Alexa মুজিব শতবর্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাচ্ছে জামালপুরবাসী 

ঢাকা, শনিবার   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ১৬ ১৪২৬,   ০৫ রজব ১৪৪১

Akash

মুজিব শতবর্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাচ্ছে জামালপুরবাসী 

জামালপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০২:০৬ ২৫ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

মুজিব শতবর্ষে জামালপুরের ২৬ লাখ মানুষ পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ আগ্রহে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর প্রথমবারের মতো এসি ট্রেনের সুবিধা পেতে যাচ্ছে জেলাবাসী। ‘জামালপুর এক্সপ্রেস’ নামের এ ট্রেনটি ২৬ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।

নতুন ট্রেন উদ্বোধন উপলক্ষে প্রস্তুত জেলাবাসী। জামালপুর, সরিষাবাড়ী, তারাকান্দি, হেমনগর স্টেশন প্রস্তুত নতুন ট্রেনের জন্য। 

জামালপুর রেল স্টেশন চত্বরে সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, নতুন ট্রেন উদ্বোধন উপলক্ষে জামালপুর স্টেশন পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা করা হয়েছে। নেয়া হয়েছে উদ্বোধনের পুরো প্রস্তুতি। স্টেশন চত্বরে নেই দোকান পাট। চকচক করছে পুরো এলাকায়। স্টেশন চত্বরের এ পরিবেশ বছর জুড়েই আশা করছে যাত্রী সাধারণ।

তথ্য প্রতিমন্ত্রীর সফর সূচি সূত্রে জানা যায়, সরিষাবাড়ির অ্যাডভোকেট মতিয়র রহমান তালুকদার স্টেশনে জনসভার আয়োজন করা হয়েছে। ২৬ জানুয়ারি সকাল ১০টায় তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডাক্তার মুরাদ হাসান অ্যাডভোকেট মতিয়র রহমান তালুকদার স্টেশন থেকে সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত থেকে অংশ গ্রহণ করবেন। 

এ উপলক্ষে শুক্রবার সন্ধায় আওনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের অফিসে আলোচনা সভা হয়। সভায় তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বিভিন্ন দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন। সেই সঙ্গে তিনি দলীয় নেতাকর্মীদেরকে মতিয়র রহমান তালুকদার স্টেশন চত্বরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিডিও কনফারেন্সে সবাইকে উপস্থিত থাকার জন্য আহবান জানিয়েছেন।

অপরদিকে জনসভাকে সফল করতে সন্ধ্যায় জগন্নাথগঞ্জ পুরাতনঘাটে মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি বাজারের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে টান বাজারে সমাবেশে মিলিত হয়। এর আগে বিকেলে তারাকান্দি যমুনা সারকারখানা এলাকায় মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি কারখানা গেটের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পথসভায় করেন। এমএ জলিল রতনসহ শতাধিক নেতাকর্মী মিছিলে অংশ গ্রহণ করেন। 

রেলওয়ে সূত্র জানায়, ৬২০ আসনবিশিষ্ট ‘জামালপুর এক্সপ্রেস’ ট্রেনে ১০০টি এসি সিট থাকছে। বাকি ৫১০ সিট শোভন চেয়ার। ঢাকার কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে সকাল সাড়ে ১০টায় জামালপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। 

ট্রেনটি টাঙ্গাইল ও বঙ্গবন্ধু সেতু (পূর্ব) স্টেশন হয়ে সরিষাবাড়ী স্টেশনে বিকেল ৩.১৩ টায় ও জামালপুর জংশনে বিকাল ৪.০৫টায় পৌঁছবে। পরে জামালপুর জংশন থেকে বিকাল ৫.৪৫টায় ও সরিষাবাড়ী স্টেশন থেকে সন্ধ্যা পৌনে ৭ টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। বঙ্গবন্ধু সেতু (পূর্ব) ও টাঙ্গাইল স্টেশন হয়ে ট্রেনটি রাত সাড়ে ১১ টায় ঢাকায় পৌঁছবে। 

ঢাকা থেকে জামালপুর ও সরিষাবাড়ী পর্যন্ত প্রতিটি এসি সিট ৩৮৬ টাকা ও শোভন চেয়ার ২০০ টাকা করে মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। ট্রেনটি উদ্বোধন উপলক্ষে সাজসাজ রব বিরাজ করছে পুরো জেলা জুড়েই। প্রতি রোববার সাপ্তাহিক বন্ধ থাকবে।

জানা গেছে, শুধুমাত্র ঢাকা থেকে দেওয়ানগঞ্জের ‘তিস্তা এক্সপ্রেস’ ট্রেনে কয়েকটি এসি সিট ছিল। ‘জামালপুর এক্সপ্রেস’ ট্রেন চালু হলে জেলায় আরো একটি নতুন এসি ট্রেন যুক্ত হবে ও সরিষাবাড়ীবাসী প্রথম এসি ট্রেন পাবে। 

ঢাকা থেকে জামালপুর-সরিষাবাড়ী পার হয়ে বঙ্গবন্ধু সেতু (পূর্ব) ও টাঙ্গাইল স্টেশন দিয়ে পুনরায় ঢাকায় পৌঁছানোর রেলরুট দীর্ঘদিন আগে চালু হলেও এ রুটে সরাসরি ট্রেন ছিল না। জেলাবাসীর দীর্ঘদিনের প্রতিক্ষার পর অবশেষে ট্রেনটি চালু হচ্ছে। এ রুটে ট্রেন চালু করা জামালপুর-৪ (সরিষাবাড়ী) আসনের এমপি তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল। 

জামালপুর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. শাহাবুদ্দিন জানান, ২৬ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ‘জামালপুর এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। এ উপলক্ষে জামালপুর রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন প্রস্তুতি সম্পন্ন করছে। পূর্ণাঙ্গ সূচি পরে প্রকাশ হবে।

তারাকান্দি বঙ্গবন্ধু সেতু লিংক রুটের সদস্য সচিব সাংবাদিক মোস্তফা বাবুল বলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডাক্তার মুরাদ হাসান এমপিব বাবা অ্যাডভোকেট মতিয়র রহমান তালুকদার এ রুটে ট্রেন চালুর দাবির আহবায়ক ছিলেন। তার দূর্বার আন্দোলনের ফলেই এ রুটটি চালু করা সম্ভব হয়েছে। আজ তিনি নেই কিন্তু তার স্মৃতি জামালপুর জেলাবাসীর হৃদয়ের স্মৃতিপটে চিরদিনের জন্য স্বর্ণাঙ্কারে লেখা থাকবে।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেন, নতুন ট্রেন মুজিব শতবর্ষে জামালপুরের ২৬ লাখ মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে উদ্বোধন করবেন। পরে মতিয়র রহমান তালুকদার রেলওয়ে স্টেশন থেকে এটি যাত্রা শুরু করবে। 

অত্যাধুনিক যাত্রী সুবিধা সম্বলিত প্রতিটি কোচ স্টেইনলেস স্টিলের তৈরি। ট্রেনটিতে প্রতিবন্ধী যাত্রীদের হুইল চেয়ারসহ চলাচলের সুবিধা থাকছে। এছাড়া শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কোচে রয়েছে পরিবেশবান্ধব বায়ো-টয়লেট। অন্যদিকে ট্রেনটিতে রয়েছে আধুনিক ও উন্নত মানের রুফ মাউন্টেড এয়ার কন্ডিশনার ইউনিট সম্বলিত শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ আগ্রহে জামালপুর থেকে ঢাকা পর্যন্ত রেলপথে জামালপুর এক্সপ্রেস চালু হচ্ছে। তারাকান্দি-বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব-টাঙ্গাইল হয়ে নতুন রুটে ঢাকা-জামালপুরের মধ্যে আন্তনগর এ ট্রেনটির মাধ্যমে মধ্যাঞ্চলের একটি বৃহৎ জনগোষ্ঠীর রাজধানীসহ দেশের গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগের দারুণ সুযোগ সৃষ্টি হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে