Alexa ময়মনসিংহে বন্দুকযুদ্ধে গণধর্ষণ মামলার আসামি নিহত 

ঢাকা, শনিবার   ২০ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৫ ১৪২৬,   ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪০

ময়মনসিংহে বন্দুকযুদ্ধে গণধর্ষণ মামলার আসামি নিহত 

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৯:১৯ ৯ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ১০:০২ ৯ জুলাই ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ময়মনসিংহের ভালুকার উথুরা ইউপির হাতিবেড় এলাকায় সোমবার রাতে এক বন্দুকযুদ্ধে ধর্ষণ মামলার আসামি নিহত হয়েছে।

নিহত সাইফুল ডাকাত উপজেলার কৈয়াদী গ্রামের বাসিন্দা। তার বিরুদ্ধে ভালুকায় ডাকাতি, ধর্ষণসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

ময়মনসিংহ ডিবির ওসি শাহ কামাল আকন্দ বলেন, রাত ১টার দিকে ময়মনসিংহ ডিবি এবং ভালুকা থানা পুলিশ অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণ মামলার আসামিদের ধরতে হাতিবেড় এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা এলোপাতাড়ি গুলি ছোঁড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালালে আসামিরা পালিয়ে যায়। পরে সেখান থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সাইফুলকে উদ্ধার করে ময়মননসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান ও তিনটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

এর আগে ১৬ জুন ভালুকায় ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে হত্যা ও এসিড নিক্ষেপের ভয় দেখিয়ে গণধর্ষণ করে সাইফুল। এরপর ঘটনাটি কাউকে না জানানোর ভয় দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে ছেড়ে দেয়। সে সময় ভয়ে ওই কিশোরী ঘটনাটি বাড়ির কাউকে জানায়নি।

পরবর্তীতে ২৪ জুন ওই ছাত্রী স্কুলে যাওয়ার পথে সাইফুল ও রমজান আবার তার গতিরোধ করলে সে পালিয়ে যায়। পরে বাড়িতে গিয়ে তার বাবা-মার কাছে ঘটনাটি জানালে জেলা এসপি বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। 

এসময় ওই ছাত্রী আরো জানান, সাইফুল ও রমজান ১৬ জুনের এ ঘটনার ভিডিও ফেসবুক ও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে ২৪ জুন আবার নির্যাতনের চেষ্টা চালায়। কিন্তু পরে কৌশলে তাদের হাত থেকে দৌড়ে পালায় সে। পরে ৩০ জুন সকালে এ ঘটনায় নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করা হয় এবং ওই কিশোরীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস