Alexa মোটরসাইকেল চুরি করে ধরা খেল ধর্ষণ মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ২৭ ১৪২৬,   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

মোটরসাইকেল চুরি করে ধরা খেল ধর্ষণ মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি

ফরিদপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:২৮ ১৭ অক্টোবর ২০১৯  

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ফরিদপুর জজকোর্টের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ থেকে চুরি হওয়া মোটরসাইকেলসহ ধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে ওই ব্যক্তির সহযোগী মোটরসাইকেল চোর চক্রের আরো দুই সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ফরিদপুর কোতয়ালী থানায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান কোতয়ালী থানার ওসি মোরশেদ আলম।

গ্রেফতাররা হলেন, চরভদ্রাসন উপজেলার চর হরিরামপুর ইউপির চরশালেপুর গ্রামের ইলিয়াস ব্যাপারি ও জহির রায়হান ও  ফরিদপুর সদরের চর মাধবদিয়া ইউপির ছোনেরট্যাক গ্রামের বাদশা ফকির ।

এর মধ্যে ইলিয়াস ব্যাপারি দুই বোনকে ধর্ষণের দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি। ফরিদপুরের নারী ও শিশু দমন ট্রাইব্যুনাল দুই মাস আগে এ রায় প্রদান করে। রায় প্রদানের সময় ইলিয়াস ব্যাপারি পলাতক ছিলেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুর কোতয়ালী থানার ওসি মোরশেদ আলম জানান, গত ১০ অক্টোবর দুপুর ১টা ১০ মিনিটে ফরিদপুর জজকোর্ট এলাকা থেকে একটি মোটরসাইকেল চুরি হয়। এ ব্যাপারে ওই মোটরসাইকেলের মালিক আব্দুর রাজ্জাক বাদী হয়ে ফরিদপুর কোতয়ালী থানায় গত ১৩ অক্টোবর একটি চুরির মামলা করেন।

ওই মামলার তদন্তে জজ কোর্ট হতে সংগৃহীত সিসি ক্যামেরার ফুটেজ ও গোপন অনুসন্ধানের ভিত্তিতে গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টার দিকে ঢাকার আশুলিয়া থানা এলাকা থেকে ইলিয়াস বেপারি ও বাদশা ফকিরকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী গত বুধবার বেলা সাড়ে ১০টার সময় চরভদ্রাসনের চরশালেপুর এলাকা থেকে জহির রায়হানকে গ্রেফতার করা হয়।

এরপর তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী চরশালেপুরের আফজলের বাড়ি হতে জজ কোর্ট এলাকা থেকে চুরি হওয়া মোটরসাইকেলের সঙ্গে নীল ও কালো রঙের ১২৫ সিসি ডিসকভারি আরো দুটি চোরাই মোটরসাইকেলসহ মোট তিনটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ