Exim Bank Ltd.
ঢাকা, বুধবার ২৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০ মাঘ ১৪২৫

মুশফিকের চোখ ধাঁধানো ব্যাটিংয়ে টাইগারদের সংগ্রহ ২৬১

ক্রীড়া প্রতিবেদকডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
মুশফিকের চোখ ধাঁধানো ব্যাটিংয়ে সংগ্রহ ২৬১
ছবি- সংগৃহীত

এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাট হাতে নেয়া টাইগার বাহিনী শুরুটা ভালো করতে পারেনি। মুশফিকের চোখ ধাঁধানো ব্যাটিংয়ে ৫০ ওভার শেষে দলীয় সংগ্রহ ৪৯.৩ ওভারে ২৬২! লংকার টার্গেট ২৬২।

মিডল অর্ডারে মিথুনের ফিফটি আর মুশফিকের সেঞ্চুরিতে ভর দিয়ে বাংলাদেশের ৫০ ওভারের আগেই সংগ্রহ ২৬১। এর মধে ১৩৩ রানই এসেছে তৃতীয় উইকেট জুটিতে মিথুন-মুশফিকের ব্যাট থেকে। ৬৩ মিথুন আর মুশফিক ১৪৪। একাই দলের রান শেষ পর্যন্ত টেনে নিলেন মুশফিক, ১৪৯ বলে ১৪৪ রান! ছিল তাতে ১১টি বাউন্ডারি আর ৪টি ছক্কা।

ওপেনার তামিমের সঙ্গী হিসেবে লিটন কুমার দাস ইনিংসের ৫ম বলে স্লিপে ক্যাচ দিলেন মেন্ডিসের হাতে। আর ভরসার অপর না তামিম আহত হয়ে সাঁজ ঘরে ফেরত গেলেন। কিন্তু এর আগেই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি তৈরি হলো সাকিব মালিঙ্গার ওভারের শেষ বলে বোল্ড হলে।

প্রচন্ড চাপের মুখে থাকা বাংলাদেশের দলীয় স্কোর তখন মাত্র ১। আর দলীয় ৩ রানের মাথায় তামিম সাঁজ ঘরে হাতে বল লেগে সুস্থ্য হতে চেস্টা করছেন। ক্রিজে মুশফিক আর মিথুন।

মালিঙ্গা আর লাকমলের জোড়া আক্রমের মুখে রানের চাকা সচল রাখতে লড়ছেন অভিজ্ঞ মুশফিক আর মিথুন। দুই বার জীবনও পেলেন মিথুন। ইনিংসের ৪.৫ ওভারে মালিঙ্গার বলে মিথুন বল তুলে দিলেন, ফিল্ডার ম্যাথিউস হাতে নিয়েও ফেলে দিলেন বল। কিন্তু ভাগ্যটা দুই দিক থেকেই ভাল ছিল মিথুনের, কারণ আম্পায়ার নো বলের সংকেত দিলেন।

কতটা ভয়ঙ্কর আক্রমনের মুখে রান আসছিল সেটা টের পাওয় যায় ইনিংসের ৮ম ওভারের শেষ বলে মুশফিকের ব্যাট থেকে লাকমলের ওভারে প্রথম বাউন্ডারি আসলে। দলের রান তো মাত্র ৮ ওভার শেষে ২ উইকেটে ২০! ১০ম ওভারে মুশফিক ১০ রানে, পেরেরার বলে মুশফিক বল তুলে দিলেন। কিন্তু এবারও বল মাটিতে ফেলে দিলেন ফিল্ডার!

ধীর গতিতে লংকার আক্রমন সামলে দুই মিডল অর্ডার ১৩ ওভার শেষে স্কোর বোর্ডে ২ উইকেটে ৫০ রান জমা করে। মুশফিক আর মিথুনের পর স্বীকৃত ব্যাটসম্যান বলতে রিয়াদ আর মিরাজ অক্ষত ছিল। দলীয় স্কোর শেষ অবদি কত হবে? সেটা নিয়েই আতংক ছিল।

কিন্তু মিডল অর্ডারে রানের চাকা সচলের দায়িত্ব কাধে নেয়া অভিজ্ঞ মুশফিক নিজে খেলেছেন আর মিথুনকে পরিচালিত করেছেন। কঠিন মূহুর্তে মিথুন দলের রানের চাকা সচল রাখলেন। দুই ব্যাটসম্যান দেখে শুনে এগিয়ে গেলেন।

দলের রান ধীরে হলেও আসতে শুরু করে। দলের শত রান পূর্ন হলো মিথুনের ব্যাট থেকে বাউন্ডারির মধ্যে দিয়েই। নিজের ক্যারিয়ারে ৪র্থ ওডিআই ম্যাচে প্রথম ফিফটির মালিক হলেন মিথুন। ১৯.৩ ওভারে দলের স্কোর ১০০/২, মিথুন ৫২ বলে ৫০ আর মুশফিক ৫৮ বলে ৪২ রানে।

মুশফিকও তখন নিজের ৩০তম ফিফটির পথে হাটছেন। মিথুনের পর মুশফিক ৬৭ বলে করলেন ৩০ম ওডিআই ফিফটি। তাতে ছিল ৩ বাউন্ডারি আর ১ ছক্কার মার। তবে ব্যাক্তিগত ৫৯ রানে রান আউটের আবেদন থেকে রেহাই পেলেন। মুশফিক টিকে থাকলেও পাশে লম্বা সময়ের জন্য সঙ্গী পাচ্ছিলেন না। রিয়াদ ক্রিজে এলেন মিথুনের পরিবর্তে। তবে ১ রানের বেশি হলো না রিয়াদের ব্যাট থেকে। রিয়াদের পথেই হাটলেন সৈকত। স্লিপে সহজ ক্যাচে পরিণত হলেন সৈকত (১)। ২৮ ওভার শেষে ৫ উইকেটে ১৪২, কতটা পথ পাড়ি দিতে সক্ষম হবে বাংলাদেশ? এই যখন ভাবনা তখন ৬ষ্ঠ উইকেট জুটিতে মুশফিক-মিরাজ হাল ধরার চেস্টা করছেন।

৩৩ রানে ছোট পার্টনারশীপ গড়ার পর মিরাজ ১৫ রানে ক্যাচ দিলেন। ক্রিজে এলেন অধিনায়ক মাশরাফি।

তবে আর বড় পার্টনারশীপ হলো না। ৩৯ ওভারে ৭/১৯৫, মাশরাফি যখন ১১ রানে তখন মুশফিক ৯০ রানে দাঁড়িয়ে। ডি সিলভার বলে এলবি’র ফাঁদে কাটা গেলেন রুবেল (২)। মুশফিক তখন সেঞ্চুরি পূরণের শংকায়। ৯৬ রানে দাঁড়ানো মুশফিক নন-স্ট্রাইকে। মুস্তাফিজ তখন মুশফিকের নতুন সঙ্গী। ৪৩.৩ ওভারে চার মেরে মুশফিক ৬ষ্ঠ ওডিআই সেঞ্চুরি পূরন করলেন ১২৩ বলে ৭টি বাউন্ডারি ও ১টি ছক্কা দিয়ে।

শেষ দিকে মারকুটে ভূমিকায় দেখা গেল মুশফিককে। কারণ দলীয় স্কোর আড়াই শত লেভেলে নিতে চেস্টা করেন অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান। ৪৬.৫ ওভারে ২২৯ রানের মাথায় মুস্তাফিজ ভূল বোঝাবুঝির কারণে রান আউট হয়ে গেলে ব্যান্ডেজ হাতেই ক্রিজে শেষ বাটসম্যান হিসেবে হতবাক করে দিয়ে তামিম উপস্থিত! মুুশফিকের সঙ্গে ব্যাট করলেন, তবে এক হাতে। বাম হাতের ব্যান্ডেজের কারণে গ্লাভস কেটে হাতে পড়েছেন তামিম।

তবে মুশফিক স্ট্রাইক হাতে রাখলেন, তামিমকে স্ট্রাইকে দিলেন না। শেষ দিকে মুশফিকের মারকুটে ব্যাটিং দেখার মতোই ছিল। মুশফিক ১৪৪ আর তামিম শেষ পর্যন্ত ২ রানেই, দলের সংগ্রহ ২৬১। ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
নতুন হাইস্পিড রেলে ঢাকা থেকে ৫৪ মিনিটে চট্টগ্রাম
নতুন হাইস্পিড রেলে ঢাকা থেকে ৫৪ মিনিটে চট্টগ্রাম
সেলফিতে মাশরাফী দম্পতি
সেলফিতে মাশরাফী দম্পতি
বাংলাদেশের মাঝে এক টুকরো ‌'কাশ্মীর'!
বাংলাদেশের মাঝে এক টুকরো ‌'কাশ্মীর'!
বঙ্গোপসাগরে স্যাটেলাইট ট্রান্সমিটার যন্ত্রযুক্ত কচ্ছপ উদ্ধার
বঙ্গোপসাগরে স্যাটেলাইট ট্রান্সমিটার যন্ত্রযুক্ত কচ্ছপ উদ্ধার
‘মা’ গানে মাতালেন নোবেল, কাঁদালেন মঞ্চ (ভিডিও)
‘মা’ গানে মাতালেন নোবেল, কাঁদালেন মঞ্চ (ভিডিও)
এমপি হচ্ছেন মৌসুমী!
এমপি হচ্ছেন মৌসুমী!
মদের চেয়ে দুধ ক্ষতিকর: মার্কিন পুষ্টিবিদ
মদের চেয়ে দুধ ক্ষতিকর: মার্কিন পুষ্টিবিদ
পাসওয়ার্ড না দেয়ায় স্বামীকে পুড়িয়ে মারল স্ত্রী
পাসওয়ার্ড না দেয়ায় স্বামীকে পুড়িয়ে মারল স্ত্রী
স্ত্রীর ‘বিশেষ’ আবেদনে মলম মাখিয়ে বিপাকে স্বামী!
স্ত্রীর ‘বিশেষ’ আবেদনে মলম মাখিয়ে বিপাকে স্বামী!
বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শীর্ষে বাংলাদেশি পুরুষরা!
বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শীর্ষে বাংলাদেশি পুরুষরা!
সোমবার ‘চন্দ্রগ্রহণ’
সোমবার ‘চন্দ্রগ্রহণ’
ফুলশয্যার রাতে স্ত্রীর কাছে কী চায় স্বামী
ফুলশয্যার রাতে স্ত্রীর কাছে কী চায় স্বামী
শুধুই নারীসঙ্গ পেতে পর্যটকরা যেসব দেশে ভ্রমণ করেন
শুধুই নারীসঙ্গ পেতে পর্যটকরা যেসব দেশে ভ্রমণ করেন
মৃত মানুষের বাড়িতে কান্না করাই তাদের পেশা!
মৃত মানুষের বাড়িতে কান্না করাই তাদের পেশা!
পালিয়ে বিয়ে করলে আশ্রয় দেবে পুলিশ
পালিয়ে বিয়ে করলে আশ্রয় দেবে পুলিশ
ষাট বছরের বরের সঙ্গে ১৫ বছরের কনে!
ষাট বছরের বরের সঙ্গে ১৫ বছরের কনে!
বিয়ের খবর প্রকাশ করলেন সালমা
বিয়ের খবর প্রকাশ করলেন সালমা
গণিতে ভীত ছাত্রী এখন নাসার ইঞ্জিনিয়ার
গণিতে ভীত ছাত্রী এখন নাসার ইঞ্জিনিয়ার
শাহনাজের স্কুটি উদ্ধার, হিরো পুলিশ
শাহনাজের স্কুটি উদ্ধার, হিরো পুলিশ
বৃক্ষমানবের হাতে পায়ে ফের শেকড়
বৃক্ষমানবের হাতে পায়ে ফের শেকড়
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জ-১ আসনে উপনির্বাচনও ২৮ ফেব্রুয়ারি কিশোরগঞ্জ-১ আসনে উপনির্বাচনও ২৮ ফেব্রুয়ারি প্রথম দফা উপজেলা নির্বাচন ৮ বা ৯ মার্চ প্রথম দফা উপজেলা নির্বাচন ৮ বা ৯ মার্চ সংরক্ষিত আসনে তফসিল ৩ ফেব্রুয়ারি সংরক্ষিত আসনে তফসিল ৩ ফেব্রুয়ারি ২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র পদে উপনির্বাচন, একই দিন দুই সিটির নতুন ৩৬টি ওয়ার্ডে ভোটগ্রহণ ২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র পদে উপনির্বাচন, একই দিন দুই সিটির নতুন ৩৬টি ওয়ার্ডে ভোটগ্রহণ এরশাদ এখন নার্সের সহযোগিতায় চলাফেরা করছেন, বিকেল ৩টায় সিঙ্গাপুর থেকে ডেইলি বাংলাদেশকে মেজর (অব.) খালেদ আখতার এরশাদ এখন নার্সের সহযোগিতায় চলাফেরা করছেন, বিকেল ৩টায় সিঙ্গাপুর থেকে ডেইলি বাংলাদেশকে মেজর (অব.) খালেদ আখতার