Alexa মুখ চেপে পুকুর পাড়ে গৃহবধূকে গণধর্ষণ

ঢাকা, বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯,   কার্তিক ৭ ১৪২৬,   ২৩ সফর ১৪৪১

Akash

মুখ চেপে পুকুর পাড়ে গৃহবধূকে গণধর্ষণ

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:২০ ১৬ মে ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে এক গৃহবধূকে গণধষর্ণের সময় মোবাইলে ভিডিও ধারণ হয়েছে। সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে ফের ওই গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বৃহম্পতিবার ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে চার ব্যক্তিকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন।

আসামিরা হলেন- স্থানীয় গাজীপুরা এলাকার ছায়েদ আলীর ছেলে সেলিম, ছালামের ছেলে মাঈন উদ্দিন, কফিল উদ্দিনের ছেলে সোহেল, একই এলাকার নিজাম উদ্দিনের ছেলে আবুল। 

ওই নারী চার সন্তানের জননী ও স্থানীয় এক রিকশা চালকের স্ত্রী। 

নির্যাতনের শিকার ওই নারী জানান, র্দীঘদিন ধরে এলাকার চার বখাটে তাকে মোবাইলে উত্যক্ত করে আসছিল। তাতে তিনি সাড়া দিচ্ছিলেন না। ৬ মে সন্ধ্যায় তিনি বাড়ির বাইরে বের হলে একা পেয়ে সেলিম তাকে মুখ চেপে ধরে একটি পুকুর পাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকেই অপেক্ষায় ছিল একই 

এলাকার আবুল, সোহেল ও নাঈম উদ্দিন। তার সহযোগিরা তার হাত-পা ও মুখ চেপে ধরে রাখে এবং সেলিম তাকে ধর্ষণ করে। এসময় নাঈম উদ্দিন মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে। সামাজিক লোক লজ্জার ভয়ে বিষয়টি পরিবারের লোকজনের কাছে গোপন রাখেন।

তিনি আরো জানান, কিন্তু ধর্ষককারীরা ওই ভিডিও ফেসবুকে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে ফের ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। পরে গৃহবধূ তার পরিবারকে বিষয়টি জানায়। এনিয়ে পরে এলাকায় বিচার-সালিশ করতে চাইলে স্থানীয় প্রভাবশালীরা ধর্ষকদের পক্ষ নিয়ে উল্টো তাকে অপবাদ দিতে থাকে। কোনো বিচার না পেয়ে বৃহম্পতিবার ওই গৃহবধূ চার ব্যক্তিকে আসামি করে একটি মামলা করেন।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে আড়াইহাজার থানার এসআই ফায়জুর রহমান জানান, বৃহম্পতিবার ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে চার ব্যক্তিকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম