Alexa মেদ ঝরাবে যেসব বীজ 

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ১২ ১৪২৬,   ০১ রজব ১৪৪১

Akash

মেদ ঝরাবে যেসব বীজ 

কানিছ সুলতানা কেয়া ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:১৫ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

স্বাস্থ্য সচেতনরা তাদের ডায়েটে আনছেন নানা বদল। এছাড়াও নিয়মিত ব্যায়াম হাঁটাহাঁটি আর শারীরিক কসরত তো রয়েছেই।

তবে জানেন কি? আপনার ডায়েটের তালিকায় কিছু বীজ রাখলে খুব সহজেই স্বাস্থ্যকর উপায়ে ঝরবে শরীরের বাড়তি মেদ।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ওজন কমাতে শারীরিক কসরতের পাশাপাশি সঠিক খাওয়াদাওয়াটাও ভীষণ জরুরি। প্রতদিনের ডায়েটে পুষ্টিগুণ বাড়াতে অনেকেই ইদানীং খাবারে যোগ করছেন নানা প্রকার বীজ।

তো চলুন জেনে নেয়া যাক কোন কোন বীজ রাখবেন ডায়েটের তালিকায়-

তিসি

তিসি বা ফ্ল্যাক্স সিড আদিকাল থেকেই রান্নায় ব্যবহৃত হয়ে আসছে। বিশেষ করে তিসির তেল ব্যবহার করা হতো রান্নায়। তিসিতে রয়েছে ভালো মানের ফ্যাট, অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট, প্রোটিন ও ফাইবার। যা শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। এছাড়াও হার্টকে সুস্থ রাখে ফ্ল্যাক্স সিড। রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা কমাতেও সাহায্য করে ফ্ল্যাক্স সিড।

যেভাবে খাবেন তিসি-

> শুকনা ফ্রাই প্যানে ফ্ল্যাক্স সিড ভেজে শুধু খেতে পারেন।

> আবার তিসির গুঁড়া আটা বা ময়দার সঙ্গে মিশিয়ে রুটি তৈরি করতে পারেন।

> সকালে খালি পেটে এক চা চামচ তিসির গুঁড়া এমনিও খেয়ে নিতে পারেন। উপকার মিলবে হাতেনাতে।

তিল

তিলে থাকে ক্যালশিয়াম অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট জাতীয় উপাদান। লিভারকে যে কোনো  ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে পারে। এছাড়াও তিল হজম বাড়াতে, দাঁত ও হাড়ের ক্ষয়রোধ করে।

যেভাবে খাবেন তিল-

> তিলের বীজ রোস্ট করে সালাদের সঙ্গে খেতে পারেন। 

> বাড়িতে চাইনিজ পদ বানালেও উপর থেকে ছড়িয়ে দিতে পারেন রোস্টেড তিল। 

> এছাড়াও তিলের তেল সালাদের ড্রেসিংয়ে বা রান্নায় ব্যবহার করতে পারেন।

মিষ্টি কুমড়ার বীজ

মিষ্টি কুমড়ার বীজে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন কে, আয়রন, জিঙ্ক, কপার ইত্যাদি। নিয়মিত কুমড়োর বীজ খেলে প্রস্টেট গ্ল্যান্ড ভালো থাকে। আবার বলা হয় বিশেষ কিছু ধরনের ক্যানসারেরও আশঙ্কা কমায় এই বীজ। যারা অনিদ্রার সমস্যায় ভুগচ্ছেন তারা নিয়মিত কুমড়ার বীজ খেতে পারেন।

যেভাবে খাবেন মিষ্টি কুমড়ার বীজ- 

> শুকনা খোলায় কুমড়ার বীজ ভেজে নিন। এটি সালাদে টপিংয়ে বা শরবতের ওপরে ছড়িয়ে খেতে পারেন।

> আবার এক বাটি ফল কেটে তার মধ্যেও ছড়িয়ে দিতে পারেন রোস্টেড কুমড়ার বীজ।

> ওটস কিংবা কর্নফ্লেক্সর সঙ্গেও খেতে পারেন এই বীজ।

সূর্যমুখীর বীজ

বিশেষজ্ঞরা বলছেন কিছু ধরনের ক্যানসার প্রতিরোধ করতে পারে এই বীজ। এছাড়াও সূর্যমুখী বীজে রয়েছে ভালো মানের প্রোটিন, ফাইবার, ভিটামিন বি ওয়ান এবং ই, ম্যাগনেশিয়াম, কপার। যা হাড়ের ক্ষয় রোধ করতে এবং রক্তে চিনির পরিমাণ কমাতে সাহায্য করে।

যেভাবে খাবেন সূর্যমুখীর বীজ-

> সূর্যমুখীর বীজ অন্যান্য বীজের মতো শুকনা খোলায় ভেজে খাওয়া যায়। 

> এছাড়াও সালাদে বা সবজির সঙ্গে রান্না করেও খাওয়া যায় এ বীজ।

সব ধরনের বীজ আলাদা করে না খেয়ে একসঙ্গে সমপরিমাণ মিশিয়ে জারে রেখে দিতে পারেন। ওটসের সঙ্গে ফল আর এই  বীজের মিশ্রণ মিশিয়ে খেতে পারেন। 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে