মৃত্যুপথযাত্রী মাকে বাঁচাতে অর্ধেক লিভার দিলো ছেলে

ঢাকা, বুধবার   ০৮ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২৫ ১৪২৬,   ১৪ শা'বান ১৪৪১

Akash

মৃত্যুপথযাত্রী মাকে বাঁচাতে অর্ধেক লিভার দিলো ছেলে

ডেস্ক নিউজ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:২০ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১০:২১ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

লিভার সিরোসিস রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুপথযাত্রী মা। বাঁচাতে হলে করতে হবে লিভার ট্রান্সপ্লান্ট। কিন্তু কোথাও মিলছে না তা। মায়ের প্রতি অমোঘ ভালোবাসায় দিশেহারা সুপ্রিম কোর্ট ও ঢাকা বারের আইনজীবী শরীফুল ইসলাম। তার চিন্তা যে করেই হোক বাঁচাতে হবে মাকে।

চিকিৎসক জানালেন, মাকে বাঁচাতে হলে শরীফকে তার লিভারের অর্ধেকের চেয়েও বেশি মায়ের লিভারে প্রতিস্থাপন করতে হবে। অপারেশন অনেক জটিল। প্রথমে তার লিভার থেকে কেটে আবার মায়ের শরীরে সংযোজন করতে হবে। মুহূর্তেই রাজি হয়ে গেলেন তিনি। সফলভাবে নিজের লিভারের বেশির ভাগ অংশ মায়ের শরীরে প্রতিস্থাপন করালেন। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন শরীফের সহকর্মী সাইফুল আমিন। তিনি আরো লিখেছেন, মৃত্যুর ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও মায়ের জন্য শরীফের ত্যাগ অনন্য নজির হয়ে থাকবে। একজন আইনজীবী হিসেবে আমি সত্যিই গর্বিত।

এদিকে মায়ের প্রতি শরীফের এমন ভালবাসা ঝড় তুলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ইয়াসির আরাফাত নামে একজন লিখেছেন, এমন দৃশ্য সাধারণত আমরা দেখি না। বরং সব সময়ে মাকে সন্তানের বিপদে এগিয়ে আসতে দেখি। এবার সন্তান মায়ের জন্য এগিয়ে এসেছেন। শরীফ সবার জন্য উদাহরণ।

সাংবাদিক রিপন দে তার ফেসবুকে বিষয়টি মায়ের দেয়া শিক্ষা উল্লেখ করে লিখেছেন, ‘এই পৃথিবীতে সন্তানের জন্য একমাত্র মা জীবন দিতে পারেন এবং নিশ্চিত মৃত্যুর ঝুঁকি নিতে পারেন। তবে শরিফুল ইসলাম সেই গর্বিত সন্তান যে মৃত্যুঝুঁকি নিয়েও হাসতে হাসতে নিজের শরীরের অর্ধেকের বেশি লিভার মৃত্যু পথযাত্রী মাকে দিয়েছেন।’

‘আপনি গর্বিত মায়ের সন্তান। আপনার মাকে স্যালুট। সন্তানকে তিনি মানবিক শিক্ষায় বড় করেছেন, স্বার্থপর হবার শিক্ষা দেননি। ছোট বেলায় মা যদি সন্তানকে শিক্ষা দেন, ‘এর সাথে মিশবিনা তার সাথে টিফিনের খাবার ভাগাভাগি করবি না। কেউ কলম চাইলে দিবি না, বস্তির ছেলের পাশে বসবি না।’ সেই মায়ের সন্তান এত স্বার্থপর হয়ে বড় হবে যে, মাকে বৃদ্ধাশ্রমে দিয়ে আসবে। কারণ এই স্বার্থপর চিন্তা মা নিজেই শিখিয়েছেন।’

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই