতে চব্বিশ ঘণ্টাই ব্যাংকে আসা যাওয়া করতে পারেন। ২০০৭ সালের মার্চ মাসে ফ্লোমেনবাম পাঁচটি সেফ ডিপোজিট বক্স খুলে ফেলেন। প্রায় ২১ মিলিয়ন ডলার অর্থমূল্যের হীরা চুরি করেছিলেন এই “ভদ্র” রত্নচোর। ব্যাংকের লজ্জিত কর্মকর্তারা পুলিশ বাহিনীর আঁকিয়েকে ফ্লোমেনবামের চেহারার নিখুঁত বর্ণনা দিলেও তার আসল নাম-পরিচয় আর জানা যায়নি। নির্বিঘ্নেই পার পেয়ে যান এই চোর।

নীল বিদ্রোহী:

ফ্রেঞ্চ ব্লু ডায়মন্ড চুরি হয়েছিল ফরাসী বিপ্লবের সময়। হোপ ডায়মন্ড হিসেবেও পরিচিত এটি। ওয়াশিংটন ডিসির ন্যাশনাল মিউজিয়াম অব ন্যাচারাল হিস্টোরিতে এটি পাকাপাকিভাবে সংরক্ষিত রয়েছে। এই হীরার বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, এর রঙ গাঢ় নীল এবং প্রায় ১১২ ক্যারেট। রত্নচুরির ইতিহাসে এই হীরার আলাদা কদর আছে। বলা হয়ে থাকে, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের একটি গুপ্ত মন্দির থেকে এই হীরাটি চুরি করা হয়। সেখানকার এক দেবতার মূর্তিতে বসানো ছিল মহামূল্যবান এই হীরা। কেউ কেউ বলেন, সতেরশ সালের দিকে ভারতের কোনো এক খনিতে খননকাজের সময় এই হীরক আবিষ্কৃত হয়। এরপর হাত বদল হতে থাকে হীরাটি। অবশেষে এটি ফরাসী রাজপরিবারে এসে ঠাঁই পায় এবং ম্যারি আঁতোয়ানেৎ এই হীরের মালিক হন। ফরাসী বিপ্লবের পর ১৭৯২ সালের ১১ সেপ্টেম্বর রত্নচোরেরা রাজপরিবারের মুকুটসহ নানা রত্নের সঙ্গে এই হীরাটিও চুরি করে নিয়ে যায়। বেশ কয়েক বছর এই হীরার কোনো হদিশ পাওয়া যায়নি। ১৮১২ সালে হেনরি ফিলিপ হোপ নামক একজন ব্যাংকারের কাছে একটি হীরা বিক্রি করা হয়। এটি দেখতে হোপ ডায়মন্ডের মতোই কিন্তু আকারে বেশ ছোট। হেনরির কাছে আরও বেশকিছু হীরা ছিল কিন্তু এই হীরাটির ইতিহাস সম্পর্কে কোনো রেকর্ড তার কাছে ছিল না। এমনকি যারা তার কাছে এটি বিক্রি করেছিল, তারাও জানত না এর সম্পর্কে। বিজ্ঞানীরা নানা পরীক্ষা করে রায় দিলেন যে এটি হোপ ডায়মন্ডেরই একটি কর্তনকৃত অংশ।

এক মালী: ১৯৮৯ সালের ঘটনা। থাইল্যান্ডের এক মালী, ক্রিয়াংক্রাই টেচামং এক সৌদি যুবরাজের বাগানে কাজ করত। একদিন তিনি প্রাসাদের দেয়াল বেয়ে তিনতলার জানালা খুলে ঘরের ভেতরে প্রবেশ করেন। সামনে একটি সুরক্ষিত সেফ। স্ক্রু-ড্রাইভারের সাহায্যে টেচামং সেফটি খুলে ফেলে এবং বেশ কিছু হীরা ও হীরার গহনা একটা পুটলিতে বেঁধে ফেলে। রত্নচুরির ইতিহাসে এটিকে অবশ্য বেশ বিরাট কোনো মাপের চুরি বলা যাবে না। তবে চুরির পর হীরাভর্তি ব্যাগটি ময়লার ফেলার বিনে রেখে দেয়। পরদিন ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের সাহায্যে বের করে নিয়ে এসেছিল সে। পরবর্তীতে অনেক সাহিত্য এবং চলচ্চিত্রে এই পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়েছিল। মজার ব্যাপার হচ্ছে, টেচামং যখন তার চুরি করা ব্যাগটি ওজন করতে যায়, সেটি প্রায় ৯১ কেজি হয়েছিল! বিমানে ওঠার আগেই নিরাপদভাবে পার্সেলে সেটিকে থাইল্যান্ডে পাঠিয়ে দেয় সে। তার চুরি করা রত্নগুলোর মাঝে দূর্লভ ৫০ ক্যারেট সাইজের একটি হীরাও ছিল। ডিম্বাকৃতির নীল এই হীরাটি ছিল বেশ দামী। সাধারণ একটি পরিকল্পনার মাধ্যমে চুরি করা হলেও ফলাফল হলো ব্যাপক। রাজকীয় থাই পুলিশের এক শীর্ষ কমকর্তা লে.জে. চালোরের নেতৃত্বে টেচামংকে গ্রেফতার এবং হীরাগুলো উদ্ধার করে সৌদি আরবে নেয় হয়। কিন্তু সৌদি রাজ পরিবারের হীরা বিশেষজ্ঞ জানান, উদ্ধার করে আনা হীরাগুলোর বেশিরভাগই নকল এবং বিশেষ সেই নীল হীরাটিও ফেরত আসেনি।

সৌদি রাজপরিবারের সঙ্গে ভালো সম্পর্কের সুবাদে মোহাম্মদ আল-রুয়াইলি নামক এক ব্যবসায়ী পুরো বিষয়টি নিজেই তদন্ত করে দেখতে উড়ে এলেন থাইল্যান্ডে। কিন্তু ১৯৯০ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি নিখোঁজ হন তিনি। তার সন্ধানে তদন্ত করতে যাওয়া সৌদি দূতাবাসের তিনজন কূটনীতিককেও গুলি করে হত্যা করা হয়। এবং এটা ছিল পেশাদার আততায়ীর কাজ। টেচামংয়ের পক্ষে এভাবে এতগুলো মানুষ খুন করা সম্ভব না কারণ সে কারাগারে। সে শুধুমাত্র রত্নগুলো চুরি করে তার দেশে নিয়ে এসেছিল। ধারণা করা হয় সে কোনো এক রত্ন ব্যবসায়ীর কাছে হীরাগুলো বিক্রি করে। ১৯৯৫ সালে চালোরের বিরুদ্ধে এক রত্ন ব্যবসায়ীর স্ত্রী ও ছেলেকে হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়। ধারণা করা হয়, সৌদি পরিবারের হীরাচুরির ঘটনার সঙ্গে এই হত্যাকাণ্ডটির সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। রাজা ভুমিবলের ৮৪তম জন্মদিন উপলক্ষে চালোরের সাজা কমিয়ে ৫০ বছরের কারাদণ্ড করা হয়। ২০১৫ সালে তাকে মুক্তি দেয়া হয়। এখনো এই দুই দেশের মাঝে সম্পর্ক আর ভালো হয়নি।

দ্য ব্যাগেজ হ্যান্ডলার: ২০০৫ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি, ইউনিফর্মে সজ্জিত দুই ব্যক্তি ডাচ এয়ারলাইন কেএলএমে প্রবেশ করে। চারপাশে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার বেষ্টনী। আর্মস্টারডামের শিপোল এয়ারপোর্ট থেকে একটি লাগেজ ট্রাকে করে আকাশে উড়বে, গন্তব্য অ্যান্টওয়ার্প। লাগেজের নিরাপত্তায় থাকা কর্মীরা অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে বেঁধে ফেলা হলো। তবে কাউকে জখম করা হয়নি। ইউনিফর্ম পরিহিত দুই ব্যক্তি লাগেজ ট্রাকটি চুরি করে নির্বিঘ্নে গেটওয়ে দিয়ে বেরিয়ে এলো। হীরাগুলো যে অ্যান্টওয়ার্পে যাচ্ছে, এই কথাটি খুব বেশি মানুষ জানত না। পুলিশ ধারণা করে, ভেতরের কেউই চোরদের এই সম্পর্কে খবর দিয়েছে। তবে কাউকেই গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। প্রায় ৭২ মিলিয়ন ডলারের হীরে চুরি করে তারা। ২০১৩ সালে ব্রাসেলস এয়ারপোর্টেও ঠিক এমনই এক চুরির ঘটনা ঘটে। এ চুরিতে প্রায় ৫০ মিলিয়ন ডলার অর্থমূল্যের রত্ন হাতিয়ে নেয় চোরেরা।

বাইকে চড়ে আসা দস্যু: ২০১২ সালের নভেম্বরের ৬ তারিখ। রৌদ্রজ্জ্বল এক দুপুরে অন্তত হাজারখানেক মানুষের চোখের সামনে ঘটে যায় অভিনব এক চুরির ঘটনা। স্থান, লন্ডনের ব্রেন্ট ক্রস শপিং সেন্টার। খুব দ্রুতগতিতে ছুটে আসা তিনটি বাইক সবাইকে হতভম্ব করে দেয়। প্রতিটি বাইকে আরোহীর সংখ্যা ছিল দু’জন। হাতে করে নিয়ে আসা বেসবল ব্যাটের সাহায্যে ভেঙে চুরচুর করে দেয় একটি জুয়েলারি শপ। বাইক থেকে না নেমেই হাতিয়ে নেয় হীরার গহনা। অন্তত দুই মিলিয়ন ডলারের ঘড়ি ও রত্ন চুরি করে হাপিশ হয়ে যায় তারা। সিকিউরিটি গার্ড কিছু বুঝে উঠার আগেই গেট থেকে বের হয়ে লাপাত্তা হয়ে যায় চোরেরা। দিনে দুপুরে এই ডাকাতি হতভম্ব করে দেয় সবাইকে। চারপাশে থাকা অনেকেই এই ঘটনাটি ভিডিও করেছিলেন। সিসিটিভি ক্যামেরায় খুঁজতে গিয়ে হতাশ হতে হয় পুলিশকে। আরোহীদের প্রত্যেকের মাথাতেই ছিল হেলমেট, গায়ে ছিল কালো রঙের জ্যাকেট। ফলে কার চেহারা কেমন, সেটি বুঝবার কোনো উপায় ছিল না। তাই কাউকে ধরতেও পারেনি পুলিশ এই ঘটনায়।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস/এসজেড

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
শিস দিয়েই দুই বাংলার তারকা জামালপুরের অবন্তী
শিস দিয়েই দুই বাংলার তারকা জামালপুরের অবন্তী
সুজির মালাই পিঠা
সুজির মালাই পিঠা
আশুরার রোজা: নিয়ম ও ফজিলত
আশুরার রোজা: নিয়ম ও ফজিলত
তরুণীদের বেডরুমে নেয়ার পর হত্যা করাই কাজ
তরুণীদের বেডরুমে নেয়ার পর হত্যা করাই কাজ
অবন্তী সিঁথির জয়জয়কার
অবন্তী সিঁথির জয়জয়কার
যদি তুমি রুখে দাঁড়াও তবেই তুমি বাংলাদেশ!
যদি তুমি রুখে দাঁড়াও তবেই তুমি বাংলাদেশ!
যৌনতায় ঠাসা ৫টি সিনেমা
যৌনতায় ঠাসা ৫টি সিনেমা
সূরা আল নাস এর গুরুত্ব ও ফজিলত
সূরা আল নাস এর গুরুত্ব ও ফজিলত
‘তারেকের তিন গাড়ি, আমার বোন চলে বাসে’
‘তারেকের তিন গাড়ি, আমার বোন চলে বাসে’
শচীনের সঙ্গে অভিনেত্রীর ‘গোপন’ সম্পর্ক!
শচীনের সঙ্গে অভিনেত্রীর ‘গোপন’ সম্পর্ক!
বিয়ে ছাড়াই মা হলেন জিৎ-এর প্রেমিকা!
বিয়ে ছাড়াই মা হলেন জিৎ-এর প্রেমিকা!
নিককে প্রকাশ্যে চুমু খেলেন প্রিয়াঙ্কা
নিককে প্রকাশ্যে চুমু খেলেন প্রিয়াঙ্কা
ন্যান্সি ও তার স্বামীকে গ্রেফতারের দাবি
ন্যান্সি ও তার স্বামীকে গ্রেফতারের দাবি
সূরা বাকারার শেষ অংশের ফজিলত
সূরা বাকারার শেষ অংশের ফজিলত
‘শাহরুখ’ আর রেডি গোয়িং টু জাহান্নাম!
‘শাহরুখ’ আর রেডি গোয়িং টু জাহান্নাম!
মিলনে ‘অপটু’ ট্রাম্প, বোমা ফাটালেন এই পর্নো তারকা!
মিলনে ‘অপটু’ ট্রাম্প, বোমা ফাটালেন এই পর্নো তারকা!
বিবাহিতা বা সন্তানের মা হলে ১০ লাখ জরিমানা!
বিবাহিতা বা সন্তানের মা হলে ১০ লাখ জরিমানা!
‘পবিত্র আশুরা’
‘পবিত্র আশুরা’
এ কেমন কাণ্ড পুলিশ পুত্রের!
এ কেমন কাণ্ড পুলিশ পুত্রের!
কাকে বিয়ে করবেন?
কাকে বিয়ে করবেন?
শিরোনাম:
এশিয়া কাপে পাকিস্তানকে হারিয়ে ভারতের জয় এশিয়া কাপে পাকিস্তানকে হারিয়ে ভারতের জয় আদালতে হাজির হওয়ার মতো সুস্থ নন খালেদা জিয়া: অ্যাডভোকেট মাসুদ তালুকদার আদালতে হাজির হওয়ার মতো সুস্থ নন খালেদা জিয়া: অ্যাডভোকেট মাসুদ তালুকদার এক শতাংশ প্রতিবন্ধী কোটা রাখার পরামর্শ সংসদীয় কমিটির এক শতাংশ প্রতিবন্ধী কোটা রাখার পরামর্শ সংসদীয় কমিটির সুষ্ঠু নির্বাচন হলে সরকারের অস্তিত্ব থাকবে না: ফখরুল সুষ্ঠু নির্বাচন হলে সরকারের অস্তিত্ব থাকবে না: ফখরুল আগামী নির্বাচনের মাধ্যমে শৃঙ্খলমুক্ত হতে চান এরশাদ আগামী নির্বাচনের মাধ্যমে শৃঙ্খলমুক্ত হতে চান এরশাদ অক্টোবরের শেষ সপ্তাহে নির্বাচনকালীন সরকার: কাদের অক্টোবরের শেষ সপ্তাহে নির্বাচনকালীন সরকার: কাদের রোহিঙ্গাদের কারণে কক্সবাজারে পরিবেশ বিপর্যয়, এইডস ও সংঘবদ্ধ অপরাধের ঝুঁকি তৈরি হয়েছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের কারণে কক্সবাজারে পরিবেশ বিপর্যয়, এইডস ও সংঘবদ্ধ অপরাধের ঝুঁকি তৈরি হয়েছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী ইস্কাটনে জোড়া হত্যা; এমপিপুত্র রনির বিরুদ্ধে মামলার রায় ৪ অক্টোবর ইস্কাটনে জোড়া হত্যা; এমপিপুত্র রনির বিরুদ্ধে মামলার রায় ৪ অক্টোবর