Alexa ‘মেডেনের রাজা’ বাপু নাদকার্নি মারা গেছেন

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ১৪ ১৪২৬,   ০৩ রজব ১৪৪১

Akash

‘মেডেনের রাজা’ বাপু নাদকার্নি মারা গেছেন

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:০৫ ১৮ জানুয়ারি ২০২০  

বাপু নাদকার্নি

বাপু নাদকার্নি

ভারতীয় ক্রিকেট দলের কিংবদন্তি অলরাউন্ডার রমেশচন্দ্র গঙ্গারাম নাদকার্নি আর নেই। ক্রিকেটমহলে বাপু নাদকার্নি নামেই সমধিক পরিচিত সাবেক এই ক্রিকেটার শুক্রবার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৮৭ বছর। 

তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার জামাই বিজয় খারে। সংবাদ সংস্থাকে তিনি জানান, বার্ধক্যজনিত কারণে তিনি মারা গেছেন। অনেক দিন ধরেই তিনি অসুস্থ ছিলেন। মৃত্যুকালে স্ত্রী ও দুই মেয়েকে রেখে গেছেন নাদকার্নি। 

ভারতের জার্সি গায়ে ৪১টি টেস্ট খেলেছেন তিনি। বল হাতে ৮৮ উইকেটের পাশাপাশি ব্যাট হাতে তার সংগ্রহ ১৪১৪ রান করেন। একটি শতক ছিলো ক্যারিয়ারে। ক্যারিয়ার আহামরি সমৃদ্ধ না হলেও নিখুঁত লাইন এবং লেংথে বোলিং করে খুব দ্রুতই ক্রিকেটবিশ্বের নজর কাড়েন এই বাঁ হাতি স্পিনার। ১৯৬৪ সালে মাদ্রাজে (বর্তমানে চেন্নাই) ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে টানা ২১টি মেডেন ওভার করে দৃশ্যপটে আসেন নাদকার্নি। সেই টেস্টে ৩২ ওভার বল করে ২৭টি মেডেন তুলে নেন তিনি। রান দেন মাত্র ৫টি। তার বোলিং ফিগার ছিলো ৩২-২৭-৫-০।

১৯৩৩ সালে মহারাষ্ট্রের নাসিকে জন্মগ্রহণ করেন নাদকার্নি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১৯১টি ম্যাচ খেলেন তিনি। বাঁ হাতি এই ব্যাটসম্যান করেন ৮৮৮০ রান। ১৪টি শতকে ৪০.৩৬ গড়ে এই রান করেন তিনি। বল হাতে নিয়েছিলেন ৫০০ উইকেট। ১৯৫৫ সালে দিল্লিতে জাতীয় দলের হয়ে প্রথম টেস্ট খেলেন। 

তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন শচীন টেন্ডুলকার। এক টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, বাপু নাদকার্নির মৃত্যুর খবরে মনটা খারাপ হয়ে গেল। একটি টেস্ট ম্যাচে উনার টানা ২১টি মেডেন নেয়ার গল্প শুনে বড় হয়েছি। উনার পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানাই। শান্তিতে থাকবেন স্যার।

নাদকার্নির স্মৃতিচারণ করে সুনীল গাভাস্কার বলেন, অনেক সফরেই তাকে সহকারী ম্যানেজার হিসেবে পেয়েছিলাম। সকবাইকে সবসময় খুব উৎসাহ দিতেন। তার সবচেয়ে জনপ্রিয় মন্তব্য ছিল ‌‘ছোড়না মাত’।

ডেইলি বাংলাদেশ/এম